kalerkantho


ক্রসিংয়ে বিকল ট্রাকে ট্রেনের ধাক্কা ট্রেনের সহকারী চালক নিহত

কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি   

২৫ নভেম্বর, ২০১৭ ০০:০০



ক্রসিংয়ে বিকল ট্রাকে ট্রেনের ধাক্কা ট্রেনের সহকারী চালক নিহত

ঢাকা-উত্তরবঙ্গ রেললাইনের গাজীপুরের কালিয়াকৈরের বক্তারপুর এলাকায় গত বৃহস্পতিবার রাতে অরক্ষিত লেভেলক্রসিংয়ে ট্রেন-ট্রাক সংঘর্ষ হয়। ছবি : কালের কণ্ঠ

গাজীপুরের কালিয়াকৈরে লেভেলক্রসিংয়ে বিকল হয়ে পড়া বিদ্যুতের খুঁটিভর্তি একটি ট্রাকের সঙ্গে উত্তরবঙ্গগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনের সংঘর্ষে ট্রেনের সহকারী চালক নিহত হয়েছেন। আহত হয়েছেন ট্রেনের চালক ও কয়েকজন যাত্রী।

গত বৃহস্পতিবার রাতের ওই দুর্ঘটনার পর ঢাকার সঙ্গে উত্তরবঙ্গের ট্রেন চলাচল প্রায় ছয় ঘণ্টা বন্ধ থাকে। এতে ট্রেন যাত্রীদের দুর্ভোগ পোহাতে হয়েছে। ট্রেনটি উদ্ধার করে মৌচাক রেলস্টেশনে নিয়ে গেলে গতকাল শুক্রবার সকাল ৮টার দিকে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হয়।

নিহত নুর আলম শরীফ (৪৫) ফরিদপুরের আলফাডাঙ্গা উপজেলার শশা গ্রামের মমিন শরীফের ছেলে।

জানা যায়, ট্রেনটিতে প্রায় এক হাজার যাত্রী ছিল। আশপাশে বন থাকায় যাত্রীদের মধ্যে ভয় ও আতঙ্ক দেখা দেয়।  

প্রত্যক্ষদর্শী, পুলিশ ও ফায়ার সার্ভিস সূত্রে জানা যায়, কারখানা থেকে বিদ্যুতের খুঁটি ভরে একটি ট্রাক (ঢাকা মেট্রো-ট-১১-৪২৮৬) বৃহস্পতিবার রাত দেড়টার দিকে ঢাকা-রাজশাহী রেলপথের বক্তারপুর এলাকায় অবৈধ লেভেলক্রসিং অতিক্রম করতে গিয়ে রেললাইনের ওপর বিকল হয়ে পড়ে। ট্রাকে থাকা লোকজন ট্রাকটি সচল করে রেললাইন থেকে সরিয়ে নিতে চেষ্টা করে ব্যর্থ হয়। ট্রাকটি বিকল হওয়ার ১৫ থেকে ২০ মিনিটের মধ্যে ঢাকা থেকে ছেড়ে আসা উত্তরবঙ্গগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনটি এসে রেললাইনের ওপর দাঁড়িয়ে থাকা খুঁটিভর্তি ট্রাকের সঙ্গে বিকট শব্দে ধাক্কা লাগে।

