kalerkantho


ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলায় উদ্বেগ সম্পাদক পরিষদের

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



ড. জাফর ইকবালের ওপর হামলায় উদ্বেগ সম্পাদক পরিষদের

সিলেটে শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ও বিশিষ্ট লেখক ড. মুহম্মদ জাফর ইকবালের ওপর হামলার ঘটনায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেছে সম্পাদক পরিষদ। একই সঙ্গে এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে দেশে যে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটছে, তা কঠোরভাবে নিয়ন্ত্রণের জন্য সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর গভীর তৎপরতা আশা করেছে সংগঠনটি।

গতকাল সোমবার এক বিবৃতিতে সম্পাদক পরিষদ এই উদ্বেগ প্রকাশ করে। সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক মাহফুজ আনাম স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে বলা হয়, ‘গত ৩ মার্চ শনিবার বিকেলে নিজ ক্যাম্পাসে আক্রান্ত হয়েছেন ড. মুহম্মদ জাফর ইকবাল। হত্যার উদ্দেশ্যে উপর্যুপরি ছুরিকাঘাত করা হয়েছে তাঁকে। সৌভাগ্যক্রমে তিনি বেঁচে গেছেন। জাফর ইকবালের ওপর এই আক্রমণে সম্পাদক পরিষদ গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করছে।’

বিবৃতিতে বলা হয়, ‘জাফর ইকবাল অত্যন্ত জনপ্রিয় শিক্ষক, মেধাবী বিজ্ঞানী ও জনপ্রিয় লেখক। তাঁর বিজ্ঞানবিষয়ক লেখা শিশু-কিশোরদের মন্ত্রমুগ্ধ করে রাখে। সংবাদপত্রে নিয়মিত কলাম লেখেন তিনি। তাঁর কলামগুলোও ব্যাপক জনপ্রিয়। তিনি মুক্তিযুদ্ধের পক্ষে নিরন্তর কাজ করে চলেছেন, যুদ্ধাপরাধীদের বিচারের দাবিতে পথে নেমেছেন। শিক্ষার প্রসারে অত্যন্ত নিবেদিতপ্রাণ মানুষ এবং দেশের উজ্জ্বল নক্ষত্র। এই মেধাবী মানুষটিকে বহুদিন ধরে হত্যার হুমকি দিয়ে আসছে জঙ্গিগোষ্ঠী। কোনো রক্তচক্ষুকে তোয়াক্কা না করে তিনি তাঁর কাজগুলো করে গেছেন। এ রকম মানুষকে হত্যার চেষ্টা করার অর্থ জাতিকে মেধাশূন্য করা। ১৯৭১-এ ঠিক এই কাজটিই করেছিল পাকিস্তানিরা।’

সম্পাদক পরিষদের বিবৃতিতে আরো বলা হয়, ‘জাফর ইকবালের ওপর আক্রমণ শুধু তাঁর ওপরই আক্রমণ নয়, দেশের প্রতিটি মেধাবী মানুষের ওপর আক্রমণ। দেশের প্রতিটি সচেতন নাগরিকের ওপর আক্রমণ। এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানায় সম্পাদক পরিষদ। দেশের সরকার ও আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর গভীর তৎপরতা আশা করছি আমরা। যাতে দেশে যে জঙ্গিবাদের বিস্তার ঘটছে, কঠোরভাবে তারা তা নিয়ন্ত্রণ করে। দেশের প্রতিটি মেধাবী মানুষ, প্রতিটি সাধারণ মানুষ যেন নিরাপদ জীবন যাপন করতে পারে সেই নিশ্চয়তাও আমরা আশা করি।’



মন্তব্য