kalerkantho


কাবুলে সামরিক হাসপাতালে জঙ্গি হামলা, নিহত ৩৮

আইএসের দায় স্বীকার

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০




কাবুলে সামরিক হাসপাতালে জঙ্গি হামলা, নিহত ৩৮

আফগানিস্তানের রাজধানী কাবুলে গতকাল বুধবার সামরিক বাহিনীর সবচেয়ে বড় হাসপাতালে জঙ্গিরা হামলা চালিয়েছে। এতে ৩৮ জনেরও বেশি লোক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে অন্তত ৭০ জন। কর্মকর্তারা জানান, জঙ্গিরা চিকিত্সকের পোশাক পরে হাসপাতালে ঢুকে এ হামলা চালায়। পরে বিশেষ বাহিনীর কমান্ডো অভিযানে চার হামলাকারীর সবাই নিহত হয়।

ইসলামিক স্টেট (আইএস) জঙ্গিগোষ্ঠী হামলার দায় স্বীকার করেছে। তবে তালেবান দেশটিতে সক্রিয় সবচেয়ে বড় জঙ্গিগোষ্ঠী হলেও তারা এ ঘটনার সঙ্গে কোনো ধরনের সম্পৃক্ত থাকার কথা অস্বীকার করেছে।

আফগানিস্তানের প্রেসিডেন্ট আশরাফ ঘানি বলেছেন, ‘এ হামলা সমস্ত মানবিক মূল্যবোধকে পায়ে মাড়িয়েছে। ’ তিনি বলেন, ‘সব ধর্মেই হাসপাতাল হচ্ছে নিরাপদ এলাকা। এর ওপর হামলা মানে সমগ্র আফগানিস্তানের ওপরই হামলা। ’

৪০০ শয্যার সরদার দাউদ খান হাসপাতালের প্রশাসনিক কর্মকর্তারা জানান, তিনজন বন্দুকধারী ল্যাবরেটরির সাদা পোশাকে হাসপাতালে ঢুকে স্বয়ংক্রিয় অস্ত্রে বৃষ্টির মতো গুলি ছুড়তে থাকে।

এর আগে হাসপাতালের পেছন দিকে গেটে এক আত্মঘাতী বোমার বিস্ফোরণ ঘটায়। এর পরপরই হাসপাতালের ভেতরে হুলুস্থুল বেধে যায়।

হামলা থেকে বেঁচে যাওয়া হাসপাতালের এক কর্মী বলেন, ‘আমি দেখলাম, সাদা অ্যাপ্রোন পরা একজন কালাশনিকভ হাতে গার্ড, রোগী, ডাক্তার সবার ওপর গুলি করতে শুরু করল। ’ হামলার পরপরই হাসপাতালের এক স্টাফ ফেসবুকে দেওয়া পোস্টে লিখেছেন, ‘হামলাকারীরা হাসপাতালের ভেতরে রয়েছে। আমাদের জন্য সবাই দোয়া করবেন। ’

কয়েকজন কর্মী ও প্রত্যক্ষদর্শী জানান, হাসপাতাল ভবনের ভেতরে জঙ্গিদের সঙ্গে নিরাপত্তা বাহিনীর কয়েক ঘণ্টা ধরে বন্দুকযুদ্ধ চলে। ভেতর থেকে বড় ধরনের বিস্ফোরণের শব্দও শোনা গেছে। বন্দুকধারীরা হাসপাতাল ভবনের ওপর তলায় অবস্থান নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হওয়া স্পেশাল ফোর্সের সঙ্গে লড়াই করে।

ওই সময় হাসপাতালের চারদিকের ব্যস্ত সড়কগুলো বন্ধ করে দেয় নিরাপত্তা বাহিনী। স্পেশাল ফোর্সের সেনারা হেলিকপ্টার থেকে হাসপাতালের মূল ভবনের ছাদে নামে। হামলাকারীদের হাতে একে-৪৭ রাইফেল, গ্রেনেড, বোমা ছিল।

হামলা শুরুর ছয় ঘণ্টারও বেশি পর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র সেদিক সেদিকি টুইটারে জানান, বিশেষ বাহিনী তাদের অভিযান শেষ করেছে। হামলাকারীদের সবাই নিহত হয়েছে।

প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র দৌলত ওয়াজিরি বলেন, ‘নিহতদের বেশির ভাগই রোগী, ডাক্তার ও নার্স। ’

আইএসের মুখপত্র আমাক নিউজ এজেন্সি দুটি ছবি প্রকাশ করেছে। তাতে জঙ্গিদের অ্যাকশন ও বেশ কিছু মৃতদেহ দেখা যায়।

আফগানিস্তানের উপনেতা আবদুল্লাহ আবদুল্লাহ এ ঘটনার নিন্দা জানানোর পাশাপাশি এর প্রতিশোধ নেওয়ারও অঙ্গীকার করেছেন।

উল্লেখ্য, কাবুলে এক সপ্তাহ আগে দুটি নিরাপত্তা কম্পাউন্ডে তালেবানের আত্মঘাতী হামলায় ১৬ জন নিহত হয়। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।


মন্তব্য