kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


ট্রাম্পকে মুখের ওপর ‘না’ করলেন হারওয়ার্ড

সাবেদ সাথী, নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি   

১৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ট্রাম্পকে মুখের ওপর ‘না’ করলেন হারওয়ার্ড

যুক্তরাষ্ট্রের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হওয়ার প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন রবার্ট হারওয়ার্ড। মার্কিন প্রশাসনের শীর্ষস্থানীয় এই পদে তাঁর অনীহার কারণ হিসেবে নানা কথা শোনা যাচ্ছে। তবে বেশির ভাগ লোকই মনে করছে, ট্রাম্প প্রশাসনে যে বিশৃঙ্খলা তৈরি হয়েছে তার সঙ্গে হারওয়ার্ড নিজেকে জড়াতে চাচ্ছেন না। কেউ কেউ বলছে, নিজের পছন্দের লোকজনকে নিরাপত্তা পরিষদে আনতে পারবেন না বলে তিনি প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রস্তাবে সায় দেননি; যদিও হারওয়ার্ড নিজে প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ার কারণ দেখিয়েছেন ‘একান্ত ব্যক্তিগত’।

রুশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আলোচনা করে তোপের মুখে পড়েন যুক্তরাষ্ট্রের সদ্য বিদায়ী জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা মাইকেল ফ্লিন। অভিযোগ ওঠে, ট্রাম্প দায়িত্ব নেওয়ার আগেই ওবামা আমলে রাশিয়ার ওপর আরোপিত নিষেধাজ্ঞা প্রত্যাহারের বিষয়ে তিনি রুশ রাষ্ট্রদূতের সঙ্গে আলোচনা করেছেন। এমনকি বিষয়টি তিনি ভাইস প্রেসিডেন্টকেও জানাননি। এমন সমালোচনার পরিপ্রেক্ষিতে পদত্যাগে বাধ্য হন ফ্লিন। তাঁর অবর্তমানে অন্তর্বর্তীকালীন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন লেফটেন্যান্ট জেনারেল (অব.) জোসেফ কিথ কেলোগ।

কিন্তু ফ্লিনের স্থলাভিষিক্ত কে হবেন—এমন আলোচনায় বেশি শোনা যাচ্ছিল অবসরপ্রাপ্ত ভাইস অ্যাডমিরাল হারওয়ার্ডের কথা। বিশেষ করে এ ধরনের দায়িত্ব পালনের অভিজ্ঞতার কারণে ট্রাম্পও তাঁকে পছন্দ করেছিলেন। কিন্তু ট্রাম্পের সেই প্রস্তাব ফিরিয়ে দেন বুশ প্রশাসনের আমলে জাতীয় নিরাপত্তা পরিষদের সন্ত্রাসবিরোধী দপ্তরে কাজ করা হারওয়ার্ড।

প্রস্তাব ফিরিয়ে দেওয়ার কারণ হিসেবে হোয়াইট হাউসের এক কর্মকর্তা জানান, হারওয়ার্ড পারিবারিক ও আর্থিক অঙ্গীকারকে কারণ হিসেবে দেখিয়েছেন। একই কথা খোদ হারওয়ার্ডও বলেছেন এক বিবৃতিতে। তিনি বলেন, ‘এ ধরনের একটি পদে দায়িত্ব পালন করা মানে হলো, এর পেছনে আমাকে ২৪ ঘণ্টা সময় দিতে হবে। কিন্তু এখন আমার পক্ষে এই শ্রম দেওয়া সম্ভব নয়। ’

তবে ভিন্ন কথা শোনা গেছে হারওয়ার্ডের ঘনিষ্ঠ ও রিপাবলিকানদের মুখ থেকে। তাঁর এক বন্ধু বলেন, ‘হারওয়ার্ডের ভাষায়, হোয়াইট হাউসে খুবই বিশৃঙ্খল অবস্থা চলছে। এ কারণে তিনি ট্রাম্পের প্রস্তাবে সায় দেননি। ’

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক রিপাবলিকান নেতা বলেন, হারওয়ার্ড প্রথমে শর্ত দিয়েছিলেন যে নিরাপত্তা পরিষদে তিনি নিজের পছন্দের লোকজনকে বসাবেন। কিন্তু পরে উপলব্ধি করতে পারেন, এটা সম্ভব নয়। এ কারণে তিনি আর অগ্রসর হননি।

সিএনএনের সামরিক বিভাগের বিশ্লেষক মেজর জেনারেল (অব.) জেমস মার্কস বলেন, ‘হারওয়ার্ড খুবই যোগ্য প্রার্থী ছিলেন। তিনি কী কারণে প্রস্তাব ফিরিয়ে দিয়েছেন, তা নিয়ে অনুমাননির্ভর কোনো মন্তব্য আমি করতে চাই না। আমি স্পষ্ট করে বলতে চাই, ট্রাম্প প্রশাসনে বিরাজমান বিশৃঙ্খলা তাঁর সিদ্ধান্তকে প্রভাবিত করেছে। ’

হারওয়ার্ড মুখ ফিরিয়ে নেওয়ায় এখন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা হিসেবে দুজনের নাম শোনা যাচ্ছে। তাঁদের একজন বর্তমান অন্তর্বর্তীকালীন জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা কিথ কেলোগ। আরেকজন সিআইএর সাবেক পরিচালক ডেভিড পিট্রায়াস। তবে পছন্দের ব্যক্তিকে আনতে না পারায় ট্রাম্প প্রশাসন যে অনেকটা অস্বস্তিতে পড়েছে তা মোটামুটি স্পষ্ট।


মন্তব্য