kalerkantho


গুহা থেকে উদ্ধার

থাই নাগরিকত্ব পেল ‘রাষ্ট্রহীন’ তিন কিশোর ও কোচ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১০ আগস্ট, ২০১৮ ০০:০০



থাই নাগরিকত্ব পেল ‘রাষ্ট্রহীন’ তিন কিশোর ও কোচ

ছবি: ইন্টারনেট

থাইল্যান্ডের নাগরিকত্ব পেল গুহা থেকে উদ্ধার হওয়া কিশোর ফুটবল দলের ‘রাষ্ট্রহীন’ তিন সদস্য ও তাদের কোচ। ‘সব ধরনের যোগ্যতা থাকায়’ গত বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে তাদের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেওয়া হয়।

গত ২৩ জুন থাইল্যান্ডের উত্তরাঞ্চলীয় চিয়াং রাই প্রদেশের থাম লুয়াং নাং নন গুহায় আটকে পড়ে দেশটির ‘ওয়াইল্ড বোর’ খুদে ফুটবল দলের ১২ সদস্য এবং তাদের কোচ। হঠাৎ ভারি বর্ষণে গুহার ভেতরে পানির উচ্চতা বেড়ে যাওয়ায় এবং প্রবেশপথ বন্ধ হয়ে যাওয়ায় ভেতরে আটকে পড়ে তারা। তাদের সন্ধান মেলে আটকে পড়ার ৯ দিন পর। এরপর তিন দিন ধরে চলে তাদের উদ্ধার অভিযান। অংশ নেয় বিভিন্ন দেশের ৯০ জন ডুবুরি। কিন্তু ওই অভিযান এতটাই চ্যালেঞ্জিং ছিল যে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যম সেটির নামকরণ করে ‘মিশন ইমপসিবল’।

উদ্ধার অভিযান চলাকালে সামনে আসে যে ওই ১৩ জনের মধ্যে কোচসহ চারজনের থাইল্যান্ডের নাগরিকত্ব নেই। তারা থাইল্যান্ডের ‘রাষ্ট্রহীন’ চার লাখ ৮০ হাজার  মানুষের মধ্যকার চারজন। এ অবস্থায় উদ্ধার অভিযান শেষ হওয়ার পর থেকেই তাদের নাগরিকত্ব দেওয়ার পক্ষে জোরালা দাবি ওঠে। সেই দাবির পরিপ্রেক্ষিতে গত বুধবার আনুষ্ঠানিকভাবে চারজনের হাতে জাতীয় পরিচয়পত্র তুলে দেন চিয়াং রাই প্রদেশের মায়ে সাই জেলার মুখ্য প্রশাসনিক কর্মকর্তা সোমসাক কানাকাম। বার্তা সংস্থা এএফপিকে তিনি বলেন, ‘থাইল্যান্ডের নাগরিকত্ব পাওয়ার সব যোগ্যতাই তাদের আছে।’

নাগরিকত্ব পাওয়া তিন কিশোর ফুটবলার এবং তাদের কোচ ইকাপল চানতাওং—সবার জন্মই থাইল্যান্ডে। কিন্তু এত দিন তাদের থাইল্যান্ডের নাগরিকত্ব ছিল না। থাইল্যান্ডের ‘রাষ্ট্রহীন’ চার লাখ ৮০ হাজার মানুষের বেশির ভাগই স্থায়ী আবাসহীন পাহাড়ি ও ক্ষুদ্র নৃগোষ্ঠীর সদস্য। এদের আদিনিবাস থাইল্যান্ড, মিয়ানমার, লাওস ও চীনের সীমান্তবর্তী অঞ্চলে। গত বুধবার যে তিন কিশোর নাগরিকত্ব পেয়েছে তাদের একজন আদুল সোম-ওন। তার পরিবার থাইল্যান্ডে এসেছে মিয়ানমারের স্বায়ত্তশাসিত ওয়া প্রদেশ থেকে।

উল্লেখ্য, উদ্ধার হওয়া শিশু-কিশোরদের ওপর যেন কোনো ধরনের মানসিক চাপ তৈরি না হয়, সে জন্য গণমাধ্যমকে তাদের কাছ থেকে দূরে থাকতে থাই কর্তৃপক্ষের নির্দেশনা রয়েছে। কারণ এরই মধ্যে থাই কিশোরদের উদ্ধার অভিযান রুপালি পর্দায় তুলে আনার জন্য মাঠে নেমেছে হলিউডের একাধিক প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান। সূত্র : এএফপি, বিবিসি।



মন্তব্য