kalerkantho


শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়

র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় দুই ছাত্র আজীবন বহিষ্কার

১৯ জনকে অন্যান্য শাস্তি

শাবিপ্রবি প্রতিনিধি   

১ মার্চ, ২০১৮ ০০:০০



র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় দুই ছাত্র আজীবন বহিষ্কার

শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে র‌্যাগিংয়ের নামে ছয় শিক্ষার্থীকে অর্ধনগ্ন করে সারা রাত মানসিক ও শারীরিক নির্যাতনের ঘটনায় দুই শিক্ষার্থীকে আজীবন বহিষ্কার এবং ১৯ জনকে বিভিন্ন শাস্তি দিয়েছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তাদের মধ্যে বিশজন সিভিল অ্যান্ড এনভায়রনমেন্টাল ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের (সিইই) এবং অন্যজন পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের শিক্ষার্থী। এ ছাড়া আলাদা দুটি ঘটনায় আরো দুজনকে আজীবন বহিষ্কার করা হয়েছে। বুধবার এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ এ তথ্য নিশ্চিত করেন।

উপাচার্য জানান, র‌্যাগিংয়ের ঘটনায় সিইই বিভাগের শিক্ষার্থী আশিক আহমেদ হিমেল ও হামিদুর রহমান রঙ্গনকে আজীবন, মাহমুদুল হাসান ও শাহরিয়ার জামানকে দুই সেশনের জন্য বহিষ্কার ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা, ইশতিয়াক আহমেদকে এক সেশনের জন্য বহিষ্কার ও ১০ হাজার টাকা জরিমানা, বাবলু মারমা, আদ্রী দাস, আবু রেদওয়ান খান, উমর আলম সরকার ও পলিটিক্যাল স্টাডিজ বিভাগের রনি সরকারকে ছয় হাজার টাকা জরিমানা ও সতর্কীকরণ, সিইই বিভাগের আহমেদ হাসিব, দেবাশীষ বসু, মাহবুবে ইব্রাহীম, মো. শহীদুল আলম, মো. আল আমিন, দীপ্ত তরু, আশিকুল এনাম, রাইসুল বারী সিফাত ও সজিবুর রহমানকে তিন হাজার টাকা জরিমানা ও সতর্কীকরণ, একই বিভাগের নাজমুস সাকিব ফারদিন ও শরিফুল ইসলামকে শুধু সতর্ক করা হয়।

এ ছাড়া ২০১৬ সালে ভর্তি জালিয়াতির ঘটনায় ফুড ইঞ্জিনিয়ারিং অ্যান্ড টি টেকনোলজি বিভাগের মো. আল আমীন ও সহপাঠীকে হত্যাচেষ্টার ঘটনায় কম্পিউটার সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের রাসেল পারভেজকেও আজীবন বহিষ্কার করা হয়।

এদিকে সিন্ডিকেটের এই সিদ্ধান্তের প্রতিবাদে বিশ্ববিদ্যালয়ে পরিবহন অবরোধ করে অবস্থান কর্মসূচি পালন করছে সিইই বিভাগের শিক্ষার্থীরা। তারা গতকাল দুপুর ১২টার দিকে গোলচত্বর এলাকায় অবস্থান কর্মসূচি শুরু করে। ‘বিচারের নামে অবিচার মানি না মানব না’, ‘বিচার চাই, জুলুম নয়’ ইত্যাদি লিখিত প্ল্যাকার্ড বহন করে। সার্বিক বিষয়ে উপাচার্য অধ্যাপক ফরিদ উদ্দিন আহমেদ বলেন, কোনো অন্যায়ের কাছেই বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন মাথা নত করবে না। র‌্যাগিংয়ের বিরুদ্ধে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন সব সময় জিরো টালারেন্সে থাকবে।

উল্লেখ্য, গত ১৫ ফেব্রুয়ারি সিইই বিভাগের ২০১৭-১৮ সেশনের ছয় নবীন শিক্ষার্থীকে অর্ধনগ্ন করে রাতভর শারীরিক ও মানসিক নির্যাতন করে একই বিভাগের ২০১৬-১৭ সেশনের শিক্ষার্থীরা।

 


মন্তব্য