kalerkantho


পাঁচ বছরেও রহস্য উদ্‌ঘাটিত না হওয়ায় স্বজন ও সাংবাদিকরা ক্ষুব্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



পাঁচ বছরেও রহস্য উদ্‌ঘাটিত না হওয়ায় স্বজন ও সাংবাদিকরা ক্ষুব্ধ

সাংবাদিক দম্পতি সাগর সরওয়ার ও মেহেরুন রুনি হত্যার পাঁচ বছর হয়ে গেল আজ শনিবার। এখনো চাঞ্চল্যকর এই জোড়া খুনের রহস্যের কোনো কূলকিনারা হয়নি।

এ দীর্ঘ সময়েও বিচার না পেয়ে তাঁদের স্বজন ও সাংবাদিক সহকর্মীরা চরম হতাশ ও ক্ষুব্ধ। সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচারের দাবিতে আজ সকাল ১১টায় ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি চত্বরে সাংবাদিকরা প্রতিবাদ সমাবেশ করবেন।

২০১২ সালের ১১ ফেব্রুয়ারি সকালে রাজধানীর পশ্চিম রাজাবাজারের ভাড়া বাসা থেকে সাগর-রুনির ক্ষতবিক্ষত লাশ উদ্ধার করে পুলিশ। সাগর মাছরাঙা টিভির বার্তা সম্পাদক ও রুনি এটিএন বাংলার জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক ছিলেন। হত্যাকাণ্ডের দিনই ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে খুনিদের গ্রেপ্তারের নির্দেশ দেওয়ার কথা বলেছিলেন তৎকালীন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন।

কিন্তু গত পাঁচ বছরেও এ হত্যাকাণ্ডের রহস্য উদ্ঘাটন করতে পারেনি আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। পুলিশের ব্যর্থতায় তদন্তভার র‌্যাবকে দেওয়া হলেও কোনো সুফল আসেনি। আদালতে প্রতিবেদন দিতে পাঁচ বছরে ৪৭ বার সময় নেওয়া হয়েছে।

রুনির ভাই নওশের আলম রোমান কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘প্রতিবছর এই দিনটি এলে নতুন করে কষ্টগুলো সামনে আসে।

আপনারা, আমরা বিচার চাওয়া ছাড়া আর কী করতে পারি! আজ বিকেলে আমাদের বাসায় দোয়া ও মিলাদ হবে। সবাই আসবেন। আর সকালে মেঘকে (সাগর-রুনির ছেলে) নিয়ে আজিমপুর কবর জিয়ারত করতে যাব। ’

ডিআরইউয়ের সাধারণ সম্পাদক মুরসালিন নোমানী কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘অত্যন্ত পরিতাপের বিষয়, এ নির্মম হত্যাকাণ্ডের পাঁচ বছর পেরিয়ে গেলেও প্রকৃত হত্যাকারীদের শনাক্ত ও গ্রেপ্তার করা হয়নি। বিচার প্রক্রিয়াও থমকে রয়েছে। কিন্তু এই নিষ্ঠুর হত্যাকাণ্ডের বিচার দাবিতে ডিআরইউসহ গোটা সাংবাদিক সমাজ সোচ্চার রয়েছে। ’ তিনি জানান, সাগর-রুনির হত্যার বিচার দাবিতে আজ সকাল ১১টায় ডিআরইউ চত্বরে এক প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। এতে সাগর-রুনির পরিবারের সদস্য ও সাংবাদিক সমাজ অংশ নেবে।


মন্তব্য