kalerkantho


মিড ডে মিল প্রতিদিন করুন

৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



মিড ডে মিল প্রতিদিন করুন

আমাদের বেশির ভাগ মা সন্তানদের জন্য টিফিনের ব্যবস্থা করতে পারেন না। বিশেষ করে মফস্বলের মায়েরা এ ক্ষেত্রে বেশি অপারগ।

তাঁরা বড়জোর দুই বা চার টাকা দেন সন্তানকে। অনেকে আবার তা-ও পারেন না। যারা টাকা নিয়ে যায় তারা কী কিনে খায় তা কি অভিভাবকরা দেখেন? হকারদের কাছ থেকে খাবার খেয়ে তাদের একটার পর একটা অসুখ লেগেই থাকে। এ ছাড়া যে শিশুকে পরিবার টিফিন বা টাকা কোনো কিছুই দেওয়ার সামর্থ্য রাখে না সে একরকম অভুক্তই থাকে। সব মিলিয়ে এর প্রত্যক্ষ প্রভাব পরে শিশুর শিক্ষাকাজে। তাই স্কুলগামী শিক্ষার্থীদের টিফিনের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। সরকার বিচ্ছিন্নভাবে মিড ডে মিলের ব্যবস্থা করলেও তা অপ্রতুল। আবার অনেক স্কুলে অতি উৎসাহী হয়ে দুই দিন মিড ডে মিলের আয়োজন করে; কিন্তু তৃতীয় দিন অভুক্ত রাখে। বরং এমন আয়োজন অপচয় আর ঢাকঢোল পেটানোর কৌতূহল ছাড়া কিছু নয়। তাই মিড ডে মিলের জন্য সমন্বিত উদ্যোগ নিতে হবে। দেশের খাদ্য উত্পাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য প্রতিষ্ঠান বিশ্বমানের শুকনো খাবার তৈরি করে থাকে। তা ছাড়া সেনা কল্যাণ সংস্থাও শুকনো খাবার তৈরি করে। এসব প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ৬৪টি শ্রেষ্ঠ প্রতিষ্ঠানকে টেন্ডারের মাধ্যমে ৬৪টি জেলায় দায়িত্ব দেওয়া হোক, যারা স্কুলে অধিক পুষ্টিসমৃদ্ধ সুষম খাদ্য সরবরাহ করবে। প্রয়োজনে এসব প্রতিষ্ঠানকে কর সুবিধা দেওয়া যেতে পারে। আশা করি, সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ বিষয়টি ভেবে দেখবে।

 

জাকারিয়া স্বাধীন, ঢাকা।


মন্তব্য