kalerkantho


প্রশ্ন ফাঁস বন্ধে ব্যবস্থা নিন

৫ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



এপ্রিলের প্রথম সপ্তাহেই সারা দেশে এইচএসসি বা উচ্চ মাধ্যমিক ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হবে। যেকোনো মূল্যে এই পরীক্ষার প্রশ্নপত্র ফাঁস রোধ করতে হবে আর এ জন্য আগে থেকেই প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে হবে। কেন্দ্রীয়ভাবে প্রশ্ন প্রণয়নের ব্যবস্থা করতে হবে। কিন্তু মুদ্রণ ও বিতরণের দায়িত্ব জেলা প্রশাসকদের নিয়ন্ত্রণে দিতে হবে। কোনো অবস্থায়ই একই প্রশ্নে সারা দেশে পরীক্ষা নেওয়া উচিত হবে না। ৬৪টি জেলার জন্য পৃথক পৃথক প্রশ্ন প্রণয়ন সম্ভব না হলেও অন্তত ২০ থেকে ২৫ রকমের প্রশ্ন প্রণয়ন করে শিক্ষা বোর্ড থেকে ই-মেইলের মাধ্যমে পরীক্ষা শুরু হওয়ার ঘণ্টাখানেক আগে জেলা পর্যায়ের সব কর্মকর্তার উপস্থিতিতে জেলা প্রশাসকের কাছে পাঠাতে হবে। জেলা প্রশাসক সবার উপস্থিতিতেই তাঁর নিজ জেলার উপজেলা পর্যায়ের কর্মকর্তাদের সমন্বয়ে গঠিত কমিটির প্রধান হিসেবে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তার কাছে ই-মেইলে প্রশ্ন পাঠাবেন। সবার সামনে উপজেলা পর্যায়ে প্রশ্ন মুদ্রণের ব্যবস্থা করে পরীক্ষা শুরুর ১০ মিনিট আগে পরীক্ষাকেন্দ্রে পৌঁছে দিতে হবে এবং কর্মকর্তাদের সামনেই খাম খুলে পরীক্ষার্থীদের হাতে দিতে হবে। শিক্ষা বোর্ড থেকে প্রশ্নপত্র প্রেরণ, গ্রহণ, মুদ্রণ ও বিতরণ—কোনো পর্যায়েই কোনো কর্মকর্তা মোবাইল ফোন বা স্মার্টফোন সঙ্গে রাখতে পারবেন না। পরীক্ষার খাতা কেন্দ্রীয়ভাবেই মূল্যায়ন করতে হবে এবং কোনো রকম উদারতা বা কঠোরতা নয়। সঠিকভাবেই খাতা মূল্যায়ন করতে হবে।

বিপ্লব বিশ্বাস, ফরিদপুর।


মন্তব্য