kalerkantho


ক্লাসরুমে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে দুই হাত ভেঙে দিল বখাটে

নিজস্ব প্রতিবেদক, চট্টগ্রাম   

১৫ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



ক্লাসরুমে শিক্ষিকাকে পিটিয়ে দুই হাত ভেঙে দিল বখাটে

হামলাকারী আহসান উল্লাহ টুটুল

চট্টগ্রামের পটিয়ায় এক বখাটে স্কুলের ক্লাসরুমে ঢুকে লোহার শাবল দিয়ে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে এক শিক্ষিকার দুই হাত ভেঙে দিয়েছে বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে। গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে উপজেলার দক্ষিণ ভুষি ইউনিয়নের পূর্ব ডেঙ্গাপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ বখাটে আহসান উল্লাহ টুটুলকে (৩০) গ্রেপ্তার করেছে।

গুরুতর আহত শিক্ষিকা মিসফা সুলতানাকে (২৩) প্রথমে পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে এবং পরে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনার প্রতিবাদে তাত্ক্ষণিকভাবে উপজেলা সদরে মিছিল-সমাবেশ করেছেন শিক্ষকরা। একপর্যায়ে চট্টগ্রাম-কক্সবাজার মহাসড়ক অবরোধ করতে চাইলে প্রশাসনের বখাটেকে উপযুক্ত শাস্তি দেওয়ার আশ্বাসে তাঁরা কর্মসূচি থেকে সরে আসেন।

প্রত্যক্ষদর্শী ও স্থানীয়রা জানায়, শিক্ষিকা মিসফা সুলতানা ক্লাসরুমে পাঠদানের সময় হঠাৎ করেই বখাটে টুটুল সেখানে এসে ‘কথা আছে’ বলে শিক্ষিকাকে বাইরে আসতে বলে। বাইরে আসতে না চাইলে টুটুল ক্লাসরুমে ঢুকে লোহার শাবল দিয়ে শিক্ষিকাকে এলোপাতাড়ি পেটাতে শুরু করে। এ সময় শিক্ষিকা আত্মরক্ষার্থে দৌড়ে স্কুলের মাঠে চলে গেলে সেখানেও তাঁকে এলোপাতাড়ি পেটাতে থাকে টুটুল। একপর্যায়ে স্কুলের অন্য শিক্ষক ও স্থানীয় ইউপির সাবেক সদস্য নাজিম উদ্দিনসহ এলাকার লোকজন এগিয়ে এসে শিক্ষিকাকে উদ্ধার করেন এবং বখাটে যুবককে আটক করে পুলিশের হাতে তুলে দেন। পরে শিক্ষিকাকে হাসপাতালে পাঠানো হয়।

 

পটিয়া স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসা কর্মকর্তা হেনা আরা বেগম জানান, প্রাথমিক চিকিৎসা দেওয়ার পর উন্নত চিকিৎসার জন্য মিসফা সুলতানাকে চট্টগ্রাম মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়েছে। তাঁর দুই হাতই ভেঙে গেছে। এ ছাড়া তাঁর শরীরের আরো কয়েকটি স্থানে জখম হয়েছে।

শিক্ষিকা মিসফা সুলতানার বাবা পটিয়া উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সাবেক কমান্ডার নুর মোহাম্মদ বলেন, ‘বখাটে যুবক টুটুল আমার মেয়েকে শাবল দিয়ে হাত ও পা ভেঙে দিয়েছে। আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি চাই। ’

এদিকে ঘটনার খবর ছড়িয়ে পড়লে পটিয়া শিক্ষক সমিতি বিক্ষোভ মিছিল বের করে। পরে ইউএনও অফিসের সামনে আয়োজিত প্রতিবাদ সভায় বক্তব্য দেন শিক্ষক নেতা স্বপন কান্তি নাথ, মাহমুদুল হক, দিল মোহাম্মদ সানি, হারুনুর রশীদ, নাজমুন নাহার, মো. সেলিম, মনছুর আলম প্রমুখ। শিক্ষক নেতারা শিক্ষিকার ওপর হামলার হোতা টুটুলের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানান। পরে তাঁরা পটিয়া থানার সামনে সড়ক অবরোধ করতে চাইলে প্রশাসনের আশ্বাসের পরিপ্রেক্ষিতে কর্মসূচি প্রত্যাহার করেন।

পটিয়া উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা মোতাহার বিল্লাহ বলেন, ‘ক্লাসে ঢুকে শিক্ষিকার ওপর হামলা খুবই দুঃখজনক। পুলিশ বখাটে যুবককে আটক করেছে। আমি তার দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি জানাচ্ছি। ’

পটিয়া থানার ওসি শেখ নেয়ামত উল্লাহ জানান, ঘটনার খবর পেয়েই পুলিশ অভিযান চালিয়ে বখাটে ওই যুবককে গ্রেপ্তার করেছে।


মন্তব্য