kalerkantho


নিউজিল্যান্ডে সৈকতে মৃত ৩০০

আটকা পড়া শতাধিক তিমি বাঁচানোর চেষ্টা

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১১ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আটকা পড়া শতাধিক তিমি বাঁচানোর চেষ্টা

নিউজিল্যান্ডের সাউথ আইল্যান্ডের গোল্ডেন বে অঞ্চলের ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকতে আটকা পড়ে আছে শতাধিক তিমি। ছবি : এএফপি

নিউজিল্যান্ডের সাউথ আইল্যান্ডের উত্তরপ্রান্তে ফেয়ারওয়েল স্পিট সৈকতে গতকাল শুক্রবার ভোরের দিকে চার শতাধিক তিমি আটকা পড়ে। প্রাণী সংরক্ষণকর্মী ও স্থানীয় বাসিন্দারা তিমিগুলোকে বাঁচানোর আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে।

ইতিমধ্যেই প্রায় তিন শ তিমি মারা গেছে।

নিউজিল্যান্ডের প্রাণী সংরক্ষণ বিভাগ জানায়, এর আগেও দেশটির বিভিন্ন জায়গায় তিমি আটকা পড়ার ঘটনা ঘটেছে। তবে সমুদ্রসৈকতে এত বেশি সংখ্যায় তিমি আটকা পড়ার ঘটনা এই প্রথম।

প্রাণী সংরক্ষণ বিভাগের আঞ্চলিক ব্যবস্থাপক অ্যান্ড্রু ল্যামাসন বলেন, ফেয়ারওয়েল স্পিটে ৪১৬টি তিমি আটকা পড়ে। দুর্গম ওই দ্বীপ এলাকায় প্রাণী সংরক্ষণ কর্মকর্তারা পৌঁছানোর আগেই ৭০ শতাংশ তিমি মারা যায়। পরে ৫০০ স্বেচ্ছাসেবীর সাহায্যে গতকাল সকাল থেকে বাকি তিমিগুলোকে বাঁচানোর শেষ চেষ্টা করা হচ্ছিল বলে জানান তিনি।

অ্যানা ওয়াইলস নামের এক স্বেচ্ছাসেবক স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানান, মানববন্ধনী তৈরির মাধ্যমে তারা বেশ কিছু তিমিকে সমুদ্রের গভীর জলে ফেরত পাঠিয়েছে। তবে তিমিগুলো কী কারণে সমুদ্রসৈকতে এসে আটকা পড়েছে সে ব্যাপারে বিজ্ঞানীরা এ মুহূর্তে নিশ্চিত হতে পারেননি। তবে তাঁরা ধারণা করছেন, একটি তিমি সৈকতে আটকা পড়লে সাহায্যের জন্য বাকিদের কাছে সংকেত পাঠায়।

এ সময় বাকিরা তাকে উদ্ধারে এগিয়ে এলে তারাও আটকা পরে। তাদের আরো ধারণা বয়স বৃদ্ধি, শারীরিক অসুস্থতা এবং সঠিক দিক নির্দেশনার অভাবেও তিমিগুলো সৈকতে আটকা পড়তে পারে। সূত্র : বিবিসি, এএফপি।


মন্তব্য