kalerkantho


বিএনপি দেশের স্বার্থে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে : ফখরুল

ভোলা প্রতিনিধি   

১৯ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



বিএনপি দেশের স্বার্থে আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে : ফখরুল

ফাইল ছবি

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, দেশের স্বার্থে এবং মানুষের অধিকার ও প্রত্যাশা পূরণে বিএনপি আগামী নির্বাচনে অংশ নেবে। তবে বর্তমান সরকার জোর করে ক্ষমতায় টিকে আছে।

তাদের অধীনে নিরপেক্ষ নির্বাচন সম্ভব নয়। এ কারণে সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের জন্য একটি নির্বাচন পরিচালনাকারী সহায়ক সরকার দরকার।

গতকাল বৃহস্পতিবার ভোলা জেলা বিএনপির ত্রিবার্ষিক সম্মেলনে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে বিএনপি মহাসচিব দলের এই অবস্থান তুলে ধরেন। সম্মেলনে প্রধান অতিথি হিসেবে তিনি বক্তব্য দেন। সম্মেলন উদ্বোধন করেন দলের ভাইস চেয়ারম্যান মেজর (অব.) হাফিজ উদ্দিন আহমদ বীরবিক্রম। সভাপতিত্ব করেন জেলা বিএনপির সভাপতি গোলাম নবী আলমগীর।

মির্জা ফখরুল বলেন, দেশের মানুষ এখন সব দলের অংশগ্রহণে একটি অবাধ, সুষ্ঠু ও নিরপেক্ষ নির্বাচন চায়। নির্বাচনের বিষয়ে রাষ্ট্রপতির কাছে ১৩ দফা দাবি জানিয়ে এলেও প্রধান নির্বাচন কমিশনার করা হয়েছে সরকারের পছন্দের মানুষকে। তাই এ নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো সুষ্ঠু নির্বাচন সম্ভব নয়।

তিনি আরো বলেন, খালেদা জিয়াকে মামলা দিয়ে কিংবা উসকানিমূলক বক্তব্য দিয়ে আন্দোলন দাবিয়ে রাখা যাবে না।

ভোলা শহরের ইসলামী কমপ্লেক্স চত্বরে অনুষ্ঠিত সম্মেলনে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন দলের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব অ্যাডভোকেট মজিবর রহমান সরোয়ার, নির্বাহী কমিটির সদস্য নাজিম উদ্দিন আলম, হাফিজ ইব্রাহিম, বিভাগীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বিলকিস জাহান শিরিন। সম্মলনে কেন্দ্রীয়, বিভাগীয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ের হাজার হাজার নেতাকর্মী অংশ নেয়। এর আগে সম্মেলনকে স্বাগত জানিয়ে জেলার বিভিন্ন উপজেলা ও জেলা সদর থেকে খণ্ড খণ্ড মিছিল সমাবেশস্থলে এসে উপস্থিত হয়।

জেলা বিএনপির সভাপতি আলমগীর ও সাধারণ সম্পাদক ট্রুম্যান : এদিকে সম্মেলন শেষে ভোলা জেলা বিএনপির নতুন কমিটি গঠন করা হয়েছে। গোলাম নবী আলমগীরকে সভাপতি ও হারুন-অর-রশিদ ট্রুম্যানকে সাধারণ সম্পাদক করা হয়। সম্মেলনের দ্বিতীয় অধিবেশন শেষে রাতে সভাপতি-সম্পাদকসহ কমিটির পাঁচ সদস্যের নাম ঘোষণা করেন দলের মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর। কমিটির অন্য তিন সদস্য হলেন সিনিয়র সহসভাপতি আমিনুল ইসলাম খান, প্রথম যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক হুমায়ুন কবির সোপান ও সাংগঠনিক সম্পাদক এনামুল হক।


মন্তব্য