kalerkantho


নতুন ইসির প্রথম ভোট

বাঘাইছড়ির মেয়র হলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী

রাঙামাটি প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বাঘাইছড়ির মেয়র হলেন নৌকা প্রতীকের প্রার্থী

সকাল থেকে দুপুর পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ ও অভিযোগহীন ভোটগ্রহণের পর শেষ বিকেলে বিচ্ছিন্ন কিছু অভিযোগের মধ্য দিয়ে রাঙামাটির বাঘাইছড়ি পৌরসভার ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। ভোটে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন।

গতকাল সকাল থেকেই এ পৌরসভার ভোটাররা নিজেদের নতুন নগরপিতা এবং কাউন্সিলর নির্বাচনের জন্য ভোটকেন্দ্রে ভিড় জমাতে থাকে। ভোটার উপস্থিতিও ছিল সন্তোষজনক। প্রার্থীদেরও কেউ তেমন কোনো অভিযোগ করেননি। শুধু ‘বহিরাগত’ বিতর্কে নৌকা ও ধানের শীষের দুই প্রার্থীর একই সুরে অভিযোগ ছিল স্বতন্ত্র প্রার্থীর বিরুদ্ধে। আর একই অভিযোগ নৌকার প্রার্থীর বিপক্ষে তুলেছেন স্বতন্ত্র প্রার্থী।

তবে শেষ বিকেলে বটতলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়সহ দু-তিনটি কেন্দ্রে জাল ভোট প্রদানের অভিযোগ ওঠে। জাল ভোট প্রদানের অভিযোগ মূলত ক্ষমতাসীন দলের বিরুদ্ধেই। এ ছাড়া কোনো ধরনের সংঘাত-সহিংসতা ও হানাহানি ছাড়াই শান্তিপূর্ণভাবে ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীন প্রথম নির্বাচনটিতে।

এদিকে ভোটগ্রহণ শেষে বিকেল ৪টার পর শুরু হয় ভোট গণনার কাজ।

সন্ধ্যা ৭টা নাগাদ ভোটাররা জানতে পারে তাদের নতুন নগরপিতা জাফর আলী খান। তবে ভোটের শুরু থেকে শেষ বিকেল অবধি স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমানের বিরুদ্ধে নৌকা ও ধানের শীষের প্রার্থী যেভাবে একই সুরে অভিযোগ করে গেছেন, তাতে স্বতন্ত্র প্রার্থী অন্য দুজনের মাথাব্যথার কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছিলেন। ১৫ ফেব্রুয়ারি শপথগ্রহণের পর নতুন নির্বাচন কমিশনের অধীন এটাই দেশে প্রথম নির্বাচন। নির্বাচনের এক দিন আগেই গত বৃহস্পতিবার সেখানে গিয়ে নির্বাচন কমিশনার ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহাদৎ হোসেন চৌধুরী সেখানে গিয়ে ‘জিরো টলারেন্স’ নীতি অনুসরণের ঘোষণা দিয়ে নির্বাচনী কাজে নিয়োজিত সবাইকে নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের নির্দেশ দেন।

বাঘাইছড়ি পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে লড়েছেন তিন প্রার্থী। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকে জাফর আলী খান, ধানের শীষ প্রতীকে বিএনপির ওমর আলী ও স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান। এখানে ৯টি ওয়ার্ডে কাউন্সিলর পদে ২৭ জন ও সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ছয় প্রার্থী লড়েছেন।

 নির্বাচন সুষ্ঠু এবং সুচারুরূপে সম্পন্ন করতে পৌর এলাকা এবং ভোটকেন্দ্রে বিপুলসংখ্যক আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য মোতায়েন থাকতে দেখা গেছে। কেন্দ্রের বাইরে বিজিবি ও র‌্যাবকে টহল দিতে দেখা গেছে। এ ছাড়া একজন জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ও চারজন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ৯টি কেন্দ্রে দায়িত্ব পালন করেছেন।

নির্বাচনী দায়িত্বে থাকা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আমির খসরু জানিয়েছেন, শান্তিপূর্ণভাবেই ভোটগ্রহণ শেষ হয়েছে। কোথাও তেমন কোনো অভিযোগ ছিল না।

ভোট গণনার পর দেখা যায়, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাফর আলী খান পেয়েছেন তিন হাজার ৭৯৮ ভোট। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী স্বতন্ত্র প্রার্থী আজিজুর রহমান পেয়েছেন দুই হাজার ২২৭ ভোট। বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলের (বিএনপি) ওমর আলী পেয়েছেন এক হাজার ৭৯৮ ভোট। ফলে এক হাজার ৫৭১ ভোটের ব্যবধানে বিজয়ী হয়েছেন রাঙামাটি জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য জাফর আলী খান।

শনিবার ভোটগ্রহণ শেষে রিটার্নিং অফিসার নাজিমউদ্দিন বাঘাইছড়ি উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে আনুষ্ঠানিকভাবে বেসরকারি এ ফল ঘোষণা করেন।


মন্তব্য