kalerkantho


কর্তৃপক্ষের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি

৩১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



নবীনগর থেকে গাবতলী দেশের অন্যতম ব্যস্ত মহাসড়ক। ২০ থেকে ২২টি জেলার মানুষ এ সড়ক দিয়ে ঢাকায় প্রবেশ করে।

পরিবহন সুবিধার কারণে নবীনগর, সাভার, মানিকগঞ্জ ইত্যাদি এলাকার অনেক পেশাজীবী নিজেদের বাড়ি থেকেই প্রতিদিন রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে অফিস করে।

জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের অনেক শিক্ষার্থী ঢাকা-মানিকগঞ্জসহ আশপাশের জেলা থেকে এসে ক্লাস করে। এত গুরুত্বপূর্ণ মহাসড়কটির এক পাশ কয়েক দিন ধরে অচল করে রাখা হয়েছে। জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় থেকে নবীনগর পর্যন্ত রাস্তায় পিচ ঢালাইয়ের কাজ চলায় এক পাশের রাস্তা সম্পূর্ণ বন্ধ করে রাখা হয়েছে। একটি লেন দিয়ে দুই দিকে যানবাহন যাতায়াত করার কারণে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়েছে। গরম ও ধুলাবালির কারণে অনেক সুস্থ মানুষও অসুস্থ হয়ে পড়ছে। অ্যাম্বুল্যান্সও এই যানজট থেকে মুক্তি পাচ্ছে না। শিক্ষার্থীরা সময়মতো তাদের ক্লাস করতে পারছে না। পেশাজীবীরা সময়মতো অফিসে পৌঁছতে পারছে না।

এমন অচল অবস্থা আর কত দিন চলবে? অথচ কর্তৃপক্ষ একটু সচেতন হলেই এই বেহাল থেকে জনগণকে মুক্তি দিতে পারে। সড়কের এক পাশ সম্পূর্ণ বন্ধ না রেখে দুই লেনের এক লেনে কাজ করে অন্য লেনটি গাড়ি চলার জন্য খোলা রাখলে এমন পরিস্থিতির সৃষ্টি হতো না।

সফিউল আলম প্রধান, সাভার, ঢাকা।


মন্তব্য