kalerkantho

চালে ভেজাল

২১ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বাঙালির প্রধান খাদ্য ভাত। কিন্তু দুঃখজনক হলেও সত্য, এখন ধান উত্পাদনের বিভিন্ন প্রক্রিয়া থেকে শুরু করে রাইস মিলে চাল প্রক্রিয়াজাতকরণ পর্যন্ত বিভিন্ন কীটনাশক ও ভেজাল মেশানো হচ্ছে।

এটা মানবদেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর। ধান থেকে চাল উত্পাদন একটি দীর্ঘ প্রক্রিয়া। বর্তমানে চাতালগুলো ক্রেতাদের কাছে চাল অধিক আকর্ষণীয় করতে কয়েকবার সিদ্ধ করে এবং বিভিন্নভাবে চাল ছাঁটাই করে। ফলে চালে থাকা ভিটামিন-বি নষ্ট হয়ে যায়। চালের রং আকর্ষণীয় করতে রং মেশানোর ধারণা অনেক পুরনো। এখন এর সঙ্গে যুক্ত হয়েছে নানা ধরনের রাসায়নিক দ্রব্য মেশানো। চাল সাদা করতে সোডিয়াম হাইড্রোক্সাইড দেওয়া হচ্ছে। আবার চালের মধ্যে পুরনো নষ্ট ময়দা ব্যবহার করে সাদা করা হচ্ছে। চালের মধ্যে অ্যারারুট। চালের ওজন বাড়াতে গুঁড়া পাথর, কাঁকর, ইটের গুঁড়া এসব দেওয়া হয়। ভেজাল চাল খেলে ক্ষুধা কমে যাওয়া থেকে শুরু করে বদহজম, ডায়রিয়ার মতো রোগ দেখা দিতে পারে। ভেজালের প্রভাবে ধীরে ধীরে ফুসফুস, কিডনি, লিভার অকেজো হয়ে যেতে পারে। বিক্রেতারাও চালকে যতটা সম্ভব ঝকঝকে তকতকে করার কৃত্রিম চেষ্টা করে, যা কোনোমতেই আমাদের জন্য ভালো ফল বয়ে আনে না। চাল কেনার সময় অবশ্যই পণ্যের সৌন্দর্যের দিকে না তাকিয়ে অধিক পুষ্টিমানসম্পন্ন চাল বাছাই করতে হবে। আশা করি, ক্রেতারা এ ব্যাপারে অধিক মনোযোগী হবেন।

মো. রহমত উল্লাহ

পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।


মন্তব্য