kalerkantho

বুধবার । ১৮ জানুয়ারি ২০১৭ । ৫ মাঘ ১৪২৩। ১৯ রবিউস সানি ১৪৩৮।


বিসিএসে দীর্ঘসূত্রতার অবসান চাই

৩ এপ্রিল, ২০১৬ ০০:০০



বিসিএসে দীর্ঘসূত্রতার অবসান চাই

২০১৩ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি ৩৪তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। ২৪ মে প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। লিখিত পরীক্ষা হয় ২০১৪ সালের ২৪ মার্চ আর লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণদের ২০১৫ সালের ১৮ জানুয়ারি থেকে ১ জুন পর্যন্ত মৌখিক পরীক্ষা নেওয়া হয়। সর্বশেষ গত বছরের ২৯ আগস্ট দুই হাজার ১৫৯ জনকে চূড়ান্তভাবে নিয়োগের সুপারিশ করে পিএসসি। বিজ্ঞপ্তি প্রকাশের পর তিন বছর এবং চূড়ান্ত ফল প্রকাশের সাত মাস পার হয়ে গেছে; কিন্তু জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় গেজেট প্রকাশ করেনি বা এখনো নিয়োগ দেয়নি। নিয়োগ পাওয়ার অপেক্ষায় থাকা দুই হাজারেরও বেশি তরুণ মেধাবীর দিকে তাকিয়ে আছে দুই হাজারেরও বেশি পরিবার। জানা যায়, বিভিন্ন সরকারি সংস্থা বা বিভাগ প্রার্থীদের প্রত্যয়ন ও কাগজপত্র যাচাই-বাছাই করছে বলে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের গেজেট প্রকাশ আটকে আছে। এদিকে গত বছরের আগস্টে চূড়ান্ত ফল প্রকাশের পর থেকে অনেকেই বর্তমান চাকরিতে ইস্তফা দিয়ে বেকার হয়ে আছেন। এর মধ্যে ৩৫তম বিসিএসের মৌখিক পরীক্ষাও শুরু হয়ে গেছে। ৩৪তম বিসিএসে সুপারিশপ্রাপ্ত অনেকেই ৩৫তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষায় উত্তীর্ণ হয়েও মৌখিক পরীক্ষায় অংশগ্রহণ করেননি। আবার অনেকে করবেন কি না বুঝতে পারছেন না শুধু গেজেট ও নিয়োগের অপেক্ষায়। আমরা ৩৪তম বিসিএসে সুপারিশপ্রাপ্তরা এই দীর্ঘসূত্রতার অবসান চাই। কামনা করছি জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয়ের মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়ের আশু হস্তক্ষেপ।

সাদিক হোসেন

সূর্য সেন হল, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়।


মন্তব্য