kalerkantho


ছাত্রফ্রন্ট ও ডিপ্লোমা মেডিক্যাল স্টুডেন্টস আন্দোলন

শাহবাগে শিক্ষার্থী ও পুলিশ সংঘর্ষ

ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি   

১৯ মে, ২০১৭ ০০:০০



শাহবাগে শিক্ষার্থী ও পুলিশ সংঘর্ষ

উচ্চশিক্ষাসহ চার দফা দাবিতে ম্যাটস শিক্ষার্থীরা ঢাকা অভিমুখে লংমার্চ কর্মসূচি পালন করে। তাদের শোভাযাত্রাটি শাহবাগে পৌঁছলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বেধে যায়। ছবি : কালের কণ্ঠ

উচ্চশিক্ষা নিশ্চিত ও মেডিক্যাল শিক্ষায় স্বতন্ত্র বোর্ড গঠনসহ চার দফা দাবিতে ডিপ্লোমা মেডিক্যাল শিক্ষার্থীদের আন্দোলন এবং পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল কলেজে ফি বাড়ানোর প্রতিবাদে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের পৃথক কর্মসূচিকে কেন্দ্র করে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ হয়েছে। দফায় দফায় ধাওয়া-পাল্টাধাওয়ায় শাহবাগ রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

প্রথম দিকে পুলিশ জলকামান থেকে গরম পানি নিক্ষেপ করে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে ব্যর্থ হলে টিয়ার গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে। শিক্ষার্থীরাও পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল নিক্ষেপ করে। পরে ছাত্রফ্রন্ট ও ডিপ্লোমা মেডিক্যাল শিক্ষার্থীরা ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় ক্যাম্পাসে অবস্থান নেয়।  

বঙ্গবন্ধু ডিপ্লোমা মেডিক্যাল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশন শিক্ষার্থীরা উচ্চশিক্ষা গ্রহণ নিশ্চিত করা, মেডিক্যাল এডুকেশন বোর্ড বাংলাদেশ নামে স্বতন্ত্র বোর্ড গঠন, কমিউনিটি ক্লিনিকে সরকারিভাবে ১০ গ্রেডে নিয়োগ, বেসরকারি ক্লিনিক-হাসপাতালে পাস করা ডিপ্লোমা চিকিৎসকদের জন্য পদ সৃষ্টি ও ইন্টার্নশিপ ভাতা প্রদানের দাবিতে প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে ‘লংমার্চের’ ঘোষণা দেয়। সকাল ১১টার দিকে তাদের মিছিল প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় অভিমুখে রওনা হলে শাহবাগে পুলিশ বাধা দেয়।

দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয় ও মেডিক্যাল কলেজের ফি বাড়ানোর প্রতিবাদে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশন ঘেরাও কর্মসূচি পালন করতে যায়। শিক্ষার্থী ও সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টকে শাহবাগে পুলিশ বাধা দিলে ধস্তাধস্তির একপর্যায়ে ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্টের সঙ্গে যোগ দেয় ম্যাটস শিক্ষার্থীরা। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ করতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ার গ্যাসের শেল নিক্ষেপ করে।

এ সময় টিএসসি মোড় থেকে শাহবাগ এলাকা রণক্ষেত্রে পরিণত হয়।

ডিপ্লোমা মেডিক্যাল শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, পুলিশের টিয়ার গ্যাসের শেল, রাবার বুলেট ও লাঠিপেটায় শতাধিক শিক্ষার্থী আহত হয়েছে। অনেককে আটকও করেছে। যদিও পরবর্তী সময়ে তাদের ছেড়ে দেওয়া হয়েছে।

পূর্বঘোষণা অনুযায়ী, ডিপ্লোমা মেডিক্যাল শিক্ষার্থীরা সকালে কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারে একত্রিত হয়। সেখানে কিছু সময় অবস্থান করার পর প্রধানমন্ত্রী কার্যালয় অভিমুখে মিছিল শুরু করে। মিছিলটি টিএসসি পার হয়ে শাহবাগের জাতীয় জাদুঘরের সামনে পৌঁছালে পুলিশ বাধা দেয়। সেখানে ধস্তাধস্তির পর ধাওয়া-পাল্টাধাওয়া শুরু হয়। এতে পুলিশ জলকামান থেকে গরম জল নিক্ষেপ করে ছত্রভঙ্গ করে। পরে সমাজতান্ত্রিক ছাত্রফ্রন্ট ইউজিসি ঘেরাও কর্মসূচি পালন করতে গেলেও পুলিশি বাধার মুখে পড়ে। এতে শিক্ষার্থীরা যোগ দিলে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষ বেধে যায়।

ডিপ্লোমা মেডিক্যাল স্টুডেন্টস অ্যাসোসিয়েশনের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি মুরাদ হোসেন লিমন সাংবাদিকদের বলেন, ‘দাবি-দাওয়া নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা করতে চাই। অনেক দিন ধরে দাবি জানিয়ে এলেও কেউ কোনো কথা বলছেন না।   শুধু কথার মাধ্যমে আশ্বাস দিয়েই যাচ্ছেন। আমরা আর আশ্বাস চাই না। প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে কথা বলতে না পারলে এই দাবি নিয়ে রবিবার থেকে শহীদ মিনারে অনশনে বসব। ’

পুলিশের রমনা জোনের ডিসি মারুফ হোসেন সরদার সাংবাদিকদের বলেন, আন্দোলনকারীদের উদ্দেশ্য ছিল মিছিল নিয়ে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের দিকে যাওয়া অথবা শাহবাগ মোড় অবরোধ করে বসে পড়া। শাহবাগ মোড়ে বড় দুটি হাসপাতাল। সেখানে যদি তারা বসে পড়ে তাহলে পথচারীদের পাশাপাশি রোগীরাও সমস্যায় পড়বে। তারা প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ে প্রতিনিধি পাঠাতে পারে, কিন্তু সবাই সেখানে যেতে পারে না। তিনি আরো বলেন, ‘সকাল থেকে তাদের এ বিষয়গুলো শান্তিপূর্ণভাবে বোঝানোর চেষ্টা করছি; কিন্তু তারা আমাদের কথা না শোনায় বাধ্য হয়ে পুলিশ টিয়ার গ্যাসের শেল ছুড়েছে। আন্দোলনকারীদের কয়েকজনকে আটক করা হয়েছে। ’


মন্তব্য