kalerkantho

মঙ্গলবার। ২১ ফেব্রুয়ারি ২০১৭ । ৯ ফাল্গুন ১৪২৩। ২৩ জমাদিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মূল হোতারা এখনো অধরা, গ্রেপ্তারে আলটিমেটাম

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মূল হোতারা এখনো অধরা, গ্রেপ্তারে আলটিমেটাম

রাজধানীর চিড়িয়াখানা রোডের বিসিআইসি কলেজের দুই ছাত্রীর ওপর বখাটেদের হামলার ঘটনায় মূল অভিযুক্তকে এখনো ধরতে পারেনি পুলিশ। এ নিয়ে মিরপুরে শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসীর মধ্যে ক্ষোভ দেখা দিয়েছে। বখাটেদের দ্রুত আইনের আওতায় আনতে গতকাল সকালে শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন করেছে। বিক্ষোভ সমাবেশ থেকে ২৪ ঘণ্টার মধ্যে অভিযুক্ত ও তার সহযোগীদের ধরতে না পারলে কঠোর আন্দোলনের ডাক দেওয়া হবে আলটিমেটাম দেওয়া হয়।

এদিকে সিরাজদিখানে স্কুল ছাত্রীর ওপর বখাটেদের হামলার প্রতিবাদে গতকাল এলাকায় মানববন্ধন করা হয়। পুলিশ মূল সন্দেহভাজনকে গ্রেপ্তার করতে না পারলেও তার এক সহযোগীকে গ্রেপ্তার করেছে।

গতকাল বৃহস্পতিবার সকাল ১১টার দিকে মিরপুর বিসিআইসি কলেজের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচি পালন করে শিক্ষার্থীরা। কয়েক শ শিক্ষার্থী কলেজের সামনের রাস্তা অবরোধ করে স্লোগান দিতে থাকে। ঘটনায় জড়িত করিম ওরফে জীবনকে গ্রেপ্তার না করা পর্যন্ত তারা রাস্তা থেকে যাবে না বলে ঘোষণা দেয়। শিক্ষার্থীদের মানববন্ধনের কারণে চিড়িয়াখানা সড়কে যানজটের সৃষ্টি হয়। দুুপুর ১২টার দিকে বিক্ষুব্ধ শিক্ষার্থীদের একটি অংশ কলেজের সামনে জীবনের ‘অহনা ফাস্ট ফুট অ্যান্ড খাবার হোটেলে’ ভাঙচুর চালায়। খবর পেয়ে শিক্ষকরা এসে তাদের বাধা দেয়। এ সময় শিক্ষার্থীরা একটি বাস ভাঙচুর করার চেষ্টা করে। পরে পুলিশ ও শিক্ষকরা তাদের বুঝিয়ে কলেজ প্রাঙ্গণে নিয়ে যায়। মানববন্ধনে কলেজের ভাইস প্রিন্সিপাল আফরাফুল ইসলাম বক্তব্য

দেন। এ সময় তিনি বলেন, ‘আমার দুই সন্তানের ওপর যারা হামলা করেছে তারা কাপুরুষ। দুই মেয়ে সাহস দেখিয়ে বখাটেদের জাপটে ধরেছিল। কিন্তু শক্তিতে তারা হার মানলেও তাদের মনোবল ছিল চাঙ্গা। ওই বখাটেদের দ্রুত ধরতে হবে। কাউকে ছাড় দেওয়া যাবে না। বিষয়টি কলেজ কর্তৃপক্ষ ও পুলিশ প্রশাসন দেখবে। ’

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া এক ছাত্রী ক্ষুব্ধ কণ্ঠে বলে, ‘দেশের নারীরা আজ লাঞ্ছিত। একের পর এক দেশের বিভিন্ন স্থানের স্কুল, কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রীদের ওপর একশ্রেণির দুর্বৃত্ত হামলা চালিয়েই যাচ্ছে, যা দেশবাসী জানে। কিন্তু দুঃখের বিষয়, ওই চিহ্নিত বখাটেদের বিচার হচ্ছে না। ’ ক্ষুব্ধ ওই শিক্ষার্থী আরো বলে, ‘যেখানে চাপাতির কোপে আহত ও রাতের অন্ধকারে ধর্ষণের পর হত্যায় জড়িত ঘাতকরা গ্রেপ্তার হচ্ছে না, হলেও বিচার হচ্ছে না, সেখানে আমাদের সহপাঠীদের মারধরের বিচার হবে কি?’

শাহআলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আনোয়ার হোসেন জানান, জীবন ওরফে করিমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টায় অভিযান অব্যাহত আছে। আর অভিযুক্ত লুৎফর রহমান বাবুকে মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে গতকালই আদালতে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত বুধবার সকাল সোয়া ১১টার দিকে কলেজের সামনে দুই বোনকে উত্ত্যক্ত করে জীবন ওরফে করিম, বাবুসহ তার বন্ধুরা। দুই বোন এর প্রতিবাদ করলে বখাটেরা তাদের ধাক্কা দিয়ে রাস্তায় ফেলে বাঁশ দিয়ে পেটায়। এতে দুই বোনের একজনের পা ভেঙে যায়। আরেকজনও আহত হয়। এ ঘটনায় তাদের বাবা বাদী হয়ে শাহআলী থানায় একটি মামলা করেন।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এলাকার এক ব্যবসায়ী জানান, বিসিআইসি কলেজের সামনে উত্ত্যক্ত করা বখাটেদের নিত্যদিনের ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। প্র্রতিদিনই বখাটেদের উত্ত্যক্তের শিকার হয় ছাত্রীরা। বখাটেরা ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মী বলে পরিচয় দিয়ে হুমকি-ধমকি দিয়ে থাকে। এমনকি তারা দোকান থেকে ফাও খেয়ে যায়। কেউ তাদের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পারে না। বখাটে জীবন গ্রুপ এখানে দীর্ঘদিন ধরে বখাটেপনা করে আসছে। পুলিশ দেখেও না দেখার ভান করে।

সিরাজদিখানে স্কুল ছাত্রীর ওপর হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ১ : মুন্সীগঞ্জ প্রতিনিধি জানান, সিরাজদিখানে স্কুল ছাত্রীর ওপর বখাটেদের হামলার প্রতিবাদে বৃহস্পতিবার মানববন্ধন হয়েছে। এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ বখাটে সেলিমের সহযোগী শেখ জাহিদ নামে এক যুবককে গ্রেপ্তার করেছে। পুলিশ বৃহস্পতিবার দুপুরে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন জানিয়ে তাকে আদালতে পাঠায়। সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতের বিচারক মুক্তা মণ্ডল সোমবার রিমান্ড শুনানির দিন ধার্য রেখে জাহিদকে জেলহাজতে পাঠানোর আদেশ দেন। সিনিয়র সহকারী পুলিশ সুপার মো. সামসুজ্জামান বাবু জানান, রশুনিয়া বাগানবাড়ী থেকে বুধবার শেখ জাহিদকে গ্রেপ্তার করা হয়। সে বখাটে সেলিমের বন্ধু। পুলিশ সেলিমকে গ্রেপ্তারের চেষ্টা চালাচ্ছে। খুব দ্রুত মূল অপরাধীকে ধরা সম্ভব হবে বলে তিনি জানান।

এ ঘটনার প্রতিবাদে রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের সামনে সিরাজদিখান-নিমতলা সড়কে এই মানববন্ধন করেছে শিক্ষক-শিক্ষার্থী ও এলাকাবাসী। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টা পর্যন্ত আধাঘণ্টাব্যাপী এ মানববন্ধন থেকে দ্রুত বখাটেকে গ্রেপ্তারের দাবি জানানো হয়। বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আ. রশিদ তালুকদারের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে একাত্মতা প্রকাশ করে বক্তব্য দেন উপজেলা চেয়ারম্যান মহিউদ্দিন আহমেদ, সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও স্কুল পরিচালনা পর্ষদের সভাপতি অ্যাডভোকেট আবুল কাশেম, সিরাজদিখান উপজেলা পরিষদের মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান হেলেনা ইয়াসমিন, উপজেলা আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক এস এম সোহরাব হোসেন, বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আবদুল রশিদ তালুকদার প্রমুখ।

উল্লেখ্য, রশুনিয়া উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী তাহমিনা আক্তার আঁখিকে মঙ্গলবার বিকেলে বাড়িতে ঢুকে চাপাতি দিয়ে কুপিয়ে গুরুতর আহত করে এক বখাটে। সে বর্তমানে আশঙ্কাজনক অবস্থায় ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন।


মন্তব্য