kalerkantho


তারেক রহমানই সাক্ষাৎকারে খালেদার আসনে ১৩ জন!

সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে সংশয়ী ফখরুল

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ নভেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



তারেক রহমানই সাক্ষাৎকারে খালেদার আসনে ১৩ জন!

ফাইল ছবি

গতকাল মঙ্গলবার তৃতীয় দিনেও লন্ডন থেকে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে বিএনপির মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নিয়েছেন দলটির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান। প্রথম দুই দিন স্কাইপে যুক্ত হয়ে তারেক রহমান সাক্ষাৎকার নিয়েছেন—এ খবর গণমাধ্যমে আসার পর সোমবার রাতে জানা যায়, গুলশানে চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ের ইন্টারনেট সংযোগ বিচ্ছিন্ন হয়ে গেছে। গতকাল মঙ্গলবার মোবাইল ডাটা দিয়ে হটস্পট প্রযুক্তিতে ইন্টারনেট সংযোগের সহায়তায় ভিডিও কনফারেন্স চলে বলে জানা যায়।

জানা যায়, সকাল থেকে চট্টগ্রাম বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশী ২৭৯ জন সাক্ষাৎকার দেন। চট্টগ্রাম বিভাগের ফেনী-১ ও ফেনী-২ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের একসঙ্গে সাক্ষাৎকারের মধ্য দিয়ে তৃতীয় দিনের কার্যক্রম শুরু হয়। বিকেল সাড়ে ৩টা থেকে শুরু হয় সিলেট ও কুমিল্লা সাংগঠনিক বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার। চট্টগ্রাম বিভাগে আট জেলার ৩৬টি সংসদীয় আসন, কুমিল্লা বিভাগে তিনটি জেলার ২২টি আসন এবং সিলেট বিভাগে চারটি জেলার ১৯টি আসনের জন্য ছয় শতাধিক প্রার্থী এই সাক্ষাৎকারে অংশ নিয়েছেন। মনোনয়ন বোর্ডে মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর, ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ব্যারিস্টার জমিরউদ্দিন সরকার, লে. জে. (অব.) মাহবুবুর রহমান, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, মির্জা আব্বাস, গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, ড. আবদুল মঈন খান, নজরুল ইসলাম খান ও আমীর খসরু মাহমুদ চৌধুরী ছিলেন।

প্রথম দিন রংপুর ও রাজশাহী বিভাগ, দ্বিতীয় দিন বরিশাল ও খুলনা বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার নেওয়া হয়। আজ ময়মনসিংহ ও ঢাকা এবং ফরিদপুর সাংগঠনিক বিভাগের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের সাক্ষাৎকার গ্রহণ করার পর চার দিনের সাক্ষাৎকার পর্ব শেষ হবে।

গতকাল নোয়াখালী-২ আসনের মনোনয়নপ্রত্যাশীদের মধ্যে বাগ্যুদ্ধ হয়েছে। নাম প্রকাশ না করার শর্তে এক নেতা কালের কণ্ঠকে জানান, এই আসনে সাবেক চিফ হুইপ জয়নুল আবদিন ফারুকসহ অন্যরা সাক্ষাৎকার দিতে আসেন। প্রায় ১৩ জনের মতো নেতা এই আসনে মনোনয়ন চান। এত সংখ্যক প্রত্যাশী দেখে জয়নুল আবদিন ফারুক উত্তেজিত হয়ে উপস্থিত মনোনয়নপ্রত্যাশীদের বকাঝকা শুরু করেন। পরিস্থিতি অন্যদিকে যাওয়ার আগেই কার্যালয়ের নিচতলায় থাকা সিনিয়র নেতারা ফারুককে দ্বিতীয় তলায় মনোনয়ন বোর্ডের পাশের কক্ষে নিয়ে বসান।

খালেদার আসনে ১৩ জন : বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার ফেনী-১ আসনে মনোনয়ন পাওয়ার আশায় সাক্ষাৎকার দিয়েছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আউয়াল মিন্টু, ভলান্টিয়ার্স অব আমেরিকান কমিউনিটির (বাংলাদেশ) প্রেসিডেন্ট আবুল হাসেম বুলবুলসহ ১৩ জন। অন্যরা হলেন ছাগলনাইয়া উপজেলা বিএনপির সভাপতি নূর আহমেদ মজুমদার, সাবেক যুবদল নেতা মশিউর রহমান খোকন, চট্টগ্রামের নেতা জালাল আহমেদের পক্ষে তাঁর স্ত্রী (তিনি জেলে রয়েছেন), অ্যাডভোকেট আমিনুল হক, ভিপি স্বপন, আনোয়ারুন নবী বাবলা, মাহতাব উদ্দিন মিনার, ব্যারিস্টার আনোয়ার হোসেন, নুর নবী ভূইয়া, মানিক ও রফিকুল আলম মজনু। খালেদা জিয়ার প্রার্থী না হওয়ার ক্ষেত্রে অন্য কেউ মনোনয়ন পাবেন।

ক্ষুব্ধ ফখরুল : গতকালের সাক্ষাৎকার শেষে গুলশান কার্যালয়ের নিচতলায় বিএনপি মহাসচিব ফখরুল সাংবাদিকদের বলেন, ‘নির্বাচন কমিশন নিরপেক্ষ নির্বাচন করতে চায় কি না সে ব্যাপারে আমাদের সন্দেহ দেখা দিয়েছে। তফসিল ঘোষণার পরও পুলিশ একইভাবে বিরোধী দলের নেতাকর্মীদের গ্রেপ্তার করছে এবং হয়রানি করছে। জামিনের জন্য যাঁরা যাচ্ছেন এবং যাঁরা জামিন পেয়েছেন তাঁদের জামিনকে বিলম্বিত করা হচ্ছে।’ তিনি অভিযোগ তুলে বলেন, ‘আমরা বিশ্বস্ত মাধ্যমে খবর পাচ্ছি, পুলিশকে দিয়ে আবারও নির্বাচনে কারচুপি করার নীলনকশা তৈরি করা হচ্ছে।’ তিনি এক পুলিশ কর্মকর্তাকে অবিলম্বে পুলিশ সদর দপ্তর থেকে বদলি করে অথবা ক্লোজ করে দেওয়ার দাবি জানান। তিনি আরো বলেন, অবৈধ অস্ত্র উদ্ধার হচ্ছে না। বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রার্থী তালিকা কবে চূড়ান্ত হবে প্রশ্ন করা হলে বিএনপি মহাসচিব বলেন, শিগগিরই চূড়ান্ত হবে।

সাক্ষাৎকার শেষে বিএনপির প্রচার সম্পাদক শহীদ উদ্দীন চৌধুরী এ্যানি কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘আজ বিকল্প ব্যবস্থায় আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের সঙ্গে যুক্ত ছিলেন।’ ব্যবহৃত অ্যাপের নাম তিনি প্রকাশ করতে অস্বীকৃতি জানান।



মন্তব্য