kalerkantho


আশ্রয় দেওয়া রোহিঙ্গার হাতেই শিশু অপহৃত

মুক্তিপণ দিয়ে উদ্ধার

নিজস্ব প্রতিবেদক, কক্সবাজার   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



আশ্রয় দেওয়া রোহিঙ্গার হাতেই শিশু অপহৃত

মিয়ানমারের রাখাইন থেকে অনুপ্রবেশ করা এক রোহিঙ্গা যুবকের অসহায় অবস্থা দেখে বাড়িতে আশ্রয় দিয়েছিলেন মুরগি খামারি এনামুল হক। সেই আশ্রিত যুবকই তাঁর ছয় বছরের ছেলেকে অপহরণ করে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। শেষ পর্যন্ত এক লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে তিনি ছেলে উদ্ধার করেন।

এ ঘটনা ঘটেছে কক্সবাজারের উখিয়ায়। উপজেলার হলদিয়া পালং ইউনিয়নের পাগলির বিল গ্রামের  মাদ্রাসাপড়ুয়া এমদাদুল হক মিশু (৬) গত ১ ফেব্রুয়ারি অপহৃত হয়। সে স্থানীয় শাহ আমানত সুন্নিয়া মাদ্রাসার নুরানি শ্রেণিতে পড়ে। গতকাল রবিবার তাকে উদ্ধার করা হয় বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির গহিন অরণ্য এলাকা থেকে। উখিয়া থানার ওসি মো. আবুল খায়ের ঘটনাটি নিশ্চিত করেছেন।

অপহৃত শিশুর পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, অপহরণের ঘটনার ব্যাপারে উখিয়া থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করা হয়েছিল। এমনকি র‌্যাবের শরণাপন্নও হয়েছিল পরিবারটি। শেষ পর্যন্ত অপহরণকারীদের টাকা দিয়ে উদ্ধার করা হয় শিশুটিকে।

মুরগির খামারি এনামুল হক জানান, কয়েক দিন আগে মিয়ানমার থেকে অনুপ্রবেশ করা এক রোহিঙ্গা যুবক অসহায়ত্বের কথা জানিয়ে তাঁদের বাড়িতে আশ্রয় নেয়। রোহিঙ্গা যুবক নিজের নাম এনামুল হক বলে তাঁদের জানায়।

এনামুল আরো জানায়, গত ১ ফেব্রুয়ারি সকাল ৮টার দিকে তাঁর ছেলে মিশু যথারীতি মাদ্রাসায় যায়। রোহিঙ্গা যুবক মাদ্রাসা থেকে বাড়ি ফেরার পথে তাকে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরে অপহরণকারী তাঁদের কাছে দুই লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে। তিনি বলেন, রোহিঙ্গাদের একটি সংঘবদ্ধ দল এ ঘটনায় জড়িত। তাদের সঙ্গে আপস করেই এক লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়ে ছেলেকে উদ্ধার করেছেন। প্রসঙ্গত, কয়েক মাস আগেও উখিয়া সদর এলাকা থেকে চতুর্থ শ্রেণির এক ছাত্রকে অপহরণ করেছিল রোহিঙ্গাদের একটি দল। অপহরণকারীরা মুক্তিপণ হিসেবে শিশুটির পরিবারের কাছ থেকে তিন লাখ টাকা আদায় করেছিল।


মন্তব্য