kalerkantho


মেলার সৌন্দর্য উদ্যান অংশেই

নওশাদ জামিল   

৭ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



মেলার সৌন্দর্য উদ্যান অংশেই

বইমেলার দুটি অংশ—এক অংশ বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণে, অন্যটি সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে। অনেক ক্রেতা-দর্শনার্থী এখনো মনে করছে, বইমেলা বুঝি বাংলা একাডেমির ভেতরেই।

বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ ঘুরে কিছু বই কিনে চলেও যাচ্ছে অনেকে। কারণ তাদের অনেকের অজানা রয়ে গেছে যে আসলে বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ নয়, পাশের সোহরাওয়ার্দী উদ্যানেই ফুটে উঠেছে মেলার আসল সৌন্দর্য।

অন্যবারের চেয়ে মেলার পরিসর বেড়েছে, বেড়েছে স্টলের আয়তনও। প্রকাশকরা প্যাভিলিয়ন পেয়েছেন। মেলার সর্বত্রই খুশির আমেজ। লেখক-প্রকাশকরা বলছেন, অনেক ক্রেতা-পাঠক একটা বিভ্রান্তির মধ্যে থাকে। অনুষ্ঠান মঞ্চসহ সব স্টল সোহরাওয়ার্দী উদ্যান অংশে নিয়ে আসারও দাবি তাঁদের। অনন্যা প্রকাশনীর স্বত্বাধিকারী মনিরুল হক গতকাল কালের কণ্ঠকে বলেন, বইমেলার জন্য সোহরাওয়ার্দী উদ্যানই চমত্কার জায়গা। প্রকাশনা প্রতিষ্ঠানের সব স্টল একই জায়গায় হলে পাঠকের জন্য তা হবে আনন্দময় অভিজ্ঞতা।

বইমেলায় ঘুরতে ও বই কিনতে এসেছিলেন রাজধানীর বসুন্ধরা আবাসিক এলাকার বাসিন্দা তানিয়া ফেরদৌস। আলাপচারিতায় তিনি বলেন, ‘দুই অংশে ঘুরতে ঘুরতে ক্লান্ত হয়ে পড়েছি। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে রয়েছে বিশাল জায়গা। বইমেলার জন্য এটাই উপযুক্ত স্থান। বাংলা একাডেমি প্রাঙ্গণ থেকে সব স্টল সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে নিয়ে আসা উচিত। ’

গতকাল বইমেলার ষষ্ঠ দিনে মেলা প্রাঙ্গণে ছিল ছিমছাম ভাব। সোহরাওয়ার্দী উদ্যানের অংশে দুপুর থেকেই বইপ্রেমীদের আগমন শুরু হয়। সময় যত গড়িয়েছে মেলায় পাঠকের আনাগোনা তত বেড়েছে। তবে বই বিক্রি হয়েছে তুলনামূলক কম। এখনো মেলায় যারা আসছে তাদের বেশির ভাগই মেলা ঘুরে দেখছে, বইয়ের ক্যাটালগ সংগ্রহ করছে। তবে এর মধ্যেই টুকটাক বিক্রি চলছে।

মাহবুবুল হক শাকিলের কাব্যগ্রন্থের প্রকাশনা উৎসব : মেলায় এসেছে প্রধানমন্ত্রীর সদ্যপ্রয়াত বিশেষ সহকারী ও কবি মাহবুবুল হক শাকিলের কবিতার বই ‘জলে খুঁজি ধাতব মুদ্রা’। গতকাল বিকেলে বইটির মোড়ক উন্মোচন করা হয়। বাংলা একাডেমির কবি শামসুর রাহমান সেমিনার কক্ষে এক শোকাতুর পরিবেশে বইটি নিয়ে আলোচনা করেছেন কবি হেলাল হাফিজ, কবি হাবীবুল্লাহ সিরাজী, আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক ডা. দীপু মনি, মাহবুবুল হক শাকিলের স্ত্রী অ্যাডভোকেট নিলুফার আনজুম পপি, তাঁর কন্যা মৌপি ও বইটির প্রকাশক শাহাদাত হোসেন। পুরো অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেছেন পীযূষ বন্দ্যোপাধ্যায়।

