kalerkantho

তাহের হত্যা মামলা

৫ জনের ফাঁসির রায়

আদালত প্রতিবেদক   

৯ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



৫ জনের ফাঁসির রায়

রাজধানীর রামপুরায় সাবেক কর কমিশনার আবু তাহেরকে হত্যার দায়ে পাঁচ আসামিকে মৃত্যুদণ্ড দিয়েছেন আদালত। আসামিরা বাসায় ডাকাতি করতে ঢুকে এ হত্যাকাণ্ড ঘটিয়েছিল।

একই মামলায় দুই নারীসহ আরো চার আসামিকে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড ও জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল বুধবার ঢাকার দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনাল-৪-এর বিচারক আবদুর রহমান সরকার এ রায় দেন।

ফাঁসির দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন নিহত আবু তাহেরের গাড়িচালক মো. নাসির খান, নাছিরের খালাত ভাই রাসেল তালুকদার, মো. রুস্তম, আমির হোসেন ও সোহেল রানা। দণ্ডপ্রাপ্ত অন্য আসামির মধ্যে নূর আলম ও মাসুদ মিয়াকে ১০ বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও ১০ হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক বছর কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া তাহেরের বাসার গৃহকর্মী মোসাম্মত সেলিনা ও মোসাম্মত নূরজাহানকে দুই বছর করে সশ্রম কারাদণ্ড ও এক হাজার টাকা করে জরিমানা, অনাদায়ে আরো এক মাসের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

আসামিদের মধ্যে কেবল রুস্তম পলাতক রয়েছে। রায় ঘোষণার আগেই কারাগার থেকে আট আসামিকে ট্রাইব্যুনালে হাজির করা হয়।

মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০১৫ সালের ২ মার্চ রাতে রামপুরায় কর কমিশনার আবু তাহেরের বাসার গ্রিল কেটে ভেতরে ঢুকে তাঁকে অস্ত্রের মুখে

জিম্মি করে সোনার গয়না ও টাকা-পয়সা লুট করে আসামিরা। যাওয়ার সময় তারা তাহেরের হাতের রগ কেটে দেয়।

পরদিন ঢাকার ইউনাইটেড হাসপাতালে নেওয়া হলে কর্তব্যরত চিকিৎসক তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।

এ ঘটনায় তাহেরের ছেলে এ টি এম আরিফুল হক রামপুরা থানায় ডাকাতি ও হত্যার অভিযোগে একটি মামলা করেন। তদন্ত শেষে গত বছর ৬ জানুয়ারি পুলিশ ৯ জনকে আসামি করে অভিযোগপত্র দেয়। পরে মামলাটি চতুর্থ মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে দ্রুত বিচার ট্রাইব্যুনালে আসে। গত ২৩ ফেব্রুয়ারি মামলার যুক্তিতর্ক শেষ হয়। বিচার চলাকালে ২৩ জনের সাক্ষ্যগ্রহণ করা হয়।

মামলার চার্জশিটে বলা হয়, তাহেরের গাড়িচালক নাছিরই এ হত্যাকাণ্ডের মূল পরিকল্পনাকারী। আসামিদের মধ্যে সাতজন আদালতে স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দিয়েছে।


মন্তব্য