এতে ট্রেনের সামনের অংশ ও মালভর্তি ট্রাকটি দুমড়ে-মুচড়ে যায়। তবে সামনের চারটি বগি নিয়ে প্রায় এক কিলোমিটার সামনে খাড়াজোড়া এলাকায় গিয়ে থেমে যায় ট্রেনটি। ট্রেনের পেছনের বাগিগুলো দুর্ঘটনাকবলিত স্থানেই থেকে যায়। ট্রেন আসতে দেখে ট্রাকের চালক ও হেলপার আগেই পালিয়ে যান। ট্রাকের সঙ্গে সংঘষের পর ট্রেনের চালকের পাশে থাকা সহকারী চালক নুর আলম শরীফ আটকে গিয়ে গুরুতর আহত হন। ট্রেনের চালক সেলিম রেজা এবং ট্রেনের প্রথম বগিতে থাকা তিনজন যাত্রী আহত হয়। ট্রেনের ধাক্কা খেয়ে খুঁটিভর্তি ট্রাকটি দুমড়ে-মুচড়ে সড়কের পাশে পড়ে যায়। ট্রাকে থাকা বিদ্যুতের খুঁটিগুলো ভেঙে চুরমার হয়ে রেললাইনের পাশে পড়ে থাকে। পরে আশপাশের বাড়ির লোকজন এগিয়ে আসেন এবং কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসে খবর দেন। খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা এসে ট্রেনের সামনে আটকে থাকা সহকারী চালক নুর আলমকে ভোর ৫টার দিকে উদ্ধার করেন। তাঁকে কালিয়াকৈর উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

লালমনি এক্সপ্রেসের চালক মো. সেলিম রেজা বলেন, ‘রাত ১টা ৪০ মিনিটের দিকে রেললাইনের বক্তারপুর লেভেলক্রসিংয়ে দূর থেকে দেখতে পাই একটি ট্রাক রেললাইনের ওপর আটকে আছে। ট্রেনের গতি ছিল অনেক বেশি। সামনে ট্রাক দেখতে পেয়ে আমার পাশে থাকা ট্রেনের সহকারী চালক  নুর আলম উঠে দেখতে ছিল সামনের ট্রাকটি। ওই সময় ট্রেনটি নিয়ন্ত্রণে আনার চেষ্টা করার আগে সংঘর্ষ হয়। ট্রেনের ইঞ্জিনসহ সামনের কিছু অংশ দুমড়ে-মুচড়ে যায় এবং ট্রেনটি ঝাঁকুনি দিয়ে সামনের দিকে চলতে থাকে। প্রায় এক কিলোমিটার যাওয়ার পর থেমে যায়। ওই সময় দেখি, সহকারী চালক নুর আলম আমার পাশে ট্রেনের সামনে আটকে রয়েছে। সে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বলতে ছিল, ভাই আমাকে বাঁচান আমি আটকে গেছি। এ সময় দেখি অন্য বগিগুলো ট্রেনের সঙ্গে নেই। পরে ফায়ার সার্ভিসকে খবর দেওয়া হয়। এর মধ্যে আটকে গিয়ে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে নুর আলম। প্রায় দুই ঘণ্টা পর ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা এসে ট্রেনের সামনের কিছু অংশ কেটে নুর আলমকে বের করে। ফায়ার সার্ভিসকর্মীরা যদি আরো আগে আসতেন তাহলে হয়তো নুর আলমকে বাঁচানো যেত। ’ 

কালিয়াকৈর ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা মো. কবিরুল আলম বলেন, ‘বক্তারপুর এলাকায়  লেভেলক্রসিংয়ে ট্রেনের সঙ্গে ট্রাকের সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে—এমন খবর পেয়ে রাত ২টার দিকে ঘটনাস্থলে গিয়ে ট্রেনের সামনে আটকে থাকা সহকারী চালক নুর আলমকে ভোর ৫টার দিকে কেটে বের করি। তাঁকে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন। আমাদের কোনো গাফিলতি ছিল না। খবর পাওয়ামাত্রই সেখানে যাওয়া হয়েছে। ’

গাজীপুর রেলওয়ে পুলিশ ফাঁড়ির উপপরিদর্শক রকিবুল হক বলেন, ‘ট্রাক ও ট্রেনের সংঘর্ষে ট্রেনের সহকারী চালক নিহত হয়েছেন। খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে গিয়ে জানতে পারি, লাশ উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। হাসপাতালে যাওয়ার আগেই বিভাগীয় ইঞ্জিনিয়ার আশিক কুমার মণ্ডল লাশ নিয়ে যান। এ ছাড়া ট্রেনটির বিচ্ছিন্ন হয়ে যাওয়া বগিগুলো উদ্ধার করে মৌচাক রেলস্টেশনে রাখা হয়েছে। ’

 


মন্তব্য