kalerkantho

হাতে হাতে নতুন বই

নওশাদ জামিল   

২৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



হাতে হাতে নতুন বই

আয়োজনটা মাসব্যাপী। অথচ কেমন দেখতে দেখতেই চলে এলো শেষ প্রান্তে। অমর একুশে গ্রন্থমেলার আজ শনিবার ২৫তম দিন। বাকি মাত্র তিন দিন। ২৮ ফেব্রুয়ারি মঙ্গলবার পর্দা নামবে এই আয়োজনের। শেষের দিকে এসে মেলায় এখন বিদায়ের সুর। তাই তো শেষবেলায় বেচাকেনা, মোড়ক উন্মোচন আর নতুন বই নিয়ে সরগরম প্রাণের মেলা। গতকাল ছিল মেলার শেষ শুক্রবার, সঙ্গে ছিল শিশুপ্রহর। ফলে সকাল থেকেই জমজমাট হয়ে ওঠে পুরো মেলা প্রাঙ্গণ। শিশুদের কলকাকলি আর পাঠক-দর্শনার্থীর প্রাণোচ্ছ্বাসে বইমেলা পরিণত হয় আনন্দ মেলায়।

সাপ্তাহিক ছুটির দিন হওয়ায় গতকাল সকাল থেকে শেষ পর্যন্ত বইমেলায় ছিল বইপ্রেমী মানুষের উপচে পড়া ভিড়।

বইপ্রেমীরা দীর্ঘ সারিতে দাঁড়িয়ে মেলায় প্রবেশ করেছে। মেলার সময় যত এগোছিল টিএসসি আর দোয়েল চত্বর থেকে মেলায় প্রবেশের সারি ততই দীর্ঘ হচ্ছিল। সন্ধ্যার দিকে ভিড় এতটাই বেড়ে যায় যে কোনো কোনো স্টলে যেতে আগতদের জবর ধাক্কাধাক্কি সামলাতে হয়েছে।

শিশুপ্রহরেও ছিল শিশুদের উল্লেখযোগ্য অংশগ্রহণ। তাদের আগমন উপলক্ষে সকাল ১১টায় উন্মুক্ত হয় বইমেলার দ্বার। আগত শিশুদের এক হাত ধরে ছিল মা-বাবা কিংবা অভিভাবকের হাত, অন্য হাতে ধরা নতুন বইয়ের প্যাকেট।

মেলার শুরু থেকে যেসব বইপ্রেমী নতুন বইয়ের ক্যাটালগ সংগ্রহ করেছে, তারা এখন তালিকা ধরে বই কেনায় ব্যস্ত। প্রায় প্রতিটি স্টল-প্যাভিলিয়নে ছিল ক্রেতা-পাঠকের ভিড়। তাদের বেশির ভাগের হাতেই ছিল প্যাকেটবন্দি নতুন বই। ধুন্ধুমার বিক্রিবাট্টা হয়েছে স্টলে স্টলে।

বইমেলায় শীর্ষস্থানীয় প্রকাশনাগুলোর পাশাপাশি মাঝারি ও ছোট প্রকাশনীগুলোর বিক্রিও বেশ ভালো। অন্বেষা প্রকাশনের স্বত্বাধিকারী মোহাম্মদ শাহদাত হোসেন বলেন, ‘মেলার শেষ দিকে এসে বইয়ের বিক্রি বেশ ভালো। ’ তাঁর সঙ্গে সুর মিলিয়ে ইত্যাদি গ্রন্থপ্রকাশের আদিত্য অন্তর বলেন, ‘মেলায় বিদায়ের সুর বাজতে চলেছে। এখন যারা আসছে তারাই মূলত বইয়ের প্রধান ক্রেতা। এসব পাঠকের অপেক্ষায়ই ছিলাম আমরা। তাই এখন প্রতিদিনই বিক্রি ভালো হচ্ছে। ’

পার্ল পাবলিকেশন্সের স্টলে পাঠক-ক্রেতা-ভক্তদের অটোগ্রাফ দেন বিশিষ্ট কথাসাহিত্যিক ও সাংবাদিক মোস্তফা কামাল। কথা প্রসঙ্গে তিনি বলেন, “আমার ইতিহাসভিত্তিক উপন্যাস ‘অগ্নিকন্যা’ পাঠকরা আগ্রহ নিয়ে কিনছেন। যতটা আশা করেছিলাম, তার চেয়ে বেশি সাড়া পাচ্ছি পাঠকদের কাছ থেকে। ” তিনি জানান, গ্রন্থমেলায় এ ছাড়া তাঁর তিনটি বই প্রকাশিত হয়েছে। অন্যপ্রকাশ থেকে এসেছে প্রেমের উপন্যাস ‘রূপবতী’। অনন্যা প্রকাশ করেছে কিশোর গোয়েন্দা উপন্যাস ‘প্রিন্স উইলিয়ামের আংটির খোঁজে’ ও রম্য রচনার বই ‘কিছু হাসি কিছু রম্য’।

গতকাল ২৪তম দিনে ঢাকার বাইরে থেকেও দলবদ্ধভাবে অনেকে এসেছে এবং তারা ব্যাগভর্তি বই কিনে মেলা প্রাঙ্গণ ছেড়েছে। চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জের রূপসা থেকে স্থানীয় ‘ফ্রেন্ডস ক্লাবের’ একদল তরুণ এসেছে ক্লাবটির সভাপতি পারভেজ মোশাররফ তন্ময়ের নেতৃত্বে। কথা প্রসঙ্গে তন্ময় বলেন, ‘প্রতিবারই একুশের মেলা থেকে বই কিনে নিয়ে বিভিন্ন লাইব্রেরিতে সেগুলো সরবরাহ করি। এবারও তাই করব। ’

