kalerkantho


ব্যালিস্টিক পরীক্ষার প্রতিবেদন দাখিল

সাংবাদিকের মাথার লেড বলটি মেয়রের শটগানের

সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি   

২১ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



সাংবাদিকের মাথার লেড বলটি মেয়রের শটগানের

সিরাজগঞ্জের শাহজাদপুরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের সংঘর্ষের সময় নিহত সাংবাদিক আবদুল হাকিম শিমুলের মাথায় পাওয়া গুলির লেড বলটি (সিসার বল) পৌর মেয়র হালিমুল হক মীরুর শটগানের বলে ব্যালিস্টিক পরীক্ষার প্রতিবেদনে বলা হয়েছে। গত ৬ মার্চ প্রতিবেদনটি পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ঢাকা কার্যালয় থেকে ডাকযোগে শাহজাদপুর আমলি আদালতে পাঠানো হয়।

রবিবার প্রতিবেদনটি হাতে পেয়েছে পুলিশ।

গতকাল সোমবার প্রতিবেদনটি আদালতে পাঠানোর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম। পরে দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলন করে ব্যালিস্টিক প্রতিবেদন নিয়ে বিস্তারিত জানান জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) মিরাজ উদ্দিন আহম্মেদ।

এসপি বলেন, সাংবাদিক শিমুল হত্যাকাণ্ডের দিন মেয়রের শটগান থেকে গুলি ছোড়া হয়েছিল। মেয়রের বাসা থেকে জব্দকৃত কার্তুজের লেড বলের সঙ্গে নিহত সাংবাদিক শিমুলের মাথার ভেতর থেকে পাওয়া লেড বলের সাদৃশ্য রয়েছে। এরপর মেয়রের ছোট ভাই মিন্টুর দেখানো জায়গা থেকে উদ্ধার হওয়া শটগানের মতো দেখতে দেশীয় অস্ত্রটিও আদালতের অনুমতি নিয়ে ব্যালিস্টিক পরীক্ষার জন্য ঢাকায় পাঠানো হয়, যাতে নিশ্চিত হওয়া যায় কোন অস্ত্র থেকে ঘটনার দিন গুলি করা হয়েছিল।

উল্লেখ্য, গত ২ ফেব্রুয়ারি সকালে শাহজাদপুর কলেজ শাখা ছাত্রলীগের সভাপতিকে মারধরের জের ধরে আওয়ামী লীগের দুই পক্ষের মধ্যে সংঘর্ষ হয়। পেশাগত দায়িত্ব পালনের সময় সাংবাদিক শিমুল গুলিবিদ্ধ হন। পরদিন ৩ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় নেওয়ার পথে তাঁর মৃত্যু হয়।

ঘটনার পর মেয়রের বাসা থেকে উদ্ধার করা শটগান এবং শিমুলের মাথায় পাওয়া গুলির লেড বল ব্যালিস্টিক পরীক্ষার জন্য গত ৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকায় সিআইডি কার্যালয়ে পাঠানো হয়।

শিমুল হত্যার ঘটনায় তাঁর স্ত্রী নুরুন্নাহার বেগম মেয়র মীরুসহ ১৮ জনের নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাতপরিচয় আরো ২৫ ব্যক্তিকে আসামি করে থানায় মামলা দায়ের করেন।

পুলিশ সুপার জানান, এ মামলায় এখন পর্যন্ত মেয়র মীরুসহ ১৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়ছে। বাকিদেরও খুব শিগগির গ্রেপ্তার করা হবে। মামলাটি স্পর্শকাতর হওয়ায় পুলিশও খুব তৎপর। আর এই মামলার অভিযোগপত্রও খুব দ্রুত আদালতে জমা দেওয়া হবে।


মন্তব্য