kalerkantho


এবার চুনাপাথর তোলার সময় গর্ত ধসে নিহত ২

সিলেট অফিস   

২০ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



এবার চুনাপাথর তোলার সময় গর্ত ধসে নিহত ২

এবার সিলেটের জাফলংয়ে চুনাপাথর তোলার সময় গর্ত ধসে পাথর চাপা পড়ে দুই শ্রমিক নিহত হয়েছে। আহত হয়েছে আরো একজন। গতকাল রবিবার বিকেলে এ ঘটনা ঘটে।

এ নিয়ে গত এক মাসে সিলেটের বিভিন্ন পাথর  কোয়ারিতে পাথর উত্তোলনকালে মাটিচাপায় মারা  গেছে অন্তত ১৩ শ্রমিক। এর মধ্যে সবচেয়ে বড় দুর্ঘটনাটি ঘটে গত ২৩ জানুয়ারি কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার শাহ আরেফিন টিলায়। ওই দিন টিলা ধসে মারা যায় পাঁচ শ্রমিক।

গতকাল গোয়াইনঘাট উপজেলার জাফলং এলাকায় নিহতরা হলেন জেলার কোম্পানীগঞ্জ উপজেলার তেলিখাল গ্রামের মদরিস আলীর ছেলে কামরুজ্জামান (৩০) ও জিয়াদুর রহমানের ছেলে তাজউদ্দিন (৩২)।

গুরুতর আহত অবস্থায় আবদুর রশিদ নামের এক শ্রমিককে সিলেট ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

খবর পেয়েই পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে গর্তের মালিক দাবিদার দুলাল আহমদ নামের এক ব্যক্তিসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করেছে। গ্রেপ্তারকৃত অন্যরা পাথর তোলার শ্রমিক বলে পুলিশ জানিয়েছে।

গোয়াইনঘাট থানার ওসি দেলোয়ার হোসেন দুই শ্রমিকের মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

স্থানীয় লোকজন ও পুলিশ জানায়, জাফলংয়ের সংগ্রামপুঞ্জিতে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশের (বিজিবি) ক্যাম্পসংলগ্ন সোনাটিলায় কয়েক দিন ধরে কয়েকজন শ্রমিক চুনাপাথর উত্তোলন করছিল। গতকাল বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে হঠাৎ গর্ত ধসে চুনাপাথর চাপা পড়ে কামরুজ্জামান ও তাজউদ্দিন ঘটনাস্থলেই মারা যান।

আহত হন আবদুর রশিদ।

এই গর্তটির মালিক কে তা নিশ্চিত হওয়া যায়নি। দুলাল আহমদ ও হারুন মিয়া নামের দুই ব্যক্তি গর্তের মালিকানা দাবি করে আসছিলেন।

ওসি জানান, গর্তটি হারুন মিয়ার বলে জানা গেলেও দুলাল আহমদও গর্তটির মালিকানা দাবি করছিলেন। তিনি বলেন, দুলাল আহমদসহ ছয়জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে।

ওসি বলেন, লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য এমএজি ওসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।


মন্তব্য