kalerkantho


ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আবেদন নাকচ

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৭ ০০:০০



ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহালের আবেদন নাকচ

সাতটি মুসলিমপ্রধান দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা পুনর্বহাল চেয়ে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসনের করা জরুরি আবেদন আপিল বিভাগ গতকাল রবিবার নাকচ করে দিয়েছেন। এ বিষয়ে আইনগত দিকগুলোর পূর্ণাঙ্গ শুনানি না হওয়া পর্যন্ত ট্রাম্পের শরণার্থী ও অভিবাসী বিষয়ক ওই নির্বাহী আদেশ স্থগিত থাকবে। মুসলিমপ্রধান ওই সাতটি দেশের নাগরিকরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবে।

ট্রাম্পের ওই নিষেধাজ্ঞা স্থগিত করে ফেডারেল কোর্টের দেওয়া আদেশ বাতিল চেয়ে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগের করা আবেদন শুনে যুক্তরাষ্ট্রের সান ফ্রান্সিসকোতে অবস্থিত নাইনথ সার্কিট আপিল কোর্ট এ আদেশ দেন। আরো যুক্তি উপস্থাপনের জন্য আদালত হোয়াইট হাউস ও নির্বাহী আদেশের বিরুদ্ধে অবস্থান নেওয়া রাজ্যগুলোকে আজ সোমবার পর্যন্ত সময় দিয়েছেন।

সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশে নিষেধাজ্ঞা জারি করে এবং অস্থায়ীভাবে যুক্তরাষ্ট্রে শরণার্থী প্রবেশ নিষিদ্ধ করে ২৭ জানুয়ারি ওই নির্বাহী আদেশটি দিয়েছিলেন ট্রাম্প। গত শুক্রবার সিয়াটলের ফেডারেল কোর্টের বিচারক  জেমস রবার্ট ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ সাময়িকভাবে স্থগিত করেন। ট্রাম্পের আদেশের সাংবিধানিক বৈধতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছেন বিচারক রবার্ট।

ওই স্থগিতাদেশ চ্যালেঞ্জ করে ট্রাম্পের ভ্রমণ নিষেধাজ্ঞা অবিলম্বে বহালে আপিল কোর্টে আবেদন করে যুক্তরাষ্ট্রের বিচার বিভাগ। আদালতের আদেশে ট্রাম্পের নির্বাহী আদেশ স্থগিত হওয়ার পর এসব আদেশ বাস্তবায়নে যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছিল সেগুলো বন্ধ করার কথা জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ।

নিষেধাজ্ঞা স্থগিত হওয়ার পর শরণার্থী ও ইরান, ইরাক, লিবিয়া, সোমালিয়া, সুদান, সিরিয়া ও ইয়েমেনের কয়েক হাজার ভ্রমণকারী যুক্তরাষ্ট্রগামী ফ্লাইটগুলোতে উঠতে শুরু করে।

জানা গেছে, নিষেজ্ঞা জারি হওয়ার পর থেকে ৬০ হাজার ব্যক্তির ভিসা বাতিল হয়। তবে বিচার বিভাগের দাবি এ সংখ্যা এক লাখের কাছাকাছি।

এর আগে সিয়াটলের কেন্দ্রীয় আদালতের বিচারক জেমস রবার্ট ট্রাম্পের এই আদেশ স্থগিত করেন। এরপর বিষয়টি নিয়ে প্রতিক্রিয়া জানতে চাইলে নিজের ফ্লোরিডা গলফ রিসোর্টে সাপ্তাহিক ছুটি কাটাতে যাওয়া ট্রাম্প বলেন, ‘এই মামলায় আমরাই জিতব। দেশের নিরাপত্তার খাতিরেই জয় আসবে। ’ পরে এক টুইটে বিচারক জেমস রবার্ট প্রসঙ্গে ট্রাম্প বলেন, ‘এই তথাকথিত বিচারকের মতামত অদ্ভুত এবং টিকবে না। ’

এর পরই শনিবার দিন শেষে এই আপিলটি করে বিচার বিভাগ। যা রবিবার খারিজ হয়ে যায়। এ আদেশ হওয়ার পরপরই ওই সাতটি মুসলিম দেশের নাগরিকদের যুক্তরাষ্ট্রের প্রবেশের ওপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নেয় যুক্তরাষ্ট্রের সীমান্ত সংস্থা ও বিমানবন্দরগুলো। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ৩০ বছর বয়সী ইরানি নারী বলছিলেন, তিনি আবার যুক্তরাষ্ট্রের টিকিট বুক করেছেন। এর আগেরবার ট্রাম্পের নিষেধাজ্ঞার কারণে তা বাতিল হয়ে যায়। ‘গতকাল পর্যন্ত একদম হতাশ ছিলাম আমি। খবর শোনার পর কিছুটা আশাবাদী হয়েছি। তবে সুযোগ আর ঝুঁকি সমান সমান। আমি ঝুঁকিটা নিতে চাই। ’ সূত্র : এএফপি, বিবিসি।


মন্তব্য