kalerkantho


বোনের বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়ে রোহান ছাই

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২২ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



বোনের বিয়ের কেনাকাটা করতে গিয়ে রোহান ছাই

ছোট বোনের বিয়ের আয়োজনে পরিবারের অন্য সদস্যদের সঙ্গে ব্যস্ত হয়ে পড়েছিল রোহান। গত বুধবার রাতে দুই মোটরসাইকেলে করে পাঁচ বন্ধু মিলে চকবাজারে গিয়েছিল বোনের বিয়ের কেনাকাটা করতে। কিন্তু চকবাজারের আগুনে জীবনপ্রদীপই নিভে গেল। সে নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ দ্বিতীয় সেমিস্টারে পড়ত।

তার সঙ্গে থাকা উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুলের ‘এ’ লেভেলের শিক্ষার্থী আরাফাতও লাশ হয়ে গেল। আরাফাত কাজী আলাউদ্দিন রোড সংলগ্ন আগা মসজিদ এলাকার বাসিন্দা। অন্য তিনজনের একজন সামান্য আহত হলেও তারা বেঁচে ফিরতে পেরেছে। দুঃখজনক হলে সত্যি গতকাল বৃহস্পতিবার ঢাকা মেডিক্যালের মর্গ থেকে রোহান ও আরাফাতের মরদেহ নিতে এসে শনাক্ত করতে পারছিল না তাদের স্বজনরা। তবে তারা নিশ্চিত হয়েছে রোহান আর আরাফাত বেঁচে নেই।

রোহানের চাচাতো ভাই মমিন খান বলেন, ‘রোহানের মরদেহ মর্গে আছে বলে নিশ্চিত হয়েছি। কিন্তু কেউ রোহানের মরদেহ শনাক্ত করতে পারছি না।’ এ সময় রোহানের বাবা মো. হাসান খান  মর্গে উপস্থিত থাকলেও কথা বলার মতো অবস্থায় ছিলেন না।

মর্গের আগা মাসিহ লেনের বাসিন্দা মোহাম্মদ ওয়াজেদ জানান, রোহান আর আরাফাতের সঙ্গে ছিল তার ভাগ্নে মাইনুল ইসলাম লাবিব, রমিজ ও সোহাগ। তাদের মধ্যে লাবিব, রমিজ আর সোহাগ ছিল একটি মোটরসাইকেলে আর রোহান ও আরাফাত ছিল অন্যটিতে। তিনি জানান, লাবিবের মাথার সামান্য অংশ পুড়লেও সে বেঁচে গেছে। আর আরাফাতের মোটরসাইকেলটিতে আগুন ধরে গেলে আরাফাত ও রোহান দুজনই মারা যায়।

 



মন্তব্য