kalerkantho


৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ না পেয়ে কুষ্টিয়ায় কলেজছাত্র হত্যা

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুষ্টিয়া   

২০ আগস্ট, ২০১৭ ০০:০০



৩০ লাখ টাকা মুক্তিপণ না পেয়ে কুষ্টিয়ায় কলেজছাত্র হত্যা

কুষ্টিয়া সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর এলাকা থেকে সাগর সাহা (২০) নামের এক কলেজছাত্রকে অপহরণের তিন দিন পর গতকাল শনিবার রাতে তাঁর বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করেছে পুলিশ। এর আগে অপহরণকারীরা তাঁর পরিবারের কাছে ৩০ লাখ টাকা দাবি করে।

গত বুধবার সন্ধ্যায় কলেজছাত্র সাগর সাহা অপহৃত হওয়ার পর তাঁর বাবা প্রদীপ সাহা এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানায় বৃহস্পতিবার একটি মামলা করেন। সাগর কুষ্টিয়ার খাতের আলী ডিগ্রি কলেজের একাদশ শ্রেণির প্রথম বর্ষের ছাত্র ছিলেন।

অপহৃতের পরিবারের অভিযোগ, বুধবার সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে সাগর বাড়ি থেকে বের হন। সাগর সাহার মা অর্চনা সাহা সাংবাদিকদের জানান, বুধবার সন্ধ্যায় বাজার করার জন্য সাগর বাইসাইকেল নিয়ে পাশের গ্রাম হরিনারায়ণপুর বাজারে যান। এরপর আর বাড়ি ফিরে আসেননি। পরে রাতে একটি মোবাইল ফোন থেকে ফোন করে সাগরের বাবা প্রদীপ সাহাকে জানানো হয়, তাঁর ছেলেকে অপহরণ করা হয়েছে। ছেলেকে অক্ষত অবস্থায় ফিরে পেতে চাইলে ৫০ লাখ টাকা মুক্তিপণ দিতে হবে। পরে বৃহস্পতিবার ফোন করে মুক্তিপণের পরিমাণ কমিয়ে ৩০ লাখ টাকা চায় অপহরণকারীরা।

পুলিশ জানায়, গত শুক্রবার পুলিশ সাগরের বাড়ি থেকে কিছু দূরে জিকের ক্যানেলের পাশ থেকে সাগরের বাইসাইকেল ও বাজারের ব্যাগ উদ্ধার করে, এ সময় অজ্ঞাতপরিচয় ব্যক্তির এক জোড়া স্যান্ডেলও উদ্ধার করা হয়।

এরপর গতকাল রাত ৮টার দিকে সদর উপজেলার হরিনারায়ণপুর ইউনিয়নের শিবপুর প্রাথমিক বিদ্যালয়ের পরিত্যক্ত বাথরুম থেকে সাগরের বস্তাবন্দি লাশ উদ্ধার করা হয়। বৃহস্পতিবার ফোন করে অপহরণকারীরা শুক্রবার রাত ১২টার মধ্যে টাকা না দিলে সাগরকে মেরে লাশ গুম করে ফেলা হবে বলেও হুমকি দিয়েছিল বলে তাঁর পরিবার জানায়।

এ ব্যাপারে কুষ্টিয়া ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রতন শেখ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, ‘আমরা সাগরের লাশ উদ্ধার করে কুষ্টিয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। এই মুহূর্তে এর চেয়ে বেশি কিছু জানানো সম্ভব নয়। ’


মন্তব্য