বইমেলার নির্বাচিত চারটি বইয়ের তথ্য-পরিচিতি তুলে ধরা হলো :

সাম্প্রতিক ফোকলোর ভাবনা : ফোকলোর বিষয়ক বইটির লেখক শামসুজ্জামান খান। খ্যাতিমান এই গবেষক, প্রাবন্ধিক বর্তমানে বাংলা একাডেমির মহাপরিচালকের দায়িত্ব পালন করছেন। বইটিতে ফোকলোর চর্চার ইতিবৃত্ত, আন্তর্জাতিকভাবে ফোকলোর চর্চার সমস্যা ও সম্ভাবনাসহ নানা দিক নিয়ে রয়েছে প্রবন্ধ-নিবন্ধ। বইটি প্রকাশ করেছে অনিন্দ্য প্রকাশ। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। দাম ৩০০ টাকা।

প্যাট্রিকের গরিলা ও অন্যান্য গল্প : কিশোর গল্পগ্রন্থ। লেখক শিশুসাহিত্যিক ও মিডিয়া ব্যক্তিত্ব ফরিদুর রেজা সাগর। বইয়ের গল্পগুলো পাঠ করে শিশু-কিশোর পাঠক আনন্দময় নিজ ভুবনের সন্ধান পাবে। গল্পগুলোতে জীবনের রঙিন স্বপ্ন—একই সঙ্গে সেই স্বপ্ন পূরণের ইশারাও দেওয়া আছে। বইটি প্রকাশ করেছে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। দাম ১৭০ টাকা।

ইতিহাসের আয়নায় বঙ্গবন্ধু : জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জীবন ও কর্ম নিয়ে অসামান্য এক গ্রন্থ। সম্পাদনা করেছেন সাংবাদিক ও লেখক ফরিদা ইয়াসমিন। বইটিতে নানা দৃষ্টিকোণ থেকে বঙ্গবন্ধুকে অবলোকন করা হয়েছে, তুলে ধরা হয়েছে তাঁর সৃষ্টি ও কর্মের বিশ্লেষণ। বঙ্গবন্ধুর ঘনিষ্ঠজনের লেখা ও বিশ্লেষণ বইটিতে মূর্ত হয়েছে। এটি প্রকাশ করেছে ছায়াবীথি। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। দাম ২৪০ টাকা।

চেরনোবিলের কণ্ঠস্বর—একটি পারমাণবিক দুর্ঘটনার কথ্য ইতিহাস : নোবেল বিজয়ী লেখক সেভত্লানা আলেক্সইভচের গ্রন্থ। অনুবাদ করেছেন কবি ও কথাসাহিত্যিক অদিতি ফাল্গুনী। ফিকশন ও ননফিকশনের ভেদাভেদ ঘুচিয়ে এক অসামান্য আলেখ্য গ্রন্থটি। এতে উঠে এসেছে চেরনোবিলের মর্মন্তুদ ঘটনার কথ্য ইতিহাস ও নানা বিশ্লেষণ। অদিতি ফাল্গুনী তরতাজা ভাষায় তা অনুবাদ করেছেন। বইটি প্রকাশ করেছে আগামী প্রকাশনী। প্রচ্ছদ করেছেন হামীম কামরুল হক ও সাদিয়া মাহ্জাবীন ইমাম। দাম ৪৫০ টাকা।

মূল মঞ্চের আয়োজন : গতকাল বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘ব্যারিস্টার আবদুল রসুল : জীবন ও কর্ম’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। এতে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন মামুন সিদ্দিকী। আলোচনায় অংশ নেন তাবেদার রসুল বকুল ও সুভাষ সিংহ রায়। সভাপতিত্ব করেন অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া ভূঁইয়া।

অনুষ্ঠানে সভাপতির বক্তব্যে অধ্যাপক গোলাম কিবরিয়া ভূঁইয়া বলেন, ব্যারিস্টার আবদুল রসুল অসাম্প্রদায়িক-জাতীয়তাবাদী নেতা হিসেবে নিজের অনন্য ব্যক্তিত্ব গড়ে তুলেছিলেন। বঙ্গভঙ্গবিরোধী জনমত সংগঠনে তাঁর ভূমিকা বাংলার ইতিহাসে চিরস্মরণীয় হয়ে থাকবে।

সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে ছিল অধ্যাপক লিয়াকত আলীর পরিচালনায় ‘সংস্কৃতি বিকাশ কেন্দ্র’, শাহ্ সাদিয়া আফরিন মল্লিকের পরিচালনায় ‘হামিবা সাংস্কৃতিক একাডেমি’ ও ‘ক্রান্তি শিল্পীগোষ্ঠী’র সাংস্কৃতিক পরিবেশনা।  

আজকের আয়োজন : আজ শনিবার মেলার দরজা খুলবে সকাল ১১টায়। তা চলবে রাত ৮টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত। মেলায় আজও থাকবে শিশুপ্রহর। গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অমর একুশে উদ্‌যাপন উপলক্ষে শিশু-কিশোর চিত্রাঙ্কন, সংগীত এবং সাধারণ ও উপস্থিত বক্তৃতা প্রতিযোগিতায় বিজয়ী শিশু-কিশোরদের মাঝে পুরস্কার প্রদান করা হবে। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য (প্রশাসন) অধ্যাপক ড. মো. আখতারুজ্জামান।

বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশের শিশুসাহিত্য শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন রফিকুর রশিদ। আলোচনায় অংশ নেবেন ইনাম আল হক, আমীরুল ইসলাম ও আসলাম সানী। সভাপতিত্ব করবেন জাকির তালুকদার। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।


মন্তব্য