kalerkantho

বুধবার । ৭ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৬ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


গরু মোটাতাজাকরণে ক্ষতি

৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



গরু মোটাতাজাকরণে ক্ষতি

কয়েক দিন পর দেশে পালিত হবে মুসলমানদের বড় ধর্মীয় উৎসব কোরবানির ঈদ। আর এই ঈদ সামনে রেখে এরই মধ্যে মানুষের মধ্যে গরু কেনাবেচা শুরু হয়েছে।

পাশাপাশি দেশের এক শ্রেণির অর্থলোলুপ মানুষ কৃত্রিম উপায়ে গরু মোটাতাজা করে চলেছে। এসব মানুষ ইনজেকশন ও পামবড়ি ব্যবহার করে গরু মোটাতাজা করে থাকে। গরুকে যখন ইনজেকশন কিংবা পামবড়ি খাওয়ানো হয় তখন ধীরে ধীরে গরুর পাকস্থলী, ফুসফুস, লিভারসহ পেটের বিভিন্ন অংশ অকেজো হয়ে যায়। গরুর শরীরে পানি জমে যায়। আবার এই কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা গরুর মাংস যখন মানুষ খায় তখন মানুষেরও পাকস্থলী, ফুসফুস, লিভারসহ পেটের অন্যান্য অংশ নষ্ট হওয়ার আশঙ্কা থাকে। ফলে মানুষের মৃত্যুর ঝুঁকিও বেড়ে যায়। তাই কুচক্রী মহল যাতে কৃত্রিম উপায়ে মোটাতাজা করা গরু বিক্রি করতে না পারে সে জন্য সরকারি সহযোগিতা দরকার। সরকার যদি প্রতিটি গরুর হাটে মেডিক্যাল টিম পাঠাতে পারে, তাহলে কুচক্রী মহলকে প্রতিহত করা সম্ভব হবে। তা ছাড়া আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকেও সজাগ হতে হবে। আশা করি, সুস্থভাবে বেঁচে থাকার স্বার্থে মানুষ কৃত্রিম উপায়ে গরু মোটাতাজা করা থেকে দূরে থাকবে।

মো. মানিক উল্লাহ

মাজগ্রাম, এনায়েতপুর, সিরাজগঞ্জ।


মন্তব্য