কবি হেলাল হাফিজ বলেন, ‘যারা কবিতার পাঠক, কবি শাকিলের আত্মার খবর রাখে তারা জানে এই মোড়ক উন্মোচনের পেছনে জড়িয়ে আছে কান্না, হাহাকার আর ভালোবাসা। আমরা তাঁকে স্পর্শ করতে চাই, জড়িয়ে ধরতে চাই, ভালোবাসতে চাই, আর তা হতে পারে তাঁর বই পাঠ করে। ’

শাকিলের স্ত্রী অ্যাডভোকেট নিলুফার আনজুম পপি বলেন, ‘ভালোবাসার মানুষরা কখনো হারান না। আমার প্রতিটি সত্তায় তিনি বেঁচে থাকবেন। আমি আশা করব তাঁর কবিতা তাঁকে অনেক দিন বাঁচিয়ে রাখবে। ’  

কবির মেয়ে মৌপি বলেন, ‘আমার বাবা আমার কাছে কবি হওয়ার আগে সব মানুষের কাছে কবি হয়েছেন। আমার ভাবতে ভালো লাগছে যে আমার বাবার কবিতা এত মানুষ ভালোবাসে। ’

বইমেলায় আসা চারটি বইয়ের তথ্য-পরিচিতি ছাপা হলো।

প্রবন্ধসংগ্রহ ৪ : লেখক বিচারপতি মুহাম্মদ হাবিবুর রহমান। তাঁর আগ্রহের ব্যাপ্তি ছিল বিদ্যাচর্চার নানা ক্ষেত্রে। আমৃত্যু নিবেদিত ছিলেন সৃষ্টিশীল ও মননশীল নানা কাজে। তাঁর কাজের একটি বড় অংশ জুড়ে আছে বহুমাত্রিক কোষগ্রন্থ ও সংকলন। এ ছাড়া লিখেছেন মননশীল প্রবন্ধ। বিচিত্র বিষয়ে বিপুল সৃষ্টিসম্ভার রেখে গেছেন এই গুণী লেখক। সাহিত্যের নানা কিছু ছাড়াও আইন, সুশাসন, নাগরিক ও মানবাধিকার বিষয়েও লিখেছেন গবেষণাধর্মী প্রবন্ধ। সেসব নিয়ে প্রকাশিত হয়েছে তাঁর ‘প্রবন্ধসংগ্রহ ৪’। বইটি প্রকাশ করেছে মাওলা ব্রাদার্স। মুহাম্মদ হাবিবুর রহমানের রচনা যেমন রসদীপ্ত তেমনি জ্ঞানগাম্ভীর্যে সমৃদ্ধ। ভাষা আন্দোলন, সাহিত্য, সংস্কৃতিসহ নানা বিষয়ে তাঁর রচিত প্রবন্ধে তা প্রতিফলিত হয়েছে। বইটির প্রচ্ছদ প্রয়াত শিল্পী কাইয়ুম চৌধুরীর আঁকা। মূল্য ৭৫০ টাকা।

রবীন্দ্রনাথের ব্রহ্মভাবনা : লেখক বেগম আখতার কামাল। দেশের প্রবন্ধ সাহিত্য ও গবেষণায় উল্লেখযোগ্য একটি নাম। তাঁর প্রবন্ধে নিজস্ব একটা সৃজনী আছে, যে কারণে সমসাময়িক প্রাবন্ধিকদের মধ্য থেকে সহজেই তাঁকে আলাদাভাবে চিহ্নিত করা যায়। রবীন্দ্রনাথ তাঁর চর্চা ও গবেষণার গুরুত্বপূর্ণ অনুষঙ্গ। রবীন্দ্রনাথের ধর্মচিন্তা, দার্শনিকতাসহ প্রাসঙ্গিক নানা বিষয় নিয়ে এই বই। প্রকাশ করেছে কথাপ্রকাশ। প্রচ্ছদ করেছেন সব্যসাচী হাজরা। দাম ১৬০ টাকা।

