kalerkantho

সোমবার । ৫ ডিসেম্বর ২০১৬। ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৩। ৪ রবিউল আউয়াল ১৪৩৮।


সবিশেষ

পাঁচের বেশি ইন্দ্রিয়!

কালের কণ্ঠ ডেস্ক   

২৭ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



দর্শন, শ্রবণ, ঘ্রাণ, স্বাদ ও স্পর্শ—এই পাঁচটি ইন্দ্রিয়ের কথাই এতকাল জেনে এসেছে সবাই। এর বাইরে আর কী অনুভূতি থাকতে পারে মানুষের? সাম্প্রতিক এক গবেষণায় বিজ্ঞানীরা বলছেন, ষষ্ঠ বা সপ্তম ইন্দ্রিয়ও মানুষের রয়েছে।

আর সেই ইন্দ্রিয়ানুভূতি মোটেও অলৌকিক কিছু নয়।

বিজ্ঞানীরা বলছেন, চেনা ইন্দ্রিয়গুলোর বাইরে এমন কিছু ইন্দ্রিয়-জগৎ রয়েছে, যার সন্ধান আমরা সেভাবে রাখি না। এমনই এক অনুভূতি হলো ‘প্রোপ্রায়েসেপশন’, যার বাংলা অর্থ দাঁড়ায় ‘নিজের ওপর দখলদারি’। এই বিশেষ অনুভূতিটি মানুষকে তার দেহের আয়তন ও পরিমাপ সম্পর্কে সচেতন রাখে। যেকোনো সময়-পরিসরে দেহকে খাপ খাওয়াতে সাহায্য করে। আর একটি অনুভূতি হলো ‘থার্মোসেপশন’। এর দ্বারা মানুষ তার চারপাশের তাপমাত্রাকে টের পায়। এই অনুভবই মানুষের দেহের তাপমাত্রাকে সমমাত্রিক রাখে। এর দ্বারাই আমরা বুঝতে পারি, কখন লেপ মুড়ি দিতে হবে আর কখন ঠাণ্ডা ঘোলের সরবত খেতে হবে। আর একটি ইন্দ্রিয়ানুভূতি ‘ইকুইলিব্রিওসেপশন’। এর কাজ দেহের ভারসাম্য বজায় রাখা। এর কৃপাতেই মানুষ হাঁটা বা দৌড়ানোর সময় পড়ে যায় না। এর বাইরেও রয়েছে ক্ষুধা-তৃষ্ণা, সময় ও দিক-সংক্রান্ত অনুভূতি। ক্ষুধা-তৃষ্ণার অনুভূতি আমাদের দেহ কখন পুষ্টি চাইছে, তা ব্যক্ত করে। সেভাবে দেখলে, এই অনুভূতিগুলো পঞ্চেন্দ্রিয়ের হিসাবে পড়ে না। সূত্র : এবেলা।


মন্তব্য