kalerkantho


তারেককে ‘প্রতীকী ফাঁসি’ ছাত্রলীগের

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১১ অক্টোবর, ২০১৮ ০০:০০



তারেককে ‘প্রতীকী ফাঁসি’ ছাত্রলীগের

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার মূল পরিকল্পনাকারী যাবজ্জীবন সাজাপ্রাপ্ত বিএনপির ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে ‘প্রতীকী ফাঁসি’ দিয়েছে ছাত্রলীগ। গতকাল বুধবার দুপুরে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিনের সামনে এই ফাঁসি দেয় তারা।

এ সময় ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সংসদের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন, সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস, সাধারণ সম্পাদক সাদ্দাম হোসাইনসহ কেন্দ্রীয় ও বিশ্ববিদ্যালয় সংসদের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিল।

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা মামলার রায় উপলক্ষে সকাল থেকেই ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সব কটি প্রবেশমুখ ও গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে (শাহবাগ, নীলক্ষেত, হাইকোর্ট মোড়, কার্জন হল, শহীদ মিনার, বকশীবাজার মোড়, পলাশী মোড়ে) সতর্ক অবস্থানে ছিল ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা। যেকোনো ধরনের নাশকতা ও সন্ত্রাসবিরোধী কার্যক্রম প্রতিহত করতে ‘সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়’ শীর্ষক অবস্থান কর্মসূচি

পালন করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ। বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বোপার্জিত স্বাধীনতা চত্বরে অবস্থান নেয় তারা। পরে দুপুর ১২টার দিকে রায় ঘোষণার পর সেখানে সংক্ষিপ্ত সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। একপর্যায়ে দুপুর ২টার দিকে মধুর ক্যান্টিনের সামনে তারেক রহমানের কুশপুত্তলিকা বানিয়ে ‘জনতার মঞ্চে তারেকের ফাঁসি’ নামে প্রতীকী ফাঁসি দেওয়া হয়। তারেক রহমানের কুশপুত্তলিকাটি পরে রাজু ভাস্কর্যের সামনে রাখা হয়। 

এই বিষয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের সভাপতি সঞ্জিত চন্দ্র দাস কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘২১ আগস্ট বাংলাদেশের সার্বভৌমত্বের ওপর একটা আঘাত ছিল। দীর্ঘদিন পর এই ঘটনার রায় হয়েছে। আমরা রায়ে পুরোপুরি সন্তুষ্ট নই। হামলার মূল কুশীলব তারেক রহমানের সর্বোচ্চ শাস্তি আশা করেছিলাম। এই রায়ের মাধ্যমে একটা অন্ধকার যুগের অবসান হবে বলে আশা করি।’

 



মন্তব্য