বুড়িগঙ্গা নদী খনন প্রসঙ্গে-331156 | চিঠিপত্র | কালের কণ্ঠ | kalerkantho

kalerkantho

বৃহস্পতিবার । ২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৬। ১৪ আশ্বিন ১৪২৩ । ২৬ জিলহজ ১৪৩৭


মেইল-ইমেইল

বুড়িগঙ্গা নদী খনন প্রসঙ্গে

২ মার্চ, ২০১৬ ০০:০০



বুড়িগঙ্গা নদী খনন প্রসঙ্গে

রাজধানীর তীরবর্তী বুড়িগঙ্গা নদী আজ মরে গেছে। এ নদীর ইতিহাস ও ঐতিহ্য আজ অবহেলিত। নোংরা, দুর্গন্ধ ও কালো পানির কারণে বুড়িগঙ্গা নদীর কাছে যাওয়া যায় না। এই শুষ্ক মৌসুমে এ নদীর পানি একেবারে শুকিয়ে গেছে। নাব্যতা কমে যাওয়ায় বুড়িগঙ্গার পানি এখন বিষাক্ত। নদীতে ঠিকমতো নৌ চলাচল করতে পারছে না। বুড়িগঙ্গা নদীকে অবিলম্বে খনন করা প্রয়োজন। দিন দিন এ নদীতে যে হারে বর্জ্য ও আবর্জনা ফেলা হচ্ছে তাতে আর বেশি দিন বুড়িগঙ্গা নদীর চিহ্ন রাখা সম্ভব হবে না। ইতিমধ্যে বুড়িগঙ্গা নদীর এপার-ওপার ছোট হয়ে এসেছে। কলকারখানা ও কাঁচাবাজারের কারণে দূষণের মাত্রা প্রতিদিন বাড়ছে। এক সময় নগরীর পানির অন্যতম উৎস বুড়িগঙ্গা এখন মৃত্যুপথযাত্রী। দূষণের কারণ ট্যানারি শিল্প, কলকারখানার বর্জ্য। অক্সিজেনের পরিমাণ কম থাকার কারণে বুড়িগঙ্গা নদীতে এখন কোনো জলজ প্রাণী ও মাছ নেই। অবিলম্বে বুড়িগঙ্গা নদীকে খনন ও দূষণমুক্ত করতে সরকারের কাছে অনুরোধ জানাই।

মাহবুব উদ্দিন চৌধুরী, ফরিদাবাদ, গেণ্ডারিয়া, ঢাকা

মন্তব্য