kalerkantho


কুমিল্লায় বাসে পেট্রলবোমা

খালেদা জিয়াসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

নিজস্ব প্রতিবেদক, কুমিল্লা   

৭ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



খালেদা জিয়াসহ ৭৮ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র

কুমিল্লায় পেট্রলবোমা হামলায় বাসের আট যাত্রী হত্যার ঘটনায় দায়ের করা দুটি মামলায় পুলিশ চার্জশিট দাখিল করেছে। এতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াসহ ৭৮ জনকে আসামি করা হয়েছে। গতকাল সোমবার কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে চার্জশিট দাখিল করেন চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই মো. ইব্রাহিম।

আদালত সূত্র জানায়, ২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি বিএনপির ডাকা অবরোধ চলাকালে কুমিল্লার জগমোহনপুরে পেট্রলবোমা হামলার ঘটনা ঘটে। এতে কক্সবাজার থেকে ঢাকাগামী আইকন পরিবহনের আট যাত্রী নিহত হন।   এসংক্রান্ত দুটি মামলায় পুলিশ গতকাল দুপুরে কুমিল্লার সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ৫ নম্বর আমলি আদালতে চার্জশিট দাখিল করেছে। চার্জশিটে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার, ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়াসহ ৭৮ জনকে চার্জশিটভুক্ত আসামি করা হয়েছে। মামলার প্রধান আসামি করা হয়েছে জামায়াতের সাবেক সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাহেরকে। চার্জশিটে খালেদা জিয়াকে ৫১ নম্বর আসামি করা হয়েছে। চার্জশিট দুটিতে আসামি অভিন্ন। আলোচিত এ দুটি মামলার এজাহারে জামায়াত নেতা আবদুল্লাহ মো. তাহেরসহ ৫৬ জনের নাম ছিল।

এতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়াকে হুকুমের আসামি করা হয়। এজাহারভুক্ত ১২ আসামিসহ ২৫ জনকে পুলিশ গ্রেপ্তার করলে আদালতে তিন আসামি স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি দেয়। অভিযুক্তদের মধ্যে ইতিমধ্যে চৌদ্দগ্রাম উপজেলা ছাত্রশিবিরের সভাপতি সাহাব উদ্দিন পাটোয়ারী ও বোমাবাজ মো. সোহেল পৃথক ঘটনায় নিহত হয়েছে।

তদন্তকারী কর্মকর্তা চৌদ্দগ্রাম থানার এসআই মো. ইব্রাহীম জানান, এ মামলায় পুলিশসহ ৬৬ জনের সাক্ষ্য নেওয়া হয়েছে। আদালতের নির্দেশে সাতজনের মরদেহ উত্তোলন করে ময়নাতদন্ত সম্পন্ন করা হয়েছে। এতে কিছুটা সময় লাগে। তার পরও দ্রুত সময়ে চার্জশিট দাখিল সম্ভব হয়েছে।

চার্জশিটভুক্ত আসামিরা হলেন বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া, ভাইস চেয়ারম্যান শওকত মাহমুদ, স্থায়ী কমিটির সদস্য এম কে আনোয়ার ও ব্যারিস্টার রফিকুল ইসলাম মিয়া, যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ ও সালাউদ্দিন আহাম্মেদ, উপদেষ্টা মো. মনিরুল হক চৌধুরী, জামায়াতের সাবেক সংসদ সদস্য ডা. সৈয়দ আবদুল্লাহ মো. তাহের, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা জামায়াতের সাবেক আমির মো. শোহাব উদ্দিন, সাবেক সেক্রেটারি শাহ মো. মিজানুর রহমান, চৌদ্দগ্রাম উপজেলা বিএনপির আহ্বায়ক মো. কামরুল হুদা, মো. জামাল, মো. মনির, অ্যাডভোকেট মো. শাহজাহান, তোফায়েল হোসেন জুয়েল, মো. রেজাউল করিম রাজিম, ফজলুল হক মোল্লা, মোশারফ হোসেন ওপেল, জয়নাল আবেদীন পাটোয়ারী, মো. মাসুম বিল্লাহ, আ. হালিম, মাও. নূর আহাম্মেদ, মো. মিজানুর রহমান ওরফে বোটকা মিজান, মাওলানা আ. হাসেম, মো. বাচ্চু মিয়া, মোতালেব মেম্বার, মোতাহের হোসেন মোল্লা, আবু রশিদ, গাজী মো. পারভেজ মিয়া, মো. হাসান, বোরহান উদ্দিন, আবু ইউসুফ, মো. ইকবাল, আব্দুল আলী, ইকবাল হোসেন জাকির, মাসুদ করিম, এমদাদুল্লা, সালাউদ্দিন, মিজানুর রহমান আবির, মো. রুবেল, আ. আউয়াল মেরিল, নজরুল, শাহিন রেজা শাহিন, সাদ্দাম হো. ঝুমন, আমজাদ হোসেন রুমন, খন্দকার দেলোয়ার হোসেন, জনি পাটোয়ারী, মোবারক হোসেন, আব্দুল জলিল, জাকির হোসেন, ছোটন, আ. মতিন লোহানী, নোমান, মো. রাশেদ, মো. জাফর, মো. সোহরাব. মো. সোহেল, মো. আলমগীর হোসেন, মো. অলি উল্লাহ লিটন, মো. বলকিছ মিয়া, মো. আক্তার হোসেন ওরফে সাদ্দাম, মো. শাহামুদুল হাসান, মো. বিল্লাল, মো. আমীর হোসেন, মো. তুহিন, মো. জামাল উদ্দিন মামুন, মো. শামীম, মো. রুবেল, মো. মোজাম্মেল হক মাসুম বিল্লাহ, মো. আব্দুল হালিম, মো. মোতালেব, আল আমিন রাসেল, মাওলানা আবুল হাশেম, মো. অভি, আবুল হাসনাত মো. জোবায়ের, মেজবাহ উদ্দিন নয়ন, ওমর ফারুক পাটোয়ারী ও দেলোয়ার হোসেন।

২০১৫ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি দিবাগত রাত সাড়ে ৩টায় ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কে এ পেট্রলবোমা হামলায় ঢাকাগামী আইকন পরিবহনের অন্তত ২০ যাত্রী দগ্ধ হয়।   এ ঘটনায় নিহতরা হলো যশোর সেন্ট্রাল রোডের বাসিন্দা নুরুজ্জামান পপলু, তাঁর মেয়ে মাইশা তাসমিন, কক্সবাজারের চকরিয়ার আবু তাহের ও আবু ইউসুফ, নরসিংদীর পলাশের আসমা আক্তার ও তাঁর ছেলে মাহমুদুল হাসান শান্ত এবং শরীয়তপুরের ঘোষেরহাটের ওয়াসিম।

বিএনপির প্রতিবাদ :  কুমিল্লায় নাশকতার মামলায় চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার নামে চার্জশিট দেওয়ার ঘটনা রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে অভিহিত করেছে বিএনপি। গতকাল সোমবার রাতে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক জরুরি সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ এ কথা জানান। এদিকে দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এক বিবৃতিতে এ বিষয়ে তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছেন।

সংবাদ সম্মেলনে রিজভী বলেন, সম্পূর্ণ রাজনৈতিক উদ্দেশ্যপ্রণোদিতভাবে জাতীয়তাবাদী শক্তিকে বিপর্যস্ত করতে মিথ্যা মামলার অভিযোগপত্র দেওয়া হয়েছে। এ অভিযোগপত্র প্রত্যাহার করতে হবে।

গতকাল রাতে এক বিবৃতিতে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে চার্জশিট দাখিল গণতান্ত্রিক শক্তির বিরুদ্ধে সরকারের একটি সার্বিক আক্রমণ। এটি গণতন্ত্রের শেষ চিহ্নটুকু মুছে দিতে করা হয়েছে। বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব ও ঢাকা মহানগর বিএনপির সদস্য সচিব হাবিব উন নবী খান সোহেলকে জেলগেট থেকে গ্রেপ্তারের ঘটনায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।


মন্তব্য