kalerkantho

শুক্রবার । ৯ ডিসেম্বর ২০১৬। ২৫ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৮ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে যুবকের মৃত্যু

নিজস্ব প্রতিবেদক   

১ অক্টোবর, ২০১৬ ০০:০০



মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে যুবকের মৃত্যু

রাজধানীর দোলাইরপাড় এলাকায় একটি মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রে জাকির হোসেন (৪৩) নামে এক যুবকের মৃত্যু হয়েছে। গতকাল শুক্রবার ভোরে ঢাকা মেডিক্যাল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতাল থেকে পুলিশ তাঁর লাশ উদ্ধার করেছে।

‘সুন্দর জীবন’ নামের ওই মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রটির কর্তৃপক্ষ দাবি করেছে, বৃহস্পতিবার রাতে পালানোর সময় ভবন থেকে পড়ে জাকির মারা গেছেন। ঘটনাটি তদন্ত করছে পুলিশ। মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের (ডিএনসি) কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শ্যামপুর থানার এসআই মাহবুব আলম জানান, ‘সুন্দর জীবন’ নামের মাদকাসক্তি নিরাময় কেন্দ্রটির অবস্থান দোলাইরপাড়ের লাইফলাইন হাসপাতালের চার ও পাঁচতলায়। ওই কেন্দ্রে জাকিরসহ পাঁচজন রোগী ছিলেন। কর্তৃপক্ষ বলছে, গত বৃহস্পতিবার রাত ১টার দিকে চিকিৎসাধীন চার মাদকসেবী রুমের শীতাতপ নিয়ন্ত্রণযন্ত্র (এসি) সরিয়ে ফাঁকা দিয়ে পালানোর পথ তৈরি করে। রাত আড়াইটার দিকে সেই পথ দিয়ে বের হয়ে পানির পাইপ বেয়ে পরান নামে একজন পালিয়ে যেতে সক্ষম হন। তবে নামতে গিয়ে নিচে পড়ে যান জাকির। তাঁকে উদ্ধার করে ঢামেক হাসপাতালে পাঠালে কর্তব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

স্বজনদের বরাত দিয়ে এসআই মাহবুব বলেন, জাকিরের বাবার নাম শামসুল হক। বাড়ি কুমিল্লার বাঙ্গরা এলাকায়। পরিবারের সঙ্গে নারায়ণগঞ্জের কাঁচপুরের পুরান বাজার এলাকায় থাকতেন জাকির। মাদকাসক্ত জাকিরকে গত ২৮ সেপ্টেম্বর ওই চিকিৎসাকেন্দ্রে ভর্তি করে স্বজনরা। তিনি ফেনসিডিলে আসক্ত ছিলেন। স্বজনরা প্রাথমিকভাবে অভিযোগ করায় নিরাময় কেন্দ্রের মালিক শফিকুর রহমানকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়। তবে স্বজনরা পরে আর মামলা করেনি।

ঢামেক সূত্র জানায়, গতকাল সেখানকার মর্গে জাকিরের ময়নাতদন্ত সম্পন্ন হয়েছে। জানতে চাইলে শ্যামপুর থানার ওসি শেখ আব্দুর রাজ্জাক বলেন, ‘পালাতে গিয়ে পড়ে জাকির মারা গেছে বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে। এ ঘটনায় কর্তৃপক্ষের অবহেলা ছিল বললেও তার স্বজনরা মামলা করতে রাজি হচ্ছে না। তবে আমরা বিষয়টি খতিয়ে দেখছি। ’

মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের পরিচালক (চিকিৎসা ও পুনর্বাসন) মহিদুল ইসলাম কালের কণ্ঠকে বলেন, ‘সুন্দর জীবন’ নামের প্রতিষ্ঠানটি নিবন্ধিত কি না তা তাৎক্ষণিক বলা যাচ্ছে না। সেখানে মৃত্যুর ঘটনা কিভাবে ঘটল বা এর পেছনে কর্তৃপক্ষের অবহেলা রয়েছে কি না তা আমরা খতিয়ে দেখব। ’


মন্তব্য