kalerkantho

রবিবার। ৪ ডিসেম্বর ২০১৬। ২০ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৩ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


জঙ্গিবাদ ছেড়ে আত্মসমর্পণ তিন ভাইবোনের

বিশেষ প্রতিনিধি, যশোর   

৪ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



জঙ্গিবাদ ছেড়ে আত্মসমর্পণ তিন ভাইবোনের

যশোরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে আশরাফুল

নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহ্রীরের তিন সদস্য আত্মসমর্পণ করেছেন। তাঁরা একই পরিবারের বলে পুলিশ জানিয়েছে।

যশোর শহরের এই পরিবারে ছয় সদস্য জঙ্গি তৎপরতায় জড়িত এবং নিখোঁজ বলে পুলিশ আগেই জানিয়েছিল। পরিবারের প্রধান আব্দুল আজিজ বর্তমানে জর্দানপ্রবাসী। গতকাল সোমবার সকালে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে গিয়ে তাঁর তিন সন্তান আত্মসমর্পণ করে স্বাভাবিক জীবনে ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন।

পুলিশ সূত্র জানিয়েছে, যশোর শহরের পুরাতন কসবা কদমতলা এলাকায় আব্দুল আজিজের বাড়ি। তিনি বিদেশে থাকলেও পরিবারের সদস্যদের এখানেই বসবাস। এই পরিবারের ছয়জন হিযবুত তাহ্রীরের সক্রিয় সদস্য। তাদের মধ্যে বড় মেয়ে মাসুমা আক্তার, ছেলে তানজিব ওরফে আশরাফুল ও তানজির আহমেদ আত্মসমর্পণ করেছেন।

যশোরের পুলিশ সুপার আনিসুর রহমান জানান, আত্মসমর্পণকারীদের মধ্যে তানজিব ওরফে আশরাফুল নিষিদ্ধ সংগঠন হিযবুত তাহ্রীরের ‘মোশরেক’ পদধারী। তিনি জঙ্গিদের প্রশিক্ষক। অন্যরা একই সংগঠনের কর্মী।

পুলিশের খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি এস এম মনিরুজ্জামান গতকাল দুপুরে পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলন করে আত্মসমর্পণকারীদের ব্যাপারে তথ্য প্রকাশ করেন। তিনি বলেন, ‘প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার প্রতিশ্রুতি অনুযায়ী আত্মসমর্পণকারীদের আইনি সহায়তা দেওয়া হবে। আর যারা আত্মসমর্পণ করবে না তাদের জীবন অত্যন্ত কঠিন হবে। আগে যারা আত্মসমর্পণ করেছে তাদের ব্যাপারে আইনি সহায়তার পদক্ষেপ নেওয়া হচ্ছে। যা হবে সব আইনগতভাবেই হবে। ’

সংবাদ সম্মেলনে তানজিব ওরফে আশরাফুলকে হাজির করা হলেও তাঁর ভাইবোনকে প্রকাশ্যে আনা হয়নি। তানজিব সাংবাদিকদের জানিয়েছেন, ২০১৪ সালে একটি চক্রের ফাঁদে পড়ে এ পথে এসেছেন। তারা ধর্মের কথা বলে প্রলুব্ধ করেছিল। অনেক বই, লিফলেট পড়তে দিয়েছিল। এর আগে লিফলেটসহ পুলিশের হাতে আটক হয়েছিলেন তিনি। তার পর থেকে স্বাভাবিক জীবনে ফিরতে চেষ্টা করেন বলে তিনি দাবি করেছেন।

সূত্র জানায়, তানজিব বিভিন্ন সময়ে নিজের বাসায় হিযুবত কর্মীদের প্রশিক্ষণ দিয়েছে। হারেজ আলী নামে আরেকজন প্রশিক্ষক হিসেবে তাঁর সঙ্গে থাকত। পরিবারের সদস্যরা তানজিবের মাধ্যমে এ চক্রে জড়িয়েছে এবং প্রশিক্ষণ নিয়েছে।

গত ৬ সেপ্টেম্বর সংবাদ সম্মেলন করে যশোরের পুলিশ সুপার জানিয়েছিলেন, পুরাতন কসবা কদমতলা এলাকার আব্দুল আজিজের ছেলে তানজিব ও তানজির আহমেদ, মেয়ে মাসুমা আক্তার ও মাকসুদা খাতুন, মাকসুদার স্বামী শাকির আহম্মেদ ও মাসুমার স্বামী নাজমুল হাসান নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি সংগঠন হিযবুত তাহ্রীরের সদস্য। একই পরিবারের ছয় জঙ্গিসহ ১১ জঙ্গির ছবিসহ তখন পুলিশ পোস্টারিং করে। এর আগে দুই দফায় যশোরে চার জঙ্গি আত্মসমর্পণ করেছে। আত্মসমর্পণকারীদের সবাইকে আইনি সহায়তা দেওয়া হবে বলে পুলিশের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে।


মন্তব্য