kalerkantho


ডাকসু নির্বাচনের তফসিল আজ

‘ফ্যাক্টর’ হয়ে দাঁড়াচ্ছে কোটা আন্দোলনকারীরা

রফিকুল ইসলাম   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ ০০:০০



‘ফ্যাক্টর’ হয়ে দাঁড়াচ্ছে কোটা আন্দোলনকারীরা

সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলনের নেতাকর্মীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে। কোটা আন্দোলনে নেতৃত্ব দেওয়া ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদ’ ডাকসু নির্বাচনে অংশ নেবে। তারা স্বতন্ত্র প্যানেলে বা জোটবদ্ধ হয়ে নির্বাচন করতে চায়। এর মধ্যে বিভিন্ন সংগঠনের নেতারা পরিষদের নেতাদের সঙ্গে যোগাযোগ করেছেন। কোনো কোনো সংগঠন পরিষদকে কাছে টানার চেষ্টা করছে। তবে এখন পর্যন্ত কোনো কিছু চূড়ান্ত হয়নি।

প্রায় তিন দশক পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন ডাকসু নির্বাচনের ঘোষণা দিয়েছে। সব কিছু ঠিকঠাক থাকলে আগামী ১১ মার্চ ডাকসু ও হল সংসদ নির্বাচনের ভোট হবে। আজ সোমবার নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে বলে জানিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাকর্মীরা বলছে, সাধারণ শিক্ষার্থীদের ‘সমর্থন’ থাকায় তারা স্বতন্ত্র প্যানেল ঘোষণার প্রস্তুতি নিচ্ছে। এরই মধ্যে তারা সদস্য সংগ্রহের কার্যক্রম শুরু করেছে। সাধারণ শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে ব্যাপক সাড়াও পাচ্ছে বলে দাবি তাদের।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিস সূত্রে জানা গেছে, এক ডজনের বেশি ছাত্রসংগঠন ক্যাম্পাসে ক্রিয়াশীল রয়েছে। এর মধ্যে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের ভ্রাতৃপ্রতিম সংগঠন ছাত্রলীগ, বিএনপির সহযোগী সংগঠন ছাত্রদল ও বাম ধারার ছাত্র ইউনিয়ন, ছাত্র ফেডারেশন, সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট, বাংলাদেশ ছাত্রমৈত্রী ও বিপ্লবী ছাত্রমৈত্রী অন্যতম।

সংগঠনগুলোর নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, কমবেশি সব ছাত্রসংগঠনই জোটবদ্ধ প্যানেল ঘোষণার পক্ষেই কাজ করছে। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার পর এই প্রক্রিয়া গতি পাবে।

সরকারি চাকরিতে ৫৫ শতাংশ কোটা সংস্কার চেয়ে ২০১৮ সালের শুরুর দিকে সাধারণ শিক্ষার্থীদের একটি প্ল্যাটফর্ম গড়ে ওঠে। ‘বাংলাদেশ সাধারণ ছাত্র অধিকার সংরক্ষণ পরিষদের’ এ আন্দোলনের পরিপ্রেক্ষিতে সরকারি প্রথম ও দ্বিতীয় শ্রেণির চাকরিতে কোটা তুলে দেয় সরকার।

কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে কথা বলে জানা যায়, প্রগতিশীল ছাত্রসংগঠনগুলো তাদের সঙ্গে জোটবদ্ধ হয়ে কর্মসূচি ঘোষণার বিষয়ে আলোচনা করেছে। হলের বাইরে ভোটকেন্দ্র স্থাপন ও সহাবস্থান ইস্যুতে প্রগতিশীল ছাত্রজোটের সঙ্গে জোটবদ্ধ আন্দোলনের বিষয়ে একমত হয়েছেন তারা। কোটা আন্দোলনকারীরা প্রগতিশীল ছাত্রজোটের সঙ্গে এক প্যানেলে ডাকসু নির্বাচনও করতে পারে বলে আশা করছেন বাম ছাত্রজোটের নেতারা।