ভয় পাবে তুমি : লেখক ধ্রুব এষ। প্রচ্ছদশিল্পী হিসেবে তাঁর খ্যাতি ব্যাপক। পাশাপাশি লিখছেন অনেক দিন ধরেই। ছোটদের জন্য লিখেছেন বেশি। এ বইটিও কিশোরদের জন্য। ভৌতিক গল্প, ভূতের গল্প ছাড়াও শিহরণজাগানিয়া নানা বিষয় নিয়ে বইটিতে পত্রস্থ হয়েছে ১০টি গল্প। বইটি প্রকাশ করেছে প্রতীক প্রকাশন। দাম ১৮০ টাকা।

জলে খুঁজি ধাতব মুদ্রা : প্রয়াত কবি ও রাজনীতিবিদ মাহবুবুল হক শাকিলের কবিতার বই। বইটি প্রকাশ করেছে অন্বেষা প্রকাশন। ব্যক্তিগত অভিব্যক্তি, যাপিতজীবনের নানা টানাপড়েন, বঙ্গবন্ধু, দেশ, প্রেম ও প্রকৃতিকে উপজীব্য করে কবিতাগুলো লেখা। তাঁর কবিতায় চিত্রময়তা আছে, গীতলতা আছে তেমনি আছে বাস্তবতার ঘাত। কবিতাপ্রেমী পাঠকের ভালো লাগবে। বইটির প্রচ্ছদ করেছেন ধ্রুব এষ। দাম ২০০ টাকা।

নতুন বই : বাংলা একাডেমির তথ্যানুসারে গতকাল মেলায় এসেছে ৯০টি বই। পাঞ্জেরি এনেছে কথাসাহিত্যিক ইমদাদুল হক মিলনের কিশোরগল্প ‘ভৌতিক’। অন্যপ্রকাশ এনেছে কথাসাহিত্যিক হুমায়ূন আহমেদের ‘হুমায়ূন আহমেদ রচনাবলী নবম ও দশম খণ্ড’, কথাসাহিত্যিক মোস্তফা কামালের রোমান্টিক উপন্যাস ‘রূপবতী’। অবসর এনেছে হরিশংকর জলদাসের ‘জীবনানন্দ ও তাঁর কাল’ ইত্যাদি।

মূল মঞ্চের আয়োজন : গতকাল বিকেল ৪টায় গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হয় ‘হরিচরণ বন্দ্যোপাধ্যায় ও তাঁর অভিধান : দেড়শোতম জন্মবর্ষের স্মরণ’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ড. স্বরোচিষ সরকার। আলোচনায় অংশ নেন অধ্যাপক আহমদ কবির, অধ্যাপক মহাম্মদ দানীউল হক ও হাকিম আরিফ। অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ড. গোলাম মুরশিদ। সন্ধ্যায় সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সংগীত পরিবেশন করেন ফাতেমা-তুজ-জোহরা, সুজিত মোস্তফা, ইয়াসমিন মুশতারী এবং এ কে এম শহীদ কবীর পলাশ।

আজকের আয়োজন : আজ মঙ্গলবার গ্রন্থমেলার মূল মঞ্চে অনুষ্ঠিত হবে ‘হরিচরণ বাংলা ভাষার প্রযুক্তি ব্যবহার’ শীর্ষক আলোচনা অনুষ্ঠান। অনুষ্ঠানে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করবেন মোস্তাফা জব্বার। আলোচনায় অংশ নেবেন মো. নজরুল ইসলাম খান ও শ্যামসুন্দর সিকদার। সভাপতিত্ব করবেন অধ্যাপক জামিলুর রেজা চৌধুরী।


মন্তব্য