kalerkantho


মেলাজুড়ে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ

নওশাদ জামিল   

১৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মেলাজুড়ে নতুন বইয়ের ঘ্রাণ

অমর একুশে গ্রন্থমেলার ১৬তম দিন আজ। স্টলে স্টলে ঘ্রাণ ছড়াচ্ছে সদ্য প্রকাশিত বইগুলো।

প্রিয় লেখকের বইটির নজরকাড়া প্রচ্ছদ, ভেতরে ঝকঝকে ছাপা, বাঁধাইও উন্নত—বইগুলো যেন মোহনীয় হয়ে উঠেছে পাঠকের কাছে। প্রকাশকরা জানান, অধিকাংশ বই চলে এসেছে গ্রন্থমেলায়। বই কিনতে ছুটে আসছেন প্রচুর পাঠক-ক্রেতা। প্রথম ও দ্বিতীয় সপ্তাহে যে বইগুলো পছন্দ করেছিলেন তাঁরা, এখন স্টলে গিয়ে সরাসরি ওই বইগুলো কিনছেন। সব মিলিয়ে গতকালও বইপ্রেমীদের উপস্থিতিতে মেলা ছিল সরগরম।

পহেলা ফাল্গুন ও ভালোবাসা দিবসে বইমেলায় ছিল প্রাণোচ্ছল জনজোয়ার। পরের দিন গতকাল বুধবারও আশাহত হননি প্রকাশকরা। জনজোয়ার না থাকলেও প্রকাশকদের কথা, বিক্রিবাট্টা মন্দ হয়নি। বিশেষ দিনে ভিড়ের ভয়ে কয়েক দিন মেলায় আসেননি অনেক ক্রেতা, গতকাল মেলায় তাঁদের উজ্জ্বল উপস্থিতি ছিল।

ভিড় তুলনামূলক কম থাকায় ক্রেতারা ঘুরে বেড়িয়েছেন স্বাচ্ছন্দ্যে, কিনছেন প্রিয় লেখকের বই।

দীর্ঘ হাসি ছড়িয়ে মাওলা ব্রাদার্সের প্রধান নির্বাহী আহমেদ মাহমুদুল হক কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অন্যান্য বছরের তুলনায় এবার বিক্রি ভালো। গত বছর এ সময় যত বিক্রি হয়েছিল, এবার তার চেয়ে বেশি। সব মিলিয়ে আমরা আনন্দিত। ’

গতকাল শেষ বিকেলে হঠাৎ চমকে ওঠে মেলা। আওয়ামী লীগের দপ্তর সম্পাদক আবদুস সোবহান গোলাপের নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে যোগ দিতে মিছিল করে মেলায় প্রবেশ করে দলীয় নেতাকর্মীরা। একই ঘটনা ঘটে বইটির মোড়ক উন্মোচন করতে আসা সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের আগমনের সময়ও। হঠাৎ মিছিল দেখে ভড়কে যায় অনেকেই। প্রকাশকদের কেউ কেউ বললেন, বইমেলাকে রাজনীতির বাইরে রাখা উচিত। কেননা, এ মেলা সবারই প্রাণের উৎসব।

আবদুস সোবহান গোলাপের বইটির নাম ‘বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার দর্শন : ডিজিটাল বাংলাদেশ অ্যান্ড সোশ্যাল চ্যালেঞ্জ’। জিনিয়াস পাবলিকেশন থেকে প্রকাশিত হয়েছে। বইটির মোড়ক উন্মোচন করে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘বই হচ্ছে জীবনের পাল তোলা নৌকা। এই নৌকায় চড়ে এগিয়ে যাবে নতুন প্রজন্ম। যেমন করে এগিয়ে চলেছেন শেখ হাসিনা। ’

এ ছাড়া গতকাল মেলায় অনুষ্ঠিত হয়েছে সাংবাদিক মামুন মিজানুর রহমানের প্রথম গল্পগ্রন্থ ‘হেসে হেসে ডুবেছিল চাঁদ’ মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠান। চৈতন্য থেকে প্রকাশিত এ গ্রন্থটির মোড়ক উন্মোচন করেন লেখকের বন্ধু, সহকর্মী ও ঘনিষ্ঠজনরা।

গ্রন্থমেলায় আসা চারটি নির্বাচিত বইয়ের তথ্য-পরিচিত ছাপা হালো।

বাবার মতো মুক্তিযোদ্ধা : লেখক কথাসাহিত্যিক মঞ্জু সরকার। বাঙালির হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ অর্জন মুক্তিযুদ্ধ। এই যুদ্ধে কিশোরদের ভূমিকা, তারা কিভাবে অংশ নিয়েছিল, সেসব কাহিনি লেখক তুলে ধরেছেন গল্পের আশ্রয়ে। বইটিতে পত্রস্থ হয়েছে ১০টি কিশোর উপযোগী গল্প। প্রকাশ করেছে পাঞ্জেরী পাবলিকেশন্স। প্রচ্ছদ করেছেন রাজীব রাজু। দাম ১৭০ টাকা।

রম্য : রম্য লেখক ও কার্টুনিস্ট আহসান হাবীবের বই। লেখক তাঁর মজাদার ভাষায় তুলে ধরেছেন সাম্প্রতিক বিষয় নিয়ে রম্যরচনা। অনেক বিষয় নিয়েই চমত্কার রসিকতা, রঙ্গরস সৃষ্টি করতে এ লেখকের জুড়ি মেলা ভার। বইটি প্রকাশ করেছে তাম্রলিপি। প্রচ্ছদ করেছেন লেখক নিজেই। দাম ১৬০ টাকা।

