kalerkantho


‘স্পেস কলোনিতে’ দীর্ঘায়ু!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৩ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



‘স্পেস কলোনিতে’ দীর্ঘায়ু!

মাত্র ২০ বছর পরেই নাকি মহাকাশ কলোনিতে বসবাস করবে কয়েক হাজার মানুষ। পৃথিবীর বাসিন্দাদের থেকে তাদের আয়ু তো বটেই, উচ্চতাও বেশি হবে বলে জানিয়েছেন বিজ্ঞানীরা।

দুই দশকের মধ্যেই পৃথিবীর বাসিন্দারা মহাকাশে পাকাপাকি থিতু হতে পারবে বলে দাবি করেছেন ব্রিটিশ প্রতিষ্ঠান বিআইএসের বিশেষ মহাকাশ

প্রকল্পের প্রধান জেরি স্টোন। ১৯৭০ সালে মহাকাশে মানুষের স্থায়ী বসবাসসংক্রান্ত যুক্তরাষ্ট্রের প্রিন্সটন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণার সূত্র ধরে কয়েক বছর যাবৎ অনুসন্ধান চালাচ্ছেন প্রতিষ্ঠানটির একদল বিজ্ঞানী। স্টোন জানান, চাঁদ ও বিভিন্ন গ্রহাণু থেকে সংগ্রহ করা পদার্থ কাজে লাগিয়ে মহাকাশে মানুষের বসবাসের উপযোগী আবাসন গড়ে তোলা যাবে।

স্টোন জানান, বিজ্ঞানীদের প্রাথমিক কাজ হবে সোলার প্যানেলের সাহায্যে পৃথিবীতে বিকল্প শক্তি সৃষ্টি করে পাঠানো। তাঁর দাবি, বায়ুমণ্ডলের মধ্য দিয়ে যাতায়াতকারী সূর্যের রশ্মি থেকে তৈরি শক্তির তুলনায় মহাকাশে সৃষ্ট শক্তি অনেক বেশি কার্যকর হবে। এই শক্তি কাজে লাগিয়ে ভবিষ্যতে মহাকাশে বিভিন্ন শিল্প গড়ে উঠবে বলেও মনে করেন তিনি।

স্টোনের মতে, মহাকাশে পৃথিবীর কক্ষপথে অবস্থিত বিশাল ফাঁকা সিলিন্ডারের ভেতরে মানুষের বসবাসের কলোনি গড়ে তোলা হবে। কক্ষপথে প্রদক্ষিণ করা সিলিন্ডারের ভেতরে তৈরি করা হবে বাসিন্দাদের জন্য প্রয়োজনীয় কৃত্রিম মাধ্যাকর্ষণ শক্তিও।

বিজ্ঞানী জেরি স্টোনের দাবি, পৃথিবীর চেয়ে মহাকাশের বাসিন্দাদের গড় আয়ু বাড়বে।

পাশাপাশি তাদের উচ্চতাও সাধারণ মানুষের তুলনায় বেশি হবে। তাঁর মতে, এর অন্যতম কারণ মহাকাশের দূষণহীনতা। সূত্র : এই সময়।

 


মন্তব্য