kalerkantho


মুহম্মদ জাফর ইকবালের মানবিকতা

৮ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



শরীরে প্রচণ্ড ব্যথা, রক্তক্ষরণ হচ্ছে তাঁর। তবু তিনি জানতে চাইলেন তাঁর ওপর যে আক্রমণ করেছে সে সুস্থ আছে কি না? নিজে কষ্টে থেকেও তিনি চেয়েছেন যে আক্রমণকারী যেন কষ্টে না থাকে। এমন মানবতাসম্পন্ন জাতির বিবেককেও মানুষরূপী পশুরা আক্রমণ করতে পারে? ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল মানুষকে ভালোবাসেন, মানুষের কল্যাণের জন্য কাজ করেন, লিখে যান সব অন্যায়ের বিরুদ্ধে। তিনি মানুষ গড়ার শ্রেষ্ঠ একজন কারিগর, তিনি শিশু-কিশোর থেকে শুরু করে সবার প্রিয় ব্যক্তি ও বন্ধু। কিন্তু কেন তাঁর ওপর এই নৃশংসতা? ভবিষ্যতে এ রকম দুর্ঘটনা আর ঘটবে না সে ব্যাপারে রাষ্ট্র ও জনতা সজাগ আছে তো? সন্ত্রাসবাদ ও জঙ্গিবাদকে নির্মূল করে জাফর ইকবাল স্যারসহ সবাইকে নিরাপত্তা দেওয়া সম্ভব হবে কি? এমন বিপদের মধ্যেও স্যার খোঁজ নিয়েছেন তাঁর প্রিয় ক্যাম্পাসেরও। তিনি বলেছেন ক্যাম্পাস যেন অশান্ত না হয়। পাশাপাশি আন্দোলনরত শিক্ষার্থীদের শান্ত করার জন্য তাঁর সহধর্মিণীকে তিনি নির্দেশনাও দেন। বাংলার মানুষ ভালো থাকলে ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল ভালো থাকেন।

মো. নিজাম গাজী, ঢাকা।



মন্তব্য