আয়লান : লেখক শিশুসাহিত্যিক, কবি ও লেখক লুত্ফর চৌধুরী। সিরিয়ান শিশু আয়লান মারা যায় সৈকতে, তারপর বিক্ষোভে ফেটে পড়ে সারা বিশ্বের মানুষ। জাগ্রত হয় অনেকের মানবতাবোধ। বইটির প্রথম গল্পই সেই শিশু আয়লানকে নিয়ে। এ ছাড়া অন্য গল্পগুলো কৌতূহলোদ্দীপক, আকর্ষণীয়। বইটি প্রকাশ করেছে রিদম প্রকাশনা সংস্থা। প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। দাম ১২৫ টাকা।

পেলে থেকে মেসি : সর্বকালের সেরা ১৫ ফুটবলার নিয়ে এ গ্রন্থ। বইটি সম্পাদনা করেছেন মোস্তফা মামুন ও নোমান মোহাম্মদ। প্রকাশ করেছে আলোঘর। প্রচ্ছদ এঁকেছেন শতাব্দী জাহিদ। ১৬৯ পৃষ্ঠার এ বইটির মাঝে আলাদা করে রয়েছে সর্বকালের সেরা ১৫ ফুটবলারের রঙিন পোস্টার এবং তাঁদের নিয়ে চমত্কার লেখা। মূল্য ৪০০ টাকা।

নতুন বই : একাডেমির তথ্যানুযায়ী, মেলার ১৫তম দিনে নতুন ১৪৩টি বই প্রকাশিত হয়েছে। এর মধ্যে গল্প ১৫, উপন্যাস ২৫, প্রবন্ধ ৭, কবিতা ৫২, গবেষণা ৫, ছড়া ৫, শিশুসাহিত্য ৪, জীবনী ১, মুক্তিযুদ্ধ ২, বিজ্ঞান ১, ভ্রমণ ২, ইতিহাস ১, চিকিৎসা/স্বাস্থ্য ১, রম্য/ধাঁধা ১, অভিধান ১ এবং অন্যান্য বিষয়ের ওপর আরো ২০টি নতুন বই এসেছে। এ ছাড়া ৩১টি নতুন বইয়ের মোড়ক উন্মোচন করা হয়।

কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামালের চারটি নতুন বই প্রকাশিত হয়েছে। তাঁর ইতিহাসভিত্তিক সাড়া জাগানো উপন্যাস ‘অগ্নিকন্যা’ প্রকাশ করেছে পার্ল পাবলিকেশন্স। অন্যপ্রকাশ থেকে প্রকাশিত হয়েছে প্রেমের উপন্যাস ‘রূপবতী’। অনন্যা প্রকাশ করেছে কিশোর গোয়েন্দা উপন্যাস ‘প্রিন্স উইলিয়ামের আংটির খোঁজে’ ও রম্য রচনার বই ‘কিছু হাসি কিছু রম্য’।

‘বাংলালিংক বইঘর’ নিয়ে এলো তিন ই-বুক : দেশের অন্যতম শীর্ষ ডিজিটাল কমিউনিকেশন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বাংলালিংক, একুশে বইমেলায় দেশে প্রথমবারের মতো দুজন বিখ্যাত লেখকের তিনটি ই-বুক নিয়ে এসেছে। বইগুলো হলো ইমদাদুল হক মিলনের ‘মরগান সাহেবের প্রেতাত্মা’ ও ‘নয় মাস’ এবং আনিসুল হকের ‘এক লক্ষ লাইক’। ‘বাংলালিংক বইঘর’ ই-বুক রিডার অ্যাপটি নির্মাণ করেছে ই. বি. সলিউশন লিমিটেড। বাংলালিংক বইঘর অ্যাপে বইয়ের উদ্বোধন অনুষ্ঠানটি গত মঙ্গলবার বইমেলায় অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে বাংলালিংকের হেড অব কনটেন্ট জিয়াউল হক সিকদার, হেড অব মার্কেটিং কমিউনিকেশন এ কে রাহাত আহমেদ, করপোরেট কমিউনিকেশন ম্যানেজার আংকিত সুরেকা, ডিজিটাল কনটেন্ট ডেভেলপমেন্ট ম্যানেজার শফিক শামসুর রাজ্জাক এবং ইবিএসের ম্যানেজিং ডাইরেক্টর রাফিউর রহমান খান ইউসুফজাই উপস্থিত ছিলেন।

মেলা মঞ্চের আয়োজন : গতকাল মেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘সমর সেনের জন্মশতবার্ষিকী’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন অধ্যাপক বেগম আকতার কামাল। সভাপতিত্ব করেন ভাষাসংগ্রামী আহমদ রফিক। সন্ধ্যায় হয় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।   আজ মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘সত্তর দশকের কবিতা’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন কবি মুজিবুল হক কবীর। আলোচনায় অংশগ্রহণ করবেন কবি ইকবাল হাসান এবং ড. খালেদ হোসাইন। সভাপতিত্ব করবেন কবি অসীম সাহা। সন্ধ্যায় রয়েছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।


মন্তব্য