kalerkantho


গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি বারবার কেন?

২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আবারও গ্যাসের দাম বাড়ানোর ঘোষণা এসেছে। এতে গৃহস্থালিতে গ্যাস ব্যবহারের ক্ষেত্রে দুই চুলার জন্য মাসিক বিল ৮০০ টাকা (জুন থেকে ৯৫০ টাকা) এবং এক চুলার জন্য ৭৫০ টাকা (জুন থেকে ৯০০ টাকা) করা হয়েছে। এ ছাড়া সিএনজির দাম প্রতি ঘনমিটার ৩৫ থেকে বাড়িয়ে ৩৮ টাকা করার কথা বলা হয়েছে। গ্যাসের দাম বৃদ্ধির জন্য কিছু যুক্তি দেখানো হচ্ছে। যেমন—পাইপলাইন গ্যাসের ব্যবহার নিরুৎসাহিত করা, বিকল্প হিসেবে এলপি গ্যাস ব্যবহার করা ইত্যাদি। এ ছাড়া দ্রুত কমে আসা দেশের গ্যাসের ওপর থেকে বাড়তি চাপ কমানো। কিন্তু আমরা বরাবরই দেখেছি ভর্তুকির কথা বলে মূল্যবৃদ্ধির শর্টকাট পথে সরকার এগোয়। দুর্মূল্যের বাজারে এমনিতেই জনসাধারণের নাভিশ্বাস উঠেছে। এর ওপর গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করা হলে তা হবে তাদের জন্য ‘মড়ার ওপর খাঁড়ার ঘা’। বেশির ভাগ যানবাহন যেমন—ট্রাক, লরি এখন গ্যাসচালিত। গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির ফলে যাত্রী ভাড়া বাড়বে।

বাড়বে পণ্যদ্রব্য বহনের খরচও। এর ফলে নিত্যপণ্যের বাজার আরো অস্থির হবে। সরকার ভোক্তা অধিকারের বিষয়টিকে গুরুত্ব দিলে মূল্যবৃদ্ধির এই অযৌক্তিক সিদ্ধান্তের দিকে যেত না। আমরা আশা করব, জনসাধারণের সার্বিক দুর্ভোগের কথা মাথায় রেখে ভবিষ্যতে মূল্যবৃদ্ধির ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।

 

এস এম রওনক রহমান আনন্দ

স্কুলপাড়া, ঈশ্বরদী, পাবনা।


মন্তব্য