বাম ছাত্রসংগঠনগুলোও বলছে, কোটা সংস্কার আন্দোলনের সাধারণ শিক্ষার্থীদের এই প্ল্যাটফর্মকে সঙ্গে নিয়ে প্যানেল ঘোষণা করতে চায় তারা। সাধারণ শিক্ষার্থীদের একটি বড় অংশের সম্পৃক্ততার কারণেই তারা এমন চিন্তাভাবনা করছে। তবে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের সঙ্গে ছাত্রদলের এখন পর্যন্ত সরাসরি কোনো আলোচনা হয়নি। ছাত্রদলের পক্ষ থেকে কোটা সংস্কার আন্দোলনের নেতাদের কাছে প্রস্তাব এসেছে বলে একটি সূত্র জানিয়েছে।

অন্যদিকে ছাত্রলীগের সঙ্গে কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীদের দূরত্ব রয়েছে। আন্দোলনের সময় আন্দোলনকারীরা ছাত্রলীগের হামলার শিকার হয়েছে। সম্প্রতি হলের বাইরে ভোটকেন্দ্র স্থাপন ও সহাবস্থানের দাবিতে উপাচার্যকে স্মারকলিপি দিতে গেলে ছাত্রলীগের মারধরের শিকার হন কোটা আন্দোলনকারী পরিষদের আহ্বায়ক হাসান আল মামুন।

সূত্র জানিয়েছে, পরিষদের যুগ্ম আহ্বায়ক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের শিক্ষার্থী নুরুল হক নূরের সঙ্গে বৈঠক করেছেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় নির্বাহী সংসদের একজন শীর্ষ নেতা। সার্জেন্ট জহুরুল হক হলের একটি কক্ষে গত বুধবার তাঁদের মধ্যে বৈঠক হয়েছে বলে ছাত্রলীগের একাধিক সূত্র নিশ্চিত করেছে। নুরুল হক নূরও কালের কণ্ঠকে এই বৈঠকের বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এ বৈঠক নিয়ে ক্ষুব্ধ মতামত জানিয়েছে ছাত্রলীগের অনেক নেতাকর্মী। তারা বলছে, যারা কোটা সংস্কার আন্দোলনের মাধ্যমে সরকারকে বিপদে ফেলতে চেয়েছিল, তাদের সঙ্গে আলোচনা বা জোটবদ্ধ হওয়া উচিত হবে না।

নুরুল হক নূর কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘জোটে থাকা বা প্যানেল নিয়ে ছাত্রলীগ নেতার সঙ্গে কোনো আলোচনা হয়নি। ডাকসু নির্বাচনে আমাদের ভাবনা বা অন্যান্য বিষয় নিয়ে আলোচনা হয়েছে।’ তিনি আরো বলেন, ‘আমরা নিজেরাই পৃথক প্যানেল ঘোষণা করার বিষয়ে কাজ করছি। তবে যেকোনো ছাত্রসংগঠনের সঙ্গে জোট বাঁধতেও পারি।’

ছাত্র ফেডারেশনের ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি উম্মে হাবিবা বেনজির কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘প্রগতিশীল ছাত্রজোটের সবাই মিলে প্যানেল ঘোষণার বিষয়ে আলোচনা হয়েছে। এখনো চলছে। আমরা চাচ্ছি কোটা সংস্কার আন্দোলনকারীরা আমাদের সঙ্গে থাকুক। সেই বিষয়েও আলোচনা চলছে।’

আজ তফসিল ঘোষণা : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্রসংসদ (ডাকসু) ও হল সংসদ নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা করা হবে আজ সোমবার। সকাল সাড়ে ১০টায় নবাব নওয়াব আলী চৌধুরী সিনেট ভবনে আনুষ্ঠানিকভাবে তফসিল ঘোষণা করবেন ডাকসু নির্বাচনের চিফ রিটার্নিং অফিসার ড. এস এম মাহফুজুর রহমান।

বিশ্ববিদ্যালয়ের জনসংযোগ দপ্তর থেকে পাঠানো এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, তফসিল ঘোষণার সময় অন্য রিটার্নিং অফিসাররাও উপস্থিত থাকবেন। একই দিন হল কর্তৃপক্ষ হল সংসদ নির্বাচনের তফসিলও ঘোষণা করবে।



মন্তব্য