kalerkantho


শিম্পাঞ্জিরও অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া হয়!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৮ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



শিম্পাঞ্জিরও অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া হয়!

মানুষের মৃত্যুতেই কেবল অন্ত্যেষ্টিক্রিয়া হয়—এত দিনের এ ধারণা তাহলে ঠিক নয়! সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বলা হয়েছে, শিম্পাজির মধ্যেও মৃত্যু নিয়ে ‘দুশ্চিন্তা’ আছে। এমনকি নিজ গোত্রীয় কারো মৃত্যু হলে অন্ত্যেষ্টিক্রিয়াও হয় এ প্রাণিকুলে।

এ গবেষণার পরিপ্রেক্ষিতে বিজ্ঞানীরা বলছেন, অন্যান্য প্রাণীর মধ্যেও মৃত্যু নিয়ে ‘আবেগ’ আছে, আছে সামাজিকতাও।

গবেষণা প্রতিবেদনটি ছাপা হয় আন্তর্জাতিক ‘সায়েন্টিফিক রিপোর্টস’ সাময়িকীতে। তাতে বিজ্ঞানীরা একটি ঘটনা এবং তাঁদের পর্যবেক্ষণ তুলে ধরেছেন। তাঁরা বলেন, নোয়েল ও থমাস—দুটি শিম্পাঞ্জি। নোয়েল মা। থমাস তার দত্তক নেওয়া সন্তান। একদিন ফুসফুস সংক্রমণে মৃত্যু হয় থমাসের। কিন্তু মৃত্যুর পর নোয়েলের কাছে থমাস কেবলই নিষ্প্রাণ কোনো অস্তিত্ব নয়। সে এক ধরনের ঘাস দিয়ে থমাসের দাঁত পরিষ্কার করে দেয়।

এ সময় তার মেয়ে পাশে বসে বিষয়টি দেখছিল। গবেষকরা বলেন, থমাসের মৃত্যুর পর অন্যান্য শিম্পাঞ্জি তাকে দেখতে যায় এবং সারিবদ্ধভাবে দাঁড়িয়ে থাকে। এমনকি তাদের চেহারায় ছিল শোকের আবহ।

সূত্র : দ্য ইনডিপেনডেন্ট।


মন্তব্য