kalerkantho


নারী হ্যান্ডবল টিমকে নিয়ে ফেরার পথে

সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন কোচ কায়সার

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৮ সেপ্টেম্বর, ২০১৮ ০০:০০



সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারালেন কোচ কায়সার

বান্দরবানের লামার সরই ইউনিয়নের কোয়ান্টাম কসমো স্কুলটি ক্রীড়াক্ষেত্রে ‘দেশসেরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান’ মনোনীত হয় ২০১৭ ও ২০১৮—পর পর দুই বছর। এই সাফল্যের নেপথ্য নিয়ামক ছিলেন কোচ কায়সার জাহিদ আহমেদ। বৃহস্পতিবার লামা সদর উপজেলায় অনুষ্ঠিত এক টুর্নামেন্ট শেষে নারী হ্যান্ডবল টিমকে নিয়ে ফিরছিলেন তিনি। কিন্তু পথে মর্মান্তিক এক সড়ক দুর্ঘটনায় প্রাণ হারান বাংলাদেশ জাতীয় হ্যান্ডবল দলের সহকারী কোচ কায়সার জাহিদ আহমেদ (৪০)।

টুর্নামেন্ট শেষে কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের নারী হ্যান্ডবল টিমকে নিয়ে ফেরার পথে গজালিয়া ডিসি রোডে এ দুর্ঘটনাটি ঘটে। রাস্তার উল্টোপাশ দিয়ে আসা একটি গাড়িকে সাইড দিতে গিয়ে পাহাড়ি বাঁকে নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে ১০০ ফুট গভীর খাদে পড়ে যায় তাঁদের জিপটি। আহতদের উদ্ধার করে লামা সদর উপজেলা হাসপাতাল ও পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নেওয়া হয়। তবে চট্টগ্রামে নেওয়ার পথে মারা যান কোচ জাহিদ আহমেদ। ওই দিন রাতেই চট্টগ্রাম থেকে কায়সারের লাশ নিয়ে আসা হয় ঢাকার বনশ্রীতে তাঁর মা-বাবার বাসায়। সেখানে গতকাল শুক্রবার বাদ জুমা বনশ্রী জামে মসজিদে জানাজা শেষে গ্রামের বাড়ি ঢাকার বেরাইদের পারিবারিক কবরস্থানে তাঁর লাশ দাফন করা হয়।

কোচ কায়সার জাহিদ আহমেদ ছিলেন বাংলাদেশের একজন কৃতী খো খো ও হ্যান্ডবল খেলোয়াড়। খো খো খেলার প্রথম বাংলাদেশ জাতীয় দলের ক্যাপ্টেনও ছিলেন তিনি। ক্যাপ্টেন ও খেলোয়াড় হিসেবে খো খো ও হ্যান্ডবলের বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক টুর্নামেন্টে বাংলাদেশকে প্রতিনিধিত্ব করেন কায়সার জাহিদ। পেশাজীবনে তিনি ছিলেন কোয়ান্টাম কসমো স্কুল অ্যান্ড কলেজের ডেপুটি স্পোর্টস লিডার এবং খো খো ও হ্যান্ডবলের হেড কোচ।

কায়সারের যোগ্য নেতৃত্বে কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের খো খো ও হ্যান্ডবল টিম জাতীয় ও আন্তর্জাতিক অঙ্গনে একটি পরিচিত নাম। দায়িত্ব গ্রহণের পর ২০০৯ সাল থেকে তাঁর হাত ধরেই একের পর এক উঠে এসেছেন কোয়ান্টাম কসমো স্কুলের প্রতিভাবান সব হ্যান্ডবল ও খো খো খেলোয়াড়। যাঁদের অনেকে বর্তমানে জাতীয় পর্যায়েও খেলছেন সুনামের সঙ্গে।



মন্তব্য