kalerkantho


প্রেম প্রস্তাব প্রত্যাখ্যান

ভাঙ্গায় অফিসে ঢুকে নারীকে ছুরি মেরে জখম

নিজস্ব প্রতিবেদক, ফরিদপুর   

১৫ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



প্রেমের প্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় ফরিদপুরের ভাঙ্গা উপজেলায় অফিসে ঢুকে নারীকে ছুরিকাঘাত করেছে এক বখাটে। হাত, গলা ও মাথায় জখম হওয়া এই নারীকে স্থানীয় উপজেলা স্বাস্থ্যকেন্দ্রে ভর্তি করা হয়েছে।

গতকাল মঙ্গলবার সকাল সাড়ে ৯টার দিকে ভাঙ্গা উপজেলা সদরের গ্রিন টাওয়ারে অবস্থিত প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্র নামে একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের কার্যালয়ে এই হামলার ঘটনা ঘটে।

আহত সাবিনা খাতুন (৩০) এক দিন আগেই ওই প্রতিষ্ঠানে অফিস সহকারী পদে যোগ দিয়েছেন। তিনি রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলার জহুরুল হকের স্ত্রী। তাঁর স্বামী ঢাকায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কর্মরত রয়েছেন।

সাবিনা জানান, অনেক দিন ধরে আতাউর রহমান (৩৫) নামের এই হামলাকারী তাঁকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে আসছিল। এ ব্যাপারে থানায় কয়েক দফা সাধারণ ডায়েরি (জিডি) করেও কোনো প্রতিকার পাওয়া যায়নি। তিনি বলেন, ‘গতকাল সকালে আতাউর এসে আমাকে ছুরিকাঘাত করে পালিয়ে গেছে। ’

আতাউর নামের এই বখাটের বাড়ি পাবনার সুজানগর উপজেলার কেতুপাড়া গ্রামে। সাবিনার বাবার বাড়ি রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলায়।

সাবিনা খাতুন গত রবিবার প্রতিবন্ধী সেবা ও সাহায্য কেন্দ্রে অফিস সহকারী পদে যোগ দেন বলে কেন্দ্রের চিকিৎসক মো. আব্দুল হালিম

জানান। তিনি বলেন, গতকাল সকালে অফিসে কাজ করার সময় হঠাৎ চিত্কার শুনে বেরিয়ে এসে দেখি ছুরি হাতে আতাউর দৌড়ে পালিয়ে যাচ্ছে। সাবিনা রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে আছে। আমরা দ্রুত তাকে স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যাই। ’

ভাঙ্গা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ কর্মকর্তা মো. আব্দুল্লাহ জানান, সকাল পৌনে ১০টার দিকে সাবিনাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাঁর হাত, গলা ও মাথায় ধারালো অস্ত্রের আঘাত রয়েছে।

সাবিনার স্বামী জহিরুল ইসলাম বলেন, ‘আমি ঢাকায় চাকরি করি। মঙ্গলবার পৌনে ১০টার দিকে আতাউর নামের এক ব্যক্তি আমাকে ফোন করে আমার স্ত্রীকে কোপানোর কথা জানায় এবং আমাকেও কোপানোর হুমকি দেয়। ’ তিনি জানান, ২০১৫ সালের সেপ্টেম্বর মাসে সাবিনার সঙ্গে তাঁর বিয়ে হয়েছে। বিয়ের পরেই তাঁর স্ত্রী জানান যে আতাউর তাঁকে প্রথমে প্রেম প্রস্তাব দেয়। নাকচ করলে তারপর দীর্ঘদিন ধরে উত্ত্যক্ত করছে। এমনকি বিয়ের পরও সে উত্ত্যক্ত করে আসছে।

জহিরুল বলেন, ‘আতাউর এরপর বিভিন্ন সময় আমাকে ও আমার স্ত্রীকে হুমকি দেয়। সর্বশেষ ভাঙ্গায় যোগদানের একদিন পর হামলা করল এই বখাটে। ’

ভাঙ্গা থানার ওসি সৈয়দ আব্দুল্লাহ জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। আতাউর ভাঙ্গায় একটি বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে কাজ করে বলে জেনেছেন তাঁরা।  

ওসি বলেন, এ ব্যাপারে সাবিনার স্বামী লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। বিষয়টি গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করা হচ্ছে। হামলাকারী আতাউরকে ধরতে পুলিশ অভিযান চালাচ্ছে।

 


মন্তব্য