kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সবিশেষ

যে গ্রামে শিশু জন্মায় না!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

১৫ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



ভারতের মধ্যপ্রদেশের রাজধানী ভোপাল থেকে ৭০ কিলোমিটার দূরের একটি গ্রাম। কিন্তু এক অন্ধবিশ্বাসের ফলে গ্রামবাসীরা পড়ে রয়েছে কয়েক শ বছর  পেছনে।

গ্রামটিতে বহু দশক ধরে কোনো শিশু জন্ম নেয়নি। সেখানকার মানুষ বিশ্বাস করেন যে গ্রামে কোনো শিশু জন্ম নিলে হয় তার মৃত্যু হবে, অথবা বাচ্চাটি বিকলাঙ্গ হয়ে যাবে।

তাই গর্ভবতী নারীদের গ্রামের বাইরে গিয়ে সন্তানের জন্ম দিতে হয়। গ্রামের বাইরে একটি প্রসূতিঘর তৈরি করা আছে, সেখানেই বেশির ভাগ মা সন্তানদের জন্ম দেন। আজকাল কেউ অবশ্য স্থানীয় হাসপাতালেও যান প্রসবের জন্য। তবে গ্রামের ভেতরে সন্তান প্রসব কখনই হয় না।

রাজগড় জেলায় নরসিংগড় মহকুমার অধীন সাঁকা জাগীর নামের এই গ্রামটিতে প্রায় এক হাজার ২০০ মানুষ থাকে। বেশির ভাগই গুর্জর সম্প্র্রদায়ের।

নরসিংগড়ের তহশিলদার অমিতা সিং তোমর বলেন, ‘অন্ধবিশ্বাসের কারণেই ওই গ্রামের বাইরে গিয়ে শিশুদের জন্ম দেন মায়েরা। তবে এক যুবক নতুন সরপঞ্চ (পঞ্চায়েত প্রধান) হয়েছেন। তিনি চেষ্টা করছেন গ্রামের মানুষদের এই বিশ্বাস ভাঙতে। আমি নিজেও দিন কয়েকের মধ্যে ওখানে যাব ঠিক করেছি। ’ সূত্র : বিবিসি।


মন্তব্য