kalerkantho


‘নিবন্ধন বাতিল’ ভয়ে ‘প্রহসনের নির্বাচন ফাঁদে’ পা দেবে না বিএনপি

নিজস্ব প্রতিবেদক   

৪ মার্চ, ২০১৭ ০০:০০



‘নিবন্ধন বাতিল’ ভয়ে ‘প্রহসনের নির্বাচন ফাঁদে’ পা দেবে না বিএনপি

নির্বাচন কমিশনের (ইসি) ‘নিবন্ধন বাতিল’-এর ভয়ে ‘প্রহসনের নির্বাচনের ফাঁদে’ বিএনপি পা দেবে না বলে জানিয়েছেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট খন্দকার মাহবুব হোসেন। তিনি বলেন, ‘আমরা স্পষ্ট ভাষায় বলতে চাই, প্রহসনমূলক নির্বাচনের ফাঁদে বিএনপি পা দেবে না।

যেকোনো মূল্যে তা প্রতিহত করা হবে। ’

গতকাল শুক্রবার সকালে এক আলোচনা সভায় খন্দকার মাহবুব হোসেন এসব কথা বলেন। রাজধানীর পুরানা পল্টনে বাংলাদেশ ফটো জার্নালিস্ট অ্যাসোসিয়েশন মিলনায়তনে জাতীয়তাবাদী সংগ্রামী দলের উদ্যোগে গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ওই আলোচনা সভা হয়।

নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ সরকার গঠনের দাবি তুলে খন্দকার মাহবুব হোসেন আরো বলেন, ‘আমাদের সুস্পষ্ট বক্তব্য, নির্বাচনকালীন সরকার আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার নেতৃত্বে থাকলে কোনো অবস্থাতেই সুষ্ঠু নির্বাচন হতে পারে না। নির্বাচনকালীন একটি নিরপেক্ষ সরকার থাকবে, একটি সর্বদলীয় সরকার হবে; যে নির্বাচনে মানুষ স্বাধীনভাবে ভোট দিতে পারবে। ’

খন্দকার মাহবুব হোসেন বলেন, নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করতে হবে। শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের সভানেত্রী হয়ে কোনো অবস্থাতে সেই সরকারে তাঁর কোনো স্থান থাকবে না। যদি থাকতে হয়, অবশ্য তাঁর ক্ষমতা সীমিত করে, তাঁরই প্রস্তাব ছিল একসময়ে সর্বদলীয় সরকার করতে হবে; যেখানে মানুষ নিরপেক্ষভাবে ভোট দিতে পারবে।

খন্দকার মাহবুব হোসেন  বলেন, কুমিল্লা সিটি করপোরেশনের নির্বাচন সুষ্ঠু হলেই নির্বাচন কমিশন জাতীয় নির্বাচনে নিরপেক্ষ থাকবে, তা ভাবার অবকাশ নেই।

কারণ সরকার পরিবর্তনের নির্বাচনের সময়ে কোন সরকার থাকবে, তার ওপর নির্ভর করবে নির্বাচন কমিশনের কার্যক্রম। এ সময় তিনি গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির সরকারের সিদ্ধান্তের কঠোর সমালোচনা করেন।

শেখ হাসিনার অধীনে নির্বাচনে যাবে না বিএনপি : এদিকে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার অধীনে জাতীয় নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি। সুষ্ঠু ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচন চাইলে একটি নির্দলীয় সহায়ক সরকারের অধীনে নির্বাচন দিতে হবে। গতকাল জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দলের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের নিয়ে জিয়ার মাজারে শ্রদ্ধা নিবেদনের পর তিনি এসব কথা বলেন।

পরিবহন ধর্মঘট প্রসঙ্গে এ সময় গয়েশ্বর চন্দ্র রায় বলেন, সরকারের অভ্যন্তরে যদি সরকারের বিরোধী থাকেন, শাজাহান খান যদি সরকারবিরোধী হয়ে থাকেন, সেখানে সরকারই তাঁর ব্যবস্থা গ্রহণ করবে। এখানে বিএনপির কোনো বিষয় নয়। শাজাহান খান পরিবহনজগতের একজন ‘ডন’। তাঁর সরকারি বাসভবনে বসে এই পরিবহন ধর্মঘটের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বিএনপির প্রার্থীদের প্রচারণায় ক্ষমতাসীনদের বাধা : আগামী ৬ মার্চে অনুষ্ঠেয় উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে দলীয় প্রার্থীদের প্রচারণায় ক্ষমতাসীনদের বাধা প্রদান ও হামলার অভিযোগ করেছে বিএনপি। দলের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবীর রিজভী আহমেদ বলেন, এখনো সেই আগের মতোই বিএনপির প্রার্থীদের মনোনয়নপত্র জমাদানে বাধাদান, প্রচারণায় হামলা, মাইক ভেঙে ফেলা, লিফলেট-পোস্টার ছিঁড়ে ফেলা, নেতাকর্মীদের বাড়িঘর ভাঙচুর, ভয়ভীতি প্রদর্শন, নির্বাচনী এজেন্ট যেন না হয় সে জন্য বিএনপির প্রার্থী-সমর্থকদের প্রাণনাশের হুমকি দেওয়া হচ্ছে।

গতকাল বিকেলে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত এ সংবাদ সম্মেলনে রিজভী এসব কথা বলেন। তিনি আরো বলেন, সামান্য কয়েকটি উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে এরই মধ্যে দুজনকে প্রাণ দিতে হয়েছে। এসব ঘটনার পরও বর্তমান সিইসি (কে এম নূরুল হুদা) কাজী রকিবউদ্দীনের বাঁশিতে ফুঁ দিয়ে যাচ্ছেন।


মন্তব্য