kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ৮ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৭ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


পশুর হাটে টাকা শনাক্তকরণ মেশিন

৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



সামনে পবিত্র ঈদুল আজহা। দেশের সর্বত্র চলছে পশু বেচাকেনা।

গ্রাম কিংবা শহরের হাটগুলোতে ক্রেতা-বিক্রেতাদের ভিড় জমতে শুরু করেছে। দেশের বিভিন্ন এলাকা থেকে গরু ব্যবসায়ীরা ব্যবসার উদ্দেশ্যে হাটে আসছে। প্রতিনিয়ত লাখ লাখ টাকা আদান-প্রদান হচ্ছে বাজারগুলোতে। এ সুযোগে অসাধু জাল টাকা প্রতারকচক্র ব্যাপক তৎপর। লেনদেনের প্রাক্কালে বা টাকা ভাঁজ করার সময় বান্ডিলের ফাঁকে ফাঁকে তারা জাল টাকা ঢুকিয়ে দেয়। যেকোনো মুহূর্তে যে কেউ পড়তে পারে এ চক্রের খপ্পরে। তাই এ ব্যাপারে দ্রুত প্রতিটি হাটে সিএমপি ও পুলিশের উদ্যোগে জাল টাকা শনাক্তকরণ মেশিন বসানো প্রয়োজন। এ ছাড়া রাষ্ট্রায়ত্ত ও বেসরকারি বিভিন্ন ব্যাংকে বড় গরুর বাজারগুলোর পাশে অস্থায়ী বুথ খোলা প্রয়োজন। এতে করে জাল টাকা বাছাই করা সহজ হবে। মেশিনগুলো অপারেট করতে পুলিশ ও বাংলাদেশ ব্যাংকের সহায়তা থাকা আবশ্যক। বাজারগুলোতে জাল টাকার বিস্তার ঠেকাতে জাল নোট শনাক্তকরণের মেশিন স্থাপন করার উদ্যোগ গ্রহণে অনুরোধ জানাচ্ছি।

রাজীবুল হাসান, শ্রীপুর, গাজীপুর।


মন্তব্য