kalerkantho


সবিশেষ

ভিনগ্রহে প্রাণের প্রমাণ এ বছরই!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



পৃথিবীর বাইরে ভিনগ্রহে প্রাণের অস্তিত্ব আছে বা থাকতে পারে, এমন কথা শোনা যাচ্ছে অনেক দিন থেকেই। এবার প্রখ্যাত জ্যোতির্বিজ্ঞানী মিশেল মেয়র জানালেন, আর অপেক্ষা নয়, পৃথিবীর বাইরে ব্রহ্মাণ্ডের অন্য কোথাও যে প্রাণ আছে, তা এক বছরের মধ্যেই প্রমাণিত হবে।

২২ বছর আগে এই জ্যোতির্বিজ্ঞানীই আমাদের সৌরমণ্ডলের বাইরে প্রথম অন্য একটি নক্ষত্রমণ্ডলে কোনো ভিনগ্রহের সন্ধান দিতে পেরেছিলেন। জেনেভা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক মিশেল মেয়রের সেই আবিষ্কারের সহযোগী ছিলেন আরেক জ্যোতির্বিজ্ঞানী অধ্যাপক ডিডিয়ার কোয়েলজ। তাঁরা ‘পেগাসিয়াস’ নক্ষত্রপুঞ্জে হদিস পেয়েছিলেন এমন একটি নক্ষত্রের (৫১ পেগাসি), যাকে পাক মারছে আমাদের বৃহস্পতির মতো চেহারার খুব বড় আরেকটি ভারী ভিনগ্রহ ‘৫১ পেগাসি-বি’। পরে যার নাম দেওয়া হয় ‘বেল্লেরোফোন’। এখন যাকে ডাকা হয় ‘ডিমিডিয়াম’ নামে।

গত ২২ ফেব্রুয়ারি নতুন সাত ‘পৃথিবী’র নক্ষত্রমণ্ডল ‘ট্রাপিস্ট-১’ আবিষ্কারের খবর নাসা ঘোষণা করার পর আনন্দবাজারের পক্ষ থেকে মিশেল মেয়রের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। তিনি টেলিফোনে বলেন, ‘ট্রাপিস্ট-১ নক্ষত্রমণ্ডলের আবিষ্কার আমার মতো অনেক জ্যোতির্বিজ্ঞানীকেই যথেষ্ট উৎসাহিত করেছে। এ আশাটা আরো জোরালো হয়েছে, ভিনগ্রহে প্রাণের হদিস মিলবে খুব তাড়াতাড়ি। হয়তো আর এক বছরের মধ্যেই।

’ সূত্র : আনন্দবাজার।


মন্তব্য