kalerkantho


আর কত নারী নির্যাতন

২৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



প্রতিদিন পত্রিকায় নারী নির্যাতনের কোনো না কোনো খবর থাকে। তবে এটাও ঠিক, যে হারে নারী নির্যাতন হয় এর অর্ধেকও পত্রিকায় আসে না। অতীতে শুধু বিবাহিত নারীরা যৌতুক আর স্বামীর পরকীয়ার কারণে নির্যাতিত কিংবা খুন হতো। কিন্তু বর্তমানে যোগ হয়েছে ব্যর্থ প্রেমিকের নির্যাতন। সবাই নির্যাতনের বিপক্ষে থাকলেও কেউ পারছে না নির্যাতন বন্ধ করতে। শুধু তাই নয়, নারী নির্যাতন করার পরেও অনেকে পার পেয়ে যাচ্ছে আইনের ফাঁকফোকর দিয়ে। অনেক সময় ধর্ষণের মামলা রাজনৈতিক মামলা হিসেবে ছাড় পায়। দিনাজপুরের মেয়ে ইয়াসমিন হত্যার বিচার যেভাবে হয়েছিল, তেমনি যদি দুই-একটি শাস্তি আরো কাউকে দেওয়া যেত, তাহলে কোনো নারীকে আর পেছনের তাকাতে হতো না। ধর্ষিত হতে হতো না কোনো স্কুলপড়ুয়া শিশুকে। আদালতে বিচারের আশায় ঘুরতে হতো না কোনো নির্যাতিত কিংবা ধর্ষিত নারীকে। প্রশাসনের কাছে জোর দাবি, আইনের সঠিক ব্যবহার করুন এবং সব নারী নির্যাতনে বিপক্ষে দাঁড়ান।

এ কে এম কায়সারুল আলম, কালীগঞ্জ, লালমনিরহাট।


মন্তব্য