kalerkantho


ভারতীয় শহীদদের সম্মাননা

অর্থের বদলে শুধু ক্রেস্ট দিতে দিল্লির অনুরোধ

কূটনৈতিক প্রতিবেদক   

১৬ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



অর্থের বদলে শুধু ক্রেস্ট দিতে দিল্লির অনুরোধ

মহান স্বাধীনতাযুদ্ধের প্রায় ৪৬ বছর পর আত্মত্যাগকারী ভারতীয় বীর যোদ্ধাদের আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মাননা দিতে যাচ্ছে বাংলাদেশ। তবে ভারত তাদের শহীদ পরিবারগুলোকে অর্থ না দিতে বাংলাদেশকে অনুরোধ জানিয়েছে। জানা গেছে, আগামী ৭ থেকে ১০ এপ্রিল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার নয়াদিল্লি সফরে ওই সম্মাননা প্রদান অনুষ্ঠান আয়োজন করা হবে। গত নভেম্বরে বাংলাদেশ এক হাজার ৬৬৮ জন শহীদ ভারতীয় সেনাকে সম্মাননা জানানোর অংশ হিসেবে প্রত্যেককে একটি করে ক্রেস্ট ও পাঁচ লাখ ভারতীয় রুপির সমপরিমাণ অর্থ দেওয়ার পরিকল্পনা নিয়েছিল। এতে ব্যয় ধরা হয়েছিল প্রায় ১০০ কোটি রুপি।

মুক্তিযুদ্ধে বিদেশিদের সম্মাননা প্রদানসংক্রান্ত জাতীয় কমিটির অন্যতম সদস্য ও একাত্তরের ঘাতক-দালাল নির্মূল কমিটির সভাপতি শাহরিয়ার কবির গতকাল বুধবার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলীর সঙ্গে বৈঠকের পর এ বিষয়ে সাংবাদিকদের বলেন, বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে মিত্রবাহিনী হিসেবে যোগ দেওয়া ভারতীয় বাহিনীর মধ্যে যাঁরা শহীদ হয়েছেন তাঁদের স্বজনদের অর্থ দিতে নয়াদিল্লি মানা করেছে। নয়াদিল্লি মনে করছে, ঘটনার ৪৬ বছর পর দেড় হাজারেরও বেশি ভারতীয় শহীদ সেনার উত্তরাধিকারীদের মধ্যে অর্থবণ্টনে সমস্যা দেখা দিতে পারে। এ জন্য নয়াদিল্লি শহীদদের স্বজনদের শুধু ক্রেস্ট দিতে বলেছে।

জানা গেছে, ভারতীয় সশস্ত্র বাহিনীর সহায়তায় বাংলাদেশ ১৯৭১ সালে মিত্রবাহিনীর হয়ে এ দেশে পাকিস্তানি বাহিনীর বিরুদ্ধে যুদ্ধ করে শহীদ হওয়া এক হাজার ৬৬৮ জন শহীদ ভারতীয় সেনার নামসংবলিত তালিকা সংগ্রহ করেছে। বীরের জাতি হিসেবে বাংলাদেশ শহীদ ভারতীয় যোদ্ধাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জানাতে তাঁদের সম্মাননা জানাতে যাচ্ছে। এটি বিশ্বে দৃষ্টান্ত হয়ে থাকবে।

সংশোধনী : কালের কণ্ঠে গতকাল প্রকাশিত ‘প্রধানমন্ত্রী দিল্লি যাবেন ৭ এপ্রিল; সামরিকসহ বিভিন্ন ইস্যুতে সমঝোতার সম্ভাবনা’ শীর্ষক প্রতিবেদনে ভারতের রাষ্ট্রপতি প্রণব মুখোপাধ্যায়ের স্ত্রীর অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় অংশ নিতে ২০১৫ সালে প্রধানমন্ত্রীর নয়াদিল্লি সফরসংক্রান্ত বাক্যে অসাবধানতাবশত ‘স্ত্রীর’ শব্দটি বাদ পড়েছে। অনিচ্ছাকৃত ওই ভুলের জন্য আমরা দুঃখিত। বা. স.।


মন্তব্য