kalerkantho


বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বললেন

আগামী সপ্তাহে ইউনেসকোর উদ্বেগের জবাব

নিজস্ব প্রতিবেদক   

২৬ সেপ্টেম্বর, ২০১৬ ০০:০০



আগামী সপ্তাহে ইউনেসকোর উদ্বেগের জবাব

বাগেরহাটের রামপালে সুন্দরবনের পাশে ১৩২০ মেগাওয়াট কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্রের কারণে সুন্দরবনের ক্ষতি হবে বলে ইউনেসকো যে উদ্বেগ জানিয়েছে সে বিষয়ে সরকারের পক্ষ থেকে আগামী সপ্তাহে জবাব দেওয়া হবে। বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ গতকাল রবিবার এ কথা বলেছেন।

রাজধানীর বিদ্যুৎ ভবনে এক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান শেষে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী এ কথা বলেন। ‘বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের চ্যালেঞ্জসমূহ গবেষণার মাধ্যমে নিরসন’ শীর্ষক এই কর্মশালার আয়োজন করে বাংলাদেশ এনার্জি অ্যান্ড পাওয়ার রিসার্চ কাউন্সিল (ইপিআরসি)।

বিদ্যুৎ প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘ইউনেসকোর প্রতিবেদনে আমাদের নদীগুলোর ব্যাপার এসেছে। প্রতিবেদনে উঠে আসা উদ্বেগগুলো গুরুত্বের সঙ্গে দেখছি এবং সেভাবেই জবাব তৈরি করছি। এখানে কিছু টেকনিক্যাল বিষয় আছে যেগুলো আমাদের জানাতে হবে। এই টেকনিক্যাল বিষয়গুলো ইউনেসকোকে এর আগেও জানিয়েছি। এখন আমরা বিস্তারিত জানাচ্ছি। টেকনিক্যাল ব্যাপারগুলো আমরা কিভাবে সামলাব তা নিয়ে ইউনেসকোর আশঙ্কা আছে। অনেকেরই আশঙ্কা আছে। ইউনেসকোকে আমাদের বক্তব্যটা দিতে পারলে হয়তো বুঝবে যে তাদের শঙ্কা সঠিক নয়। ’

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্র সুন্দরবনের কোনো ক্ষতি করবে না—এমন প্রত্যয় ব্যক্ত করে নসরুল হামিদ বলেন, ‘এই কেন্দ্র নিয়ে শঙ্কার কিছু নেই। উন্নত প্রযুক্তি তো আমরা কেউ দেখিনি। যতক্ষণ পর্যন্ত না দেখা হবে সচক্ষে ততক্ষণ পর্যন্ত আমরা ভাবব যে ধ্বংসের দিকে চলে যাচ্ছে। ’

রামপাল বিদ্যুৎকেন্দ্রের বিরুদ্ধে আন্দোলনকারীদের প্রতি ইঙ্গিত করে প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের উন্নয়ন পিছিয়ে দেওয়ার জন্য রামপাল নিয়ে এমন পরিস্থিতি সৃষ্টি করা হতে পারে। দেশ যেভাবে উন্নয়নের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, যেভাবে আমরা বিদ্যুৎ সমস্যার সমাধান করতে পারছি, হতে পারে অনেকে এই উন্নয়ন পিছিয়ে দিতে চাচ্ছে। যাঁরা এর বিরোধিতা করছেন, তাঁদের আবেগ দিয়ে কথা না বলে যুক্তি উপস্থাপনের আহ্বান জানাচ্ছি। ’

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, ‘অনেকে নিজেরাও বুঝতে পারছেন যে তাঁরা সেই রাজনীতিতে ঢুকে যাচ্ছেন। আমরা তো ঢাকা থেকে ২৫ কিলোমিটার দূরে গজারিয়াতেও কয়লাভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র করছি। ওটা নিয়ে তো কেউ উদ্বিগ্ন হচ্ছে না। ’

এর আগে অনুষ্ঠিত কর্মশালায় মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিনিয়া টেকনোলজির ইলেকট্রিক্যাল অ্যান্ড কম্পিউটার ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের অধ্যাপক ড. সাইফুল রহমান। ইপিআরসি চেয়ারম্যান ড. আহমেদ কায়কাউসের সভাপতিত্বে কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য দেন বিদ্যুৎ বিভাগের সচিব মনোয়ার ইসলাম এবং জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ বিভাগের সচিব নাজিমউদ্দিন চৌধুরী।


মন